ধর্ষনের আসামী ও ভিকটিমের সন্তানের ডিএনএ পরীক্ষার উদ্যোগ 

ধর্ষনের আসামী ও ভিকটিমের সন্তানের ডিএনএ পরীক্ষার উদ্যোগ 

ধর্ষনের আসামী ও ভিকটিমের সন্তানের ডিএনএ পরীক্ষার উদ্যোগ 

পাইকগাছায় ধর্ষনের অভিযোগে দায়ের করা মামলায় পুলিশ পিতৃত্ব পরিচয় নির্ণেয়ের জন্য আসামী ও ভিকটিমের সন্তানের "ডিএনএ" পরীক্ষার উদ্যোগ নিয়েছেন। রহস্য উদঘাটনে পুলিশের এ পদক্ষেপকে স্বাগত জানিয়েছেন বিভিন্ন শ্রেনী-পেশার মানুষ। থানায় মামলা ও পুলিশ সূত্রে জানা যায়,
২৮ মে রাতে পাটকেলঘাটার মোস্তফা সরদারের মেয়ে বাদী হয়ে নারী-শিশু নির্যাতন দমন আইনের সংশোধিত ৯(১) ধারায় পৌরসভার বাতিখালী গ্রামের আনোয়ার হোসেনের ছেলে শেখ তৌহিদুল (বাবু) বিরুদ্ধে থানায় এ মামলাটি করেছেন।

মামলার বাদী এক সন্তানের জননী (ভিকটিম) নাছিমা বেগম জানান, মোবাইলে পরিচয়ের মাধ্যমে প্রথমে বাবু'র সাথে পরিচয় এরপর প্রেমের সম্পর্ক গড়ে উঠলে একপর্যায়ে গত ৫-৭-২০১৯ সালে বিয়ে হয়। এর পর স্বামী-স্ত্রীর পরিচয় দিয়ে বিভিন্ন জায়গায় ঘুরাঘুরি ও বাবু'র বাড়ীতে সংসার করা কালে গত ২৩-৩-২০২০ তারিখে একটি পুত্র সন্তানের জন্ম হয়। ভিকটিমের অভিযোগ কারণে-অ-কারণে বাবু সন্তানকে অ-স্বীকার করে বিয়ের ঘটনাটি চাপা দিতে চাচ্ছেন। সর্বশেষ নাছিমা বৃহস্পতিবার পরিবার পরিজন নিয়ে বাবু'র বাড়ীতে উঠলে লোকজন তাড়িয়ে দিলে সে থানার স্বরণাপন্ন হয়। 

এ ঘটনায় ভিকটিম বাবু'র বিরুদ্ধে থানায় মামলা করেছেন, যার নং-২৮। এ বিষয়ে ওসি মোঃ এজাজ শফী এ প্রতিনিধিকে জানান, মামলার রহস্য উদঘাটনের জন্য আসামী ও ভিকটিমের সন্তানের ডিএনএ পরীক্ষার উদ্যোগ নেওয়া হয়েছে।

পাঠকের মন্তব্য