#COVID 19 জীবনযুদ্ধে জয়ী ১২ বছরের নাবালিকা

#COVID 19 জীবনযুদ্ধে জয়ী ১২ বছরের নাবালিকা

#COVID 19 জীবনযুদ্ধে জয়ী ১২ বছরের নাবালিকা

করোনা ভাইরাস সংক্রমণের হার শিশুদের ক্ষেত্রে কম হলেও শূন্য কখনওই নয়। আবার কখনও কখনও ব্যতিক্রমী কিছু ক্ষেত্রে, করোনায় আক্রান্ত শিশু বা নাবালক-নালালিকাদের অন্য কিছু উপসর্গও দেখা দিতে পারে। যা হয়ে উঠতে পারে প্রাণঘাতী। এমনই কিছু ঘটেছিল লুইসিয়ানার কোভিংটনের বাসিন্দা, ১২ বছরের জুলিয়েট ডালির জীবনে।

করোনা পজিটিভ হওয়ার পাশাপাশি সে আক্রান্ত হয়েছিল ‘মাল্টিসিস্টেম ইনফ্ল্যামেটরি সিন্ড্রোম’ অর্থাৎ MIC’তে। যার জেরে ভয়ংকর অসুস্থ হয়ে পড়ায় তার হার্ট বিট বন্ধ হয়ে গিয়েছিল দু’দুবার। কিন্তু শেষ পর্যন্ত সে সুস্থ হয়ে বাড়ি ফিরে আসতে পেরেছে। এমনকী, তার মনেও নেই, কখন তার হৃদযন্ত্র কাজ করা বন্ধ করে দিয়েছিল। রোগকে জয় করে, বছর বারোর এই বালিকা বর্তমানে বাড়িতে অনলাইনে স্কুলও ‘অ্যাটেন্ড’ করছে খোশমেজাজে।

পরিবার সূত্রে জানা গিয়েছে, দিন কয়েক ধরেই অসুস্থ বোধ করছিল আমেরিকায় প্রথম ‘মাল্টিসিস্টেম ইনফ্ল্যামেটরি সিন্ড্রোম’-এ আক্রান্ত জুলিয়েট। বমি, ক্লান্তি আর জ্বরের পাশাপাশি ঠোঁট ক্রমশ নীলচে হয়ে আসছিল তার। পরিস্থিতি খারাপ হচ্ছে দেখে মা ও বাবা তাকে হাসপাতালে নিয়ে যান। পরীক্ষা করে জানা যায়, জুলিয়েট কোভিড পজিটিভ হওয়ার পাশাপাশি যে রোগে আক্রান্ত, তা বিশ্বে গত কয়েক মাসে ব্রিটেন ও ইটালির খুব অল্প সংখ্যক শিশুদের মধ্যে দেখা গিয়েছে।

চিকিৎসকদের তরফে জানানো হয়, এই উপসর্গের নাম মাল্টিসিস্টেম ইনফ্ল্যামেটরি সিন্ড্রোম’। জুলিয়েটকে ভেন্টিলেটরে রাখা হয়। পরে ঠিক করা হয় অন্যত্র এয়ারলিফট করে নিয়ে যাওয়া হবে। কিন্তু, এই সময়ই ঘটে বিপত্তি। চিকিৎসকরা জানান, কার্ডিয়াক অ্যারেস্ট হয়েছে জুলিয়েটের। কিছুক্ষণের মধ্যেই ফের জানা যায়, তাকে সুস্থ করে তোলা গিয়েছে। এর কিছু সময় পর হেলিকপ্টারের জন্য অপেক্ষা করার সময় আরও একবার হার্ট বিট বন্ধ হয়ে যায় ছোট্ট জুলিয়েটের। সঙ্গে সঙ্গে অন্য অর্গান ফেলিওরও হতে থাকে। তবে এবারও চিকিৎসকদের প্রচেষ্টায় কেটে যায় বিপদ। জ্ঞান ফেরার পর জুলিয়েট জানতেই পারে না, তার হৃদয় দু’দুবার স্তব্ধ হয়ে গিয়েছিল! মেয়ের পুর্নজন্মের জন্য চিকিৎসকদের ধন্যবাদ জানিয়েছেন তার বাবা-মা।

পাঠকের মন্তব্য