না ফেরার দেশে; বিএনপির সাবেক দুই সংসদ সদস্য

না ফেরার দেশে; বিএনপির সাবেক দুই সংসদ সদস্য

না ফেরার দেশে; বিএনপির সাবেক দুই সংসদ সদস্য

না ফেরার দেশে চলে গেলেন বিএনপির সাবেক দুই সংসদ সদস্য। তাদের একজন চাঁদপুর-৫ (হাজীগঞ্জ-শাহরাস্তি) আসনের সাবেক সংসদ সদস্য (এমপি) এম এ মতিন।

অন্যজন একজন বাংলাদেশ সরকারের প্রথম মন্ত্রিসভার যোগাযোগ প্রতিমন্ত্রী ও বিএনপির সাবেক এমপি মুক্তিযোদ্ধা নুরুল ইসলাম মঞ্জুর। 

সোমবার দিবাগত রাত ১১টা ৫০মিনিটে ঢাকার এভার কেয়ার হাসপাতালে (সাবেক এপোলো) বার্ধক্যজনিত কারণে মারা যান মঞ্জুর। আর মঙ্গলবার সকাল ৯টার দিকে উত্তরার রেডিক্যাল হাসপাতালে মারা যান এম এ মতিন। সাবেক এমপি নুরুল ইসলাম মঞ্জুরের তৃতীয় ছেলে আহমেদ সোহেল মনজুর সুমন জানান, তার পিতা বার্ধক্যজনিত নানা রোগে ভুগছিলেন।

১৪ দিন আগে তাকে এভার কেয়ার হাসপাতালে ভর্তি করা হয়। সোমবার রাতে সেখানে মারা যান তিনি। মঞ্জুর স্ত্রী, ৪ ছেলে, ৩ মেয়েসহ অসংখ্যা গুণগ্রাহী রেখে গেছে। নুরুল ইসলাম মঞ্জুর মৃত্যুর নয় ঘণ্টা পর মারা যান বিএনপির আরেক সাবেক সংসদ সদস্য এম এ মতিন। মঙ্গলবার সকাল নয়টার দিকে হাসপাতালে চিকিৎসাধীন অবস্থায় মারা গেছেন বিএনপির চারবারের এই সংসদ সদস্য।

এম এ মতিনের মৃত্যুর বিষয়টি গণমাধ্যমকে নিশ্চিত করেছেন বিএনপি চেয়ারপারসনের প্রেস উইং সদস্য শামসুদ্দিন দিদার। জানা যায়, এক সপ্তাহ আগে উত্তরার নিজ বাসায় ব্রেন স্ট্রোক করলে এম এ মতিনকে উত্তরা রেডিক্যাল হাসপাতালে সিসিইউতে ভর্তি করা হয়।

সেখানে চিকিৎসাধীন অবস্থায় মারা যান বিএনপি সরকারের সময়ের পানিসম্পদ মন্ত্রণালয় সম্পর্কিত সংসদীয় স্থায়ী কমিটির সভাপতি মতিন। তার বয়স হয়েছিলো ৮৭ বছর। তিনি এক ছেলে এবং চার মেয়েসহ অসংখ্য গুণগ্রাহী রেখে গেছেন। হাসপাতালে তার করোনা পরীক্ষা করা হলে রিপোর্ট নেগেটিভ এসেছে।

পাঠকের মন্তব্য