দান করতে অঢেল ধন সম্পত্তির দরকার হয় না

দান করতে অঢেল ধন সম্পত্তির দরকার হয় না

দান করতে অঢেল ধন সম্পত্তির দরকার হয় না

দান করতে অঢেল ধন সম্পত্তির দরকার হয় না। দরকার হয় মহৎ একটা বড় হৃদয়ের। তার উজ্জ্বল দৃষ্টান্ত আমাদের মেয়র সাহেব। তিনি
যদি ১০ টাকা আয় করেন ৮ টাকা ব্যয় করেন গরিব দুঃখী অসহায় মানুষ এবং পার্টির জন্য। আর বাকি দুই টাকা ব্যয় করেন পরিবারের জন্য। এজন্য তার টাকা পয়সার সোঅফ টা খুব বেশি হয়। 

যে এত টাকা গরিব দুঃখী অসহায় মানুষের জন্য ব্যয় করতে পারে, সে না জানি কত টাকার মালিক। অনেকে মনে করেন আমরা না জানি কত বিলাসী জীবন যাপন করি। কিন্তু তা মোটেই নয় আমাদের জীবন যাপন অত্যন্ত সাদামাটা। একটা উদাহরণ দিলে বুঝতে পারবেন আমাদের প্রতি মাসের বাজারের যে বাজেট ঈদের মাসেও ঠিক একই, একটি পয়সাও বেশি নয়, আপনারা জানেন ঈদের মাসে সকলেরই ইফতারের জন্য একটু খরচ বেশি হয়। আমি এবং আমার সন্তানদের কোন ব্যাংক একাউন্ট নাই। 
 
আমি জানি, আপনারা কেউ এটা বিশ্বাস করতে পারবেন না। খুঁজে দেখতে পারেন, পেলে তার জন্য থাকবে পুরস্কার। আমরা অতি সাধারণ জীবন যাপন করি বলেই তিনি মানুষকে বেশি বেশি দান করতে পারেন, এখানে আমাদের অনেক অবদান আছে। পিরোজপুর এর মেয়র সাহেবের থেকে শতগুণ বেশি ধনাঢ্য ব্যক্তি পিরোজপুরে আছে, তারা একটি ফুটো পয়সাও গরীব-দুঃখীকে সাহায্য করেন না, এমনকি তারা যাকাত আদায় করেন না, নিজেদের যাকাত তারা নিজেরাই খেয়ে ফেলেন। এরা অনেক টাকার মালিক হলেও সাধারন মানুষ তাদেরকে গরিব মনে করেন আর, গরিবরা এদেরকে নিজেদের সমগোত্রীয় মনে করেন। 

প্রতিটি পরিবারের কর্তাব্যক্তিটি কেমন হবে তা নির্ভর করে তার স্ত্রী ও ছেলে মেয়েদের উপর। যে পরিবারের স্ত্রী ও ছেলে মেয়েরা কর্তা ব্যক্তিটিকে কে ভালো কাজ করার জন্য উৎসাহিত করেন, তাহলে কর্তা ব্যক্তি তাই করবে। আর যদি কোন পরিবারের স্ত্রী ছেলেমেয়েরা কর্তা ব্যক্তিটিকে খারাপ কাজ করার জন্য উৎসাহিত করেন, তাহলে তিনি খারাপ কাজই করবেন এবং লোকের চোখে তিনি ঘৃণার পাত্র হবেন এটাই স্বাভাবিক।

ফেসবুক স্ট্যাটাস লিঙ্ক : Nila Rahman

পাঠকের মন্তব্য