মাস্ক বিষয়ে বিশ্ব স্বাস্থ্য সংস্থার মূল বার্তাটির বাংলায় অনুবাদ

মাস্ক বিষয়ে বিশ্ব স্বাস্থ্য সংস্থার মূল বার্তাটির বাংলায় অনুবাদ

মাস্ক বিষয়ে বিশ্ব স্বাস্থ্য সংস্থার মূল বার্তাটির বাংলায় অনুবাদ

বাসায় তৈরী কাপড়ের মাস্ক ব্যবহারের নির্দেশনা

বাসায় তৈরী কাপড়ের মাস্ক যারা পরতে পারবেন

আপনার যদি কোন স্বাস্থ্যগত সমস্যা (medical issue) বা শ্বাস-প্রশ্বাস জনিত জটিলতা না থাকে তাহলে বিশেষত বাইরে যাওয়ার সময় আপনি বাসায় তৈরী কাপড়ের মাস্ক পরতে পারবেন। সমাজকে নিরাপদ রাখতে এটা একটা গুরুত্বপূর্ণ ভূমিকা পালন করবে।

যারা বাসায় তৈরী কাপড়ের মাস্ক পরতে পারবেন না

যারা স্বাস্থ্যকর্মী বা যারা COVID -19 রোগীদের সংস্পর্শে থাকেন অথবা COVID-19 রোগীরা নিজেরা বাসায় তৈরী এই মাস্ক পরতে পারবেন না। এ ধরনের ব্যক্তিদের আরও উন্নত মাস্ক পরতে হবে। ( সার্জিক্যাল মাস্ক শুধু একবার ব্যবহারের জন্য পরা যাবে। N95 মাস্ক যদি ব্যবহারের পর নষ্ট না হয়ে যায় কিংবা ব্যবহারের পর নাক-মুখের সাথে যদি ঢিলা না হয়ে যায় তবে এটি বারবার ব্যবহার করা যাবে।
উল্লেখ্য যে, N95 মাস্কটি কেচে পরিস্কার করা যায় না।)

প্রত্যকে দুইটি করে মাস্ক রাখুন 

নিজের জন্য বাসায় তৈরী দুইটি মাস্ক রাখুন যাতে একটি কেচে দিলে আরেকটি ব্যবহার করতে পারেন। মাস্ক পরার আগে হাত ভালোভাবে ধুয়ে নিন। আর বাসায় তৈরী মাস্ক এখানে ওখানে ছড়িয়ে ছিটিয়ে না রেখে যত্ন সহকারে ভালো জায়গায় রাখুন, সাবান-গরম পানিতে ভালোভাবে কাচুন এবং ব্যবহারের পূর্বে মাস্কটি ভালো করে শুকিয়ে নিন।

কীভাবে এই মাস্ক তৈরী করবেন

পরিস্কার কাপড় ভালোভাবে কেচে নিয়ে কাপড়ের মাস্ক তৈরী করা যায়। মাস্কটি দিয়ে যেন নাক ও মুখ পরিপূর্ণ ভাবে ঢাকা যায় এবং তা যেন আরামদায়ক ভাবে মুখের সাথে লেগে থাকে তা নিশ্চিত করতে হবে।

কীভাবে ব্যবহার করবেন

* মাস্ক দিয়ে মুখ ও নাক ঢাকুন এবং এটা এমনভাবে বাঁধুন যেন মাস্ক ও নাক-মুখের মধ্যে খুব বেশি ফাঁকা না থাকে।

* পরার সময় মাস্কটি হাত দিয়ে স্পর্শ করা থেকে যথাসম্ভব বিরত থাকুন।

* মুখ থেকে খোলার সময় মাস্কটির সামনের অংশ ধরে না খুলে পেছনের ফিতা বা রাবার ধরে খুলুন।

* মাস্ক খোলার পর যদি হাত নোংরা থাকে তবে এ্যলকোহলীয় কোন হ্যান্ড রাব অথবা সাবান পানি দিয়ে হাত ধুয়ে ফেলুন।

* মাস্কটি ব্যবহার করতে করতে যদি এটি আদ্র বা ভেজা অনুভূত হয় সেক্ষেত্রে তাৎক্ষণিক ভাবে মাস্কটি বদলে ফেলে নতুন মাস্ক ব্যবহার করুন।

মাস্ক শেয়ার করবেন না 

 

কোন অবস্থাতেই অন্যের ব্যবহৃত মাস্ক পরবেন না। একটি মাস্ক শুধু একজনেরই ব্যবহার করা উচিত। এমনকি বেশি সদস্য বিশিষ্ট পরিবারে প্রত্যেকেরই পৃথক পৃথক মাস্ক থাকা উচিত।

(অনুবাদঃ Shain Mahmud)

পাঠকের মন্তব্য