ভাঙ্গনকৃত ক্ষতিগ্রস্ত বেঁড়িবাঁধ দ্রুত সংস্কারের আশ্বাস দিলেন প্রতিমন্ত্রী

ভাঙ্গনকৃত ক্ষতিগ্রস্ত বেঁড়িবাঁধ দ্রুত সংস্কারের আশ্বাস দিলেন প্রতিমন্ত্রী

ভাঙ্গনকৃত ক্ষতিগ্রস্ত বেঁড়িবাঁধ দ্রুত সংস্কারের আশ্বাস দিলেন প্রতিমন্ত্রী

পাইকগাছা আম্ফানে বিভিন্ন ভাঙ্গনকৃত ওয়াপদা বেঁড়িবাঁধ পরিদর্শনে পানি সম্পদ প্রতিমন্ত্রী জাহিদ ফারুক বলেছেন, উপকূলীয় অঞ্চলে নদী ভাঙ্গনে প্লাবিত এলাকা সহ ঝুঁকিপূর্ণ পাউবো'র বেঁড়িবাঁধ দ্রুত সংস্কার করে বাঁধের দু'পার্শ্বে লবন সহিষ্ণু গাছ লাগিয়ে সবুজ বেষ্টনী গড়ে তোলা হবে। ঘূর্ণিঝড় আম্ফান তান্ডবে লন্ডভন্ড সুন্দরবন সংলগ্ন কয়রা-পাইকগাছায় ভাঙ্গনকবলিত এলাকা ও ক্ষতিগ্রস্ত বেঁড়িবাঁধ পরিদর্শনের দু'দিনের সফরের শেষদিন শুক্রবার সকালে সোলাদানা ইউপি'র পাটকেলপোতা ভাঙ্গন কবলিত বেঁড়িবাঁধ পরিদর্শন কালে তিনি একথা বলেন। 

চিংড়ি ঘেরের জন্য ওয়াপদা কেটে বা ছিদ্র করে যত্রতত্র অবৈধ পাইপ বসিয়ে পোল্ডারে লবন পানি উত্তোলন বন্ধে স্থানীয়দের দাবীর পরিপ্রেক্ষিত মন্ত্রী সংশ্লিষ্টদের প্রয়োজনীয় পদক্ষেপ নেওয়ার কথা বলে বেঁড়িবাঁধ থেকে নিদৃষ্ট দূরে বিকল্প বাঁধ দিয়ে ঘের করার নির্দেশনা দিয়েছেন। এর পূর্বে প্রতিমন্ত্রী গড়ইখালী ইউপির শিবসা নদীর ভাঙ্গন কবলিত কুমখালীর (খুতখালী) বেঁড়িবাঁধ ও দেলুটির কালীনগরে, গেউয়াবুনিয়া বেঁড়িবাঁধ ভাঙ্গনে প্লাবিত এলাকা পরিদর্শন করে ক্ষতিগ্রস্তদের সাথে সংক্ষিপ্ত মতবিনিময় করেন। মতবিনিময়কালে স্থানীয় এমপি'র দাবী-দাওয়া প্রেক্ষিতে প্রতিমন্ত্রী বঙ্গবন্ধু কণ্যা প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা'র নির্দেশের কথা উল্লেখ করে বলেন, এ অঞ্চলের মানুষের নিরাপদে বসবাসের জন্য অক্টোবর মাস থেকে টেঁকসই ও মজবুত বেঁড়িবাঁধের কাজ শুরু হবে বলে ঘোষনা দেন। 

মন্ত্রীর সফর সঙ্গীদের মধ্যে এসময় উপস্থিত ছিলেন খুলনা-৬ (পাইকগাছা-কয়রা) এমপি আলহাজ্ব মোঃ আক্তারুজ্জামান বাবু, পানি উন্নয়ন বোর্ডের নির্বাহী প্রকৌশলী পলাশ কুমার ব্যানার্জী, স্থানীয়দের মধ্যে উপজেলা আওয়ামী লীগের সভাপতি আনোয়ার ইকবাল মন্টু, সহ-সভাপতি সমীরণ কুমার সাধু, জেলা পরিষদ সদস্য আঃ মান্নান গাজী, পৌর মেয়র সেলিম জাহাঙ্গীর, ইউপি চেয়ারম্যান রিপন কুমার মন্ডল, পঞ্চানন বিশ্বাস, তপন কুমার বাইন, স্নেহেন্দু বিকাশ, এসএম শাহাবুদ্দীন শাহিন, ইউনিয়ন যুবলীগ সভাপতি সায়েদ আলী মোড়ল কালাই, ইউপি সদস্য বিএম আরফিন সিদ্দিকী, রাজেশ মন্ডল, রবি গাজী, যুবলীগ নেতা এমএ আজিজুূল হাকিম, আকরামুল ইসলাম সহ বিভিন্ন শ্রেনী-পেশার মানুষ। 

এর পূর্বে তিনি দেলুটির কালিনগরসহ বিভিন্ন ভাঙ্গনকৃত বেঁড়িবাঁধ পরিদর্শন করেন। এসময়ে উপস্থিত ছিলেন, উপজেলা চেয়ারম্যান গাজী মোহাম্মদ আলী, পৌরমেয়র সেলিম জাহাঙ্গীর, ইউনিয়ান সাধারণ সম্পাদক রাম টিকাদার, ইউপি সদস্য নিরাপদ দফাদার, রণধীর মন্ডল, সুপদ রায়, আশিষ হালদার, চম্পক বিশ্বাস, কিংশুক রায়, চঞ্চলা রাণী মন্ডল, ডালিম রায় সহ নানা শ্রেণী-পেশার মানুষ। অপরদিকে মন্ত্রী মহোদয়ের গড়ইখালী ইউপির কুমখালীতে শিবসা নদীর ভাঙনকবলিত বেঁড়িবাধ পরিদর্শনের সময় উপস্থিত ছিলেন ইউপি চেয়ারম্যন ও আ'লীগ নেতা রুহুল আমীন বিশ্বাস, ইউনিয়ন আ'লীগ সম্পাদক এসএম আয়ুব আলী, প্যানেল চেয়ারম্যন আঃ ছালাম কেরু, ইউপি সদস্য শহিদুল ইসলাম,বিজয় রায়, বিএম শফি সহ এলাকার বহু নারী-পুরুষ।

পাঠকের মন্তব্য