৫’শত শাড়ী উপহার দিল শ্রী শ্রী রমনা কালী মন্দির পরিচালনা পরিষদ

শ্রী শ্রী রমনা কালী মন্দির ও শ্রীমা আনন্দময়ী আশ্রম

শ্রী শ্রী রমনা কালী মন্দির ও শ্রীমা আনন্দময়ী আশ্রম

সারাবিশ্বের মানুষ এক কঠিন সময় পার করছে। করোনাভাইরাস বা কোভিড-১৯ নামক এক অদৃশ্য শত্রুর হাত থেকে বাঁচতে সবাই গৃহবন্দী । এর ব্যতিক্রম হয়নি আমাদের প্রিয় মাতৃভূমিতে। এই দুঃসময়ে দেশের নিন্ম আয়ের মানুষের বড় দুঃচিন্তা হলো পরিবারের জন্য খাদ্য সংগ্রহ করে সবাই মিলে খেয়ে পড়ে বাঁচা। তারি মাঝে আসল পবিত্র ঈদুল ফিতর। তাই অসহায় কর্মহীন ও শ্রমজীবী মানুষের সাথে ঈদের আনন্দ ভাগাভাগি করে নিতে অন্যতম দৃষ্টান্ত রাখলেন শ্রী শ্রী রমনা কালী মন্দির ও শ্রীমা আনন্দময়ী আশ্রম। আজ দুপুরে শ্রী শ্রী রমনা কালী মন্দির ও শ্রীমা আনন্দময়ী আশ্রমের পক্ষ থেকে অসহায় ও শ্রমজীবীদের মাঝে ৫’শত শাড়ী বিতরণ করা হয়েছে।

রাজধানীর অন্যতম সার্বজনীন মন্দির শ্রী শ্রী রমনা কালী মন্দির এর সভাপতি উৎপল সাহা ও সাধারণ সম্পাদক সজীব বিশ্বাসের নেতৃত্বে এ কর্মসূচী পালন করা হয়। এসময় প্রধান অতিথি হিসেবে উপস্থিত ছিলেন বাংলাদেশ আওয়ামী লীগের বন ও পরিবেশ বিষয়ক সম্পাদক দেলোয়ার হোসেন। এসময় উৎপল সাহা বলেন, আমরা নিজ নিজ জায়গা থেকে যদি কিছুটা সহযোগীতা করতে পারি তাহলে আমাদের দেশে আসহায় –শ্রমজীবী মানুষের সাথে কিছুটা হলেও ঈদ আনন্দ ভাগাভাগি করা যাবে।

তিনি বলেন, দেশে করোনা ভাইরাস এর কারনে সাধারণ ছুটি সব কিছু বন্ধ থাকার কারনে দিন মজুর ও শ্রমজীবী মানুষ আসহায় হয়ে পড়েছেন ।এর ফলে শ্রমজীবী ও খেটে খাওয়া মানুষেরা এসব কিনতে পারছে না। তাই আমরা এসব অসহায় মানুষদের হাতে শাড়ী পৌঁছে দিচ্ছি। এছাড়া এই রমজান মাসজুড়ে আমরা বিভিন্ন সময়ে অসহায় মানুষের মধ্যে ইফতার বিতরণ করেছি।

এসময় সমাজের বিত্তবানদের আসহায় মানুষদের পাশে দাঁড়ানোর আহবান জানিয়ে দেলোয়ার হোসেন বলেন, দেশের সব মন্দিরের লোকজন যদি অসহায় মানুষদের পাশে এভাবে দাঁড়ায় তাহলে দেশে কোন মানুষ ঈদের আনন্দ থেকে বাদ পড়বে না।

এ সময় তিনি আরো বলেন, তারা সনাতন ধর্মাবলম্বী হয়েও যে মহৎ কাজ করছে তার জন্য আমি তাদেরকে ধন্যবাদ জানাই। উৎপল সাহা আরো বলেন, ধর্ম যার যার উৎসব সবার । আমরা সনাতন ধর্মাবলম্বী হয়েছি কি হয়েছে তার জন্য কি আমার তাদের সাথে ঈদের আনন্দ ভাগাভাগি করে নিতে পারি না!

এসময় উপস্থিত ছিলেন মন্দির কমিটির সহ-সভাপতি শ্রী বাবুল বিশ্বাস, সহ-সভাপতি প্রান কৃষ্ণ সাহা, যুগ্ন-সাধারন সম্পাদক চৈতী রানী বিশ্বাস, যুগ্ন-সম্পাদক সুমন রনি, যমুনা টিভি সাংবাদিক দেবাশীষ সরকার প্রমূখ সহ-সভাপতি পান্না বিশ্বাস, নিত্য পূজা সম্পাদক গোকুল সাহা, কোষাধ্যক্ষ পরাণ সাহা সহ মন্দির কমিটির নেতা কর্মীবৃন্দ।

পাঠকের মন্তব্য