প্রধানমন্ত্রীর নির্দেশনা বাস্তবায়নে বদ্ধপরিকর সোনারগাঁয়ের ইউএনও

সোনারগাঁয়ের ইউএনও

সোনারগাঁয়ের ইউএনও

অদৃশ্য মরণঘাতক করোনাভাইরাস প্রাদুর্ভাব শুরু থেকেই নারায়নগঞ্জের সোনারগাঁ উপজেলায় সংক্রমণ রোধে দিন-রাত নিরলসভাবে কঠোর পরিশ্রম করে যাচ্ছেন ইউএনও মোঃ সাইদুল ইসলাম। করোনাভাইরাস প্রাদুর্ভাব শুরুর কয়েকমাস আগে ইউএনও হিসেবে এ উপজেলায় যোগদান করলেও তার কর্মকান্ডে দক্ষতার দৃষ্টান্ত স্থাপন করেছেন ইতোমধ্যে।

তাছাড়া প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা বলেছিলেন, একজন অফিসার চাইলেই একটি উপজেলার চিত্র পাল্টে দিতে পারেন। তাও প্রমাণ করতে সক্ষম হয়েছেন ইউএনও মোঃ সাইদুল ইসলাম।তাছাড়া সামাজিক দূরত্ব নিশ্চিতকরনের লক্ষ্যে  নিয়েছেন উপজেলার গ্রামগুলোতে নানা পদক্ষেপ। আবার করোনা আক্রান্ত লকডাউন করা পরিবার এলাকাগুলোতে জীবনের মায়া ভূলে নিজেকে বিলিয়ে দিয়েছেন।

প্রায় প্রতিদিনই উপজেলার যেখানেই প্রয়োজন প্রধানমন্ত্রীর মানবিক সহায়তা খাদ্যসামগ্রী সঠিকভাবে দুঃস্থ অসহায় কর্মহীনদের হাতে হাতে তুলে দিচ্ছেন।

পাশাপাশি উপজেলার কোনো অসহায় লোকজন নির্দিষ্ট নম্বরে কল দিলে নিজেই অথবা বিভিন্ন ইউনিয়নের স্বেচ্ছাসেবকদের মাধ্যেমে খাদ্য সহায়তা পোঁছে দিচ্ছেন তিনি। ভ্রাম্যমান বাজারের মাধ্যমে ঘরে ঘরে পৌছে দিয়েছেন মাছ, মাংস, সবজি, শিশুখাদ্যসহ নিত্য প্রয়োজনীয় সামগ্রী।

কিছুদিন পূর্বে ঘটে যাওয়া নিত্য প্রয়োজনীয় দ্রব্যে তাৎক্ষণিক ব্যবস্থা নিয়ে বাজার মনিটরিং করা, খাদ্য তাৎক্ষনিক ব্যবস্থা গ্রহণ, সরকার ঘোষিত নদী দখলকারীদের উচ্ছেদ অভিযান, অবৈধভাবে বালু উত্তোলন বন্ধসহ পজেটিভ কর্মকান্ডে উপজেলা জুড়ে বেশ সুনাম অর্জন করেছেন ইউএনও মোঃ সাইদুল ইসলাম।

কারও বাড়ি আগুনে পুড়ে বিধ্বস্ত হলেপরবর্তী সময়ে তাৎক্ষনিক সরেজমিনে  ক্ষতিগ্রস্থদের মাঝে বিতরণ করেছেন খাদ্য সামগ্রী,নগদ টাকা ও ঢেউটিন। ইউএনও মোঃ সাইদুল ইসলাম জানান, করোনাভাইরাস প্রার্দুভাবের শুরু থেকেই ভাইরাস সংক্রমণ রোধে রাত-দিন মাঠে কাজ করতে হচ্ছে।

বিশেষ করে গত এক মাস ধরে উপজেলার অসহায়, দুঃস্থ, কর্মহীন লোকজনদের মাঝে খাদ্য সহায়তা,সামাজিক দূরত্ব নিশ্চিতকরণ এবং বিভিন্ন কারণে ভ্রাম্যমাণ আদালত পরিচালনা চলমান রয়েছে।

সঙ্গে নিয়ে প্রধানমন্ত্রীর পক্ষ থেকে খাদ্য সহায়তা অসহায়দের মাঝে বিতরণ করা হচ্ছে। এছাড়া ভাসমান লোকজন, ক্ষুদ্র নৃ-গোষ্ঠি, বেদে ও মুচি সম্প্রদায়সহ লিস্টের বাইরে দুঃস্থদের খোঁজ নিয়ে বাড়ি বাড়ি খাদ্যসামগ্রী পৌঁছে দেওয়াসহ বিভিন্ন দিক নির্দেশনা দেয়া হচ্ছে।কেউ করোনায় আক্রান্ত হলে তাৎক্ষণিক তিনি সরেজমিনে গিয়ে প্রয়োজনীয় ব্যবস্থা গ্রহণ করেন।     
     
এছাড়া নিদিষ্ট নাম্বরে ফোন দিলে স্বেচ্ছাসেবকদের মাধ্যেমে খাদ্য সহাযতা পৌঁছে দেওয়া হচ্ছে। ত্রাণ ও দুর্যোগ মন্ত্রনালয় থেকে বরাদ্দকৃত বিভিন্ন উপহার ও খাদ্য সামগ্রী করোনা দুর্যোগে অসহায় দুঃস্থদের বাড়ি বাড়ি গিয়ে দ্রুত ও সঠিকভাবে বিতরন সহ নগদ সহায়তা তাদের হাতে হাতে তুলে দেওয়া হয়েছে।

পাঠকের মন্তব্য