স্রোতে গা না ভাসিয়ে নজির স্থাপন করলেন ছাত্রলীগ নেতা স্বাধীন

স্রোতে গা না ভাসিয়ে নজির স্থাপন করলেন ছাত্রলীগ নেতা স্বাধীন

স্রোতে গা না ভাসিয়ে নজির স্থাপন করলেন ছাত্রলীগ নেতা স্বাধীন

দু'দিন পরেই ঈদুল ফিতর। সবাই ব্যস্ত সামর্থ্য অনুযায়ী নতুন জামা কাপড় কিনে ঈদ আনন্দ উদযাপন করতে। তবে সবার মত একই স্রোতে গা না ভাসিয়ে ভিন্ন নজির স্থাপন করলেন ঝিনাইদহের শৈলকুপা উপজেলার ১২নং নিত্যানন্দপুর ইউনিয়ন ছাত্রলীগের সাধারন সম্পাদক শামীমুল ইসলাম স্বাধীন। তিনি ঈদে নতুন জামা কাপড় কেনার টাকা দিয়ে পুলিশ সদস্যের ইফতার করিয়েছেন। শুক্রবার (২৩ মে) উপজেলার হাটফাজিলপুর ক্যাম্পের প্রায় ৩০ জন পুলিশ সদস্যের জন্য বিরিয়ানি খাবার দিয়ে ইফতারের আয়োজন করেন।

ইউনিয়ন ছাত্রলীগ নেতা স্বাধীন বলেন, বর্তমান করোনা ভাইরাস সংকট ও আইনশৃঙ্খলা স্বাভাবিক রাখতে পুলিশ ভাইয়েরা বগুড়া, আবাইপুর ও নিত্যানন্দপুর ৩টি ইউনিয়ন জুড়ে সাধারন মানুষের কল্যাণে দিনরাত নিরলসভাবে কাজ করে চলেছেন। তারা আমাদের এলাকার মুসাফির। মানুষ মরে গেলে সবই পড়ে থাকে, তবে তার কর্ম সারাজীবন তাকে বাঁচিয়ে রাখে। এমন ভাবনায় ঈদ খরচায় জমানো টাকা দিয়ে ইফতার করিয়েছি। তিনি আরো বলেন, পুলিশ ভাইদের ইফতার করাতে পেরে ঈদের আগেই আরেকটি ঈদ আনন্দের স্বাদ পেলাম।

এবিষয়ে হাটফাজিলপুর ক্যাম্প ইনচার্জ এসআই ফারুক হোসেন বলেন, ছোট ভাই হিসেবে স্বাধীন অনেক ভাল ছেলে। হঠাৎই আমাদের সদস্যদের ইফতার করাবে বলে ইচ্ছা পোষণ করে। আমরাও তার ইচ্ছার বিরুদ্ধে কথা বলিনি। তবে ঈদ খরচায় জমানো টাকা দিয়ে এমন পাগলামী করবে চিন্তাও করিনি। আগে জানলে এমন কাজ করতে দিতাম না। তিনি স্বাধীনের উজ্জ্বল ভবিষ্যৎ সমৃদ্ধি কামনায় উত্তরোত্তর দোয়া করেন।

উল্লেখ্য, স্বাধীন এর আগেও করোনা ভাইরাস সংক্রমণ রোধে তার নিজ ইউনিয়নে মাস্ক, হ্যান্ড স্যানিটাইজার ও সচেতনতা রোধে লিফলেট বিতরণ করছেন। এছাড়াও ইউনিয়ন ছাত্রলীগের ব্যানারে অসহায় কৃষকের বিন্যামূল্যে ২ বিঘা জমির পাকা ধান কেটে বাড়ি পৌছিয়ে দিয়েছেন।

পাঠকের মন্তব্য