আম্পানের প্রভাব না কাটতেই দেশে কালবৈশাখীর হানা

আম্পানের প্রভাব না কাটতেই দেশে কালবৈশাখীর হানা

আম্পানের প্রভাব না কাটতেই দেশে কালবৈশাখীর হানা

ঘূর্ণিঝড় আম্পানের প্রভাব না কাটতেই রাজধানী ঢাকাসহ দেশের বিভিন্ন জেলার ওপর দিয়ে কালবৈশাখী ঝড় বয়ে গেছে। মঙ্গলবার দিবাগত রাত এবং বুধবার ভোরে প্রবল গতিতে এই ঝড় আঘাত হানে।

উত্তর বঙ্গোপসাগরে বাতাসের চাপ বেশি থাকায় এই ঝড় হচ্ছে বলে জানিয়েছে আবহাওয়া অধিদফতর।

দেশের উপকূলীয় এলাকা এবং সমুদ্র বন্দরগুলোর ওপর দিয়ে ঝড়ো হাওয়া বয়ে যেতে পারে বলে আগেই পূর্বাভাস দিয়েছিল আবহাওয়া অধিদফতর। ঈদের দিন অর্থাৎ ২৫ মে থেকে গত তিন দিন ধরেই চার সমুদ্র বন্দরে দেখাতে বলা হচ্ছে ৩ নম্বর স্থানীয় সতর্ক সংকেত। একইসঙ্গে উপকূলীয় এলাকা স্বাভাবিক জোয়ারের চেয়ে দুই থেকে চার ফুট অধিক উচ্চতার জলোচ্ছ্বাসে প্লাবিত হতে পারে বলেও আশঙ্কা করে আবহাওয়া অধিদফতর।

মঙ্গলবার রাত ২টার দিকে হঠাৎ শুরু হয় ঝড়। এরপর টানা প্রায় আধা ঘণ্টা তুমুল বেগে ঝড়ো বাতাস ও বজ্রসহ মুষলধারে বৃষ্টি শুরু হয়। এরপর কমে আসে ঝড়ের বেগ। এরপর বুধবার ভোর সোয়া ৬টার দিকে ফের আঘাত হানে কালবৈশাখী। মধ্যরাতের তুলনায় ভোরে বাতাসের গতিবেগ বেশি ছিল। আধা ঘণ্টার মতো চলে তাণ্ডব।

আগামী ২৪ ঘণ্টার পূর্বাভাসে বলা হয়েছে, রাজশাহী, রংপুর, ময়মনসিংহ ও সিলেট বিভাগের অনেক জায়গায় এবং চট্টগ্রাম ও ঢাকা বিভাগের কিছু কিছু জায়গায় এবং বরিশাল ও খুলনা বিভাগের দু'এক জায়গায় অস্থায়ীভাবে দমকা বা ঝড়ো হাওয়াসহ বৃষ্টি বা বজ্রসহ বৃষ্টি হতে পারে। সেইসঙ্গে ময়মনসিংহ ও সিলেট বিভাগের কোথাও কোথাও মাঝারি থেকে ভারী বৃষ্টিপাত হতে পারে।

পাঠকের মন্তব্য