এসএসসি রেজাল্ট : সাতক্ষীরার তালা উপজেলায় অবিস্মরণীয় সাফল্য 

সাতক্ষীরার তালা উপজেলায় অবিস্মরণীয় সাফল্য 

সাতক্ষীরার তালা উপজেলায় অবিস্মরণীয় সাফল্য 

যশোর শিক্ষা বোর্ড এর অধীনে সাতক্ষীরা জেলার তালা উপজেলায় ‍'এসএসসি পরীক্ষা-২০২০' এ অবিস্মরণীয় ফলাফল করেছে কয়েকটি প্রতিষ্ঠান। বেশ কয়েকটি প্রতিষ্ঠান একে অন্যকে ছাড়িয়ে গেছে ভিন্ন ভিন্ন ভাবে। কোনটি এ+ প্রাপ্তিতে এগিয়ে আবার কোনটি পাসের হারে এগিয়ে আবার কোনটি পাসের হারে এগিয়ে থাকলেও পরীক্ষার্থীর সংখ্যায় পিছিয়ে। যেকারণে একটির সাথে অন্যটির তুলনা করা দূরূহ ব্যপার।

এবছর সাতক্ষীরা জেলার তালা উপজেলায় মোট ৬৩টি মাধ্যমিক শিক্ষা প্রতিষ্ঠান থেকে ২৯৯৩ জন (অনুপস্থিত পরীক্ষার্থী বাদে) পরীক্ষার্থী পরীক্ষায় অংশগ্রহণ করে ৩১৬ জন ফেল করেছে। যেখানে পাশের হার ৮৮.৬৫%। এ+ পেয়েছে ১৮৭ জন। পাঠক আপনাদের সামনে তালা উপজেলার 'এসএসসি পরীক্ষা-২০২০' এ মাধ্যমিক বিদ্যালয়গুলোর ফলাফল নিম্নে বিস্তারিতভাবে উপস্থাপন করা হলো- 

সাতক্ষীরা জেলার তালা উপজেলার কুমিরা এম এল মাধ্যমিক বিদ্যালয় থেকে ১২৭ জন পরীক্ষায় অংশগ্রহণ করে ১১৮ জন উত্তীর্ণ হয়েছে। যেখানে এ+ প্রাপ্তির সংখ্যা ১৮। সাফল্যের হার ৯২.৯১%।

পাটকেলঘাটা আদর্শ উচ্চ বিদ্যালয় থেকে ১৭১ জন পরীক্ষায় অংশগ্রহণ করে ১৬০ জন উত্তীর্ণ হয়েছে। যেখানে এ+ প্রাপ্তির সংখ্যা ১৭। সাফল্যের হার ৯৩.৫৭%।

তালা বি দে সরকারি মাধ্যমিক বিদ্যালয় থেকে ৭৬ জন পরীক্ষায় অংশগ্রহণ করে ৭৪ জন উত্তীর্ণ হয়েছে। যেখানে এ+ প্রাপ্তির সংখ্যা ১৫। সাফল্যের হার ৯৭.৩৭%।

এস এ এ সরকারি বালিকা উচ্চ বিদ্যালয় থেকে ৬৮ জন পরীক্ষায় অংশগ্রহণ করে ৬৩ জন উত্তীর্ণ হয়েছে। যেখানে এ+ প্রাপ্তির সংখ্যা ১৪। সাফল্যের হার ৯২.৬৩%।

খলিষখালি মাধ্যমিক বিদ্যালয় থেকে ৬০ জন পরীক্ষায় অংশগ্রহণ করে ৫৭ জন উত্তীর্ণ হয়েছে। যেখানে এ+ প্রাপ্তির সংখ্যা ১১। সাফল্যের হার ৯৫.০০%।

ফলেয়া চাঁদকাটি অগ্রণী মাধ্যমিক বিদ্যালয় থেকে ৮৭ জন পরীক্ষায় অংশগ্রহণ করে ৮২ জন উত্তীর্ণ হয়েছে। যেখানে এ+ প্রাপ্তির সংখ্যা ১১। সাফল্যের হার ৯৪.২৫%।

শুভাষিণী মাধ্যমিক বিদ্যালয় থেকে ৭৪ জন পরীক্ষায় অংশগ্রহণ করে ৬৩ জন উত্তীর্ণ হয়েছে। যেখানে এ+ প্রাপ্তির সংখ্যা ৯। সাফল্যের হার ৮৫.১৪%।

নগরঘাটা কবি নজরুল বিদ্যাপীঠ থেকে ৭৬ জন পরীক্ষায় অংশগ্রহণ করে ৭৬ জন উত্তীর্ণ হয়েছে। যেখানে এ+ প্রাপ্তির সংখ্যা ৮। সাফল্যের হার ১০০%।

জালালপুর মাধ্যমিক বিদ্যালয় থেকে ৬৩ জন পরীক্ষায় অংশগ্রহণ করে ৫৭ জন উত্তীর্ণ হয়েছে। যেখানে এ+ প্রাপ্তির সংখ্যা ৬। সাফল্যের হার ৯০.৪৮%।

দাদপুর মাধ্যমিক বিদ্যালয় থেকে ৪২ জন পরীক্ষায় অংশগ্রহণ করে ৪১ জন উত্তীর্ণ হয়েছে। যেখানে এ+ প্রাপ্তির সংখ্যা ৫। সাফল্যের হার ৯৭.৬২%।

এইচ এম এস মাধ্যমিক বিদ্যালয় থেকে ১১৫ জন পরীক্ষায় অংশগ্রহণ করে ৯২ জন উত্তীর্ণ হয়েছে। যেখানে এ+ প্রাপ্তির সংখ্যা ৫। সাফল্যের হার ৮০.০০%।

কুমিরা পাইলট বালিকা মাধ্যমিক বিদ্যালয় থেকে ৪২ জন পরীক্ষায় অংশগ্রহণ করে ৪০ জন উত্তীর্ণ হয়েছে। যেখানে এ+ প্রাপ্তির সংখ্যা ৪। সাফল্যের হার ৯৫.২৪%।

গাছা আদর্শ উচ্চ বিদ্যালয় থেকে ৩১ জন পরীক্ষায় অংশগ্রহণ করে ২৮ জন উত্তীর্ণ হয়েছে। যেখানে এ+ প্রাপ্তির সংখ্যা ৪। সাফল্যের হার ৯০.৩২%।

বঙ্গবন্ধু পেশাভিত্তিক মাধ্যমিক বিদ্যালয় থেকে ২৬ জন পরীক্ষায় অংশগ্রহণ করে ২৬ জন উত্তীর্ণ হয়েছে। যেখানে এ+ প্রাপ্তির সংখ্যা ৩। সাফল্যের হার ১০০%।

আদর্শ মাধ্যমিক বালিকা বিদ্যালয় থেকে ৪১ জন পরীক্ষায় অংশগ্রহণ করে ৪০ জন উত্তীর্ণ হয়েছে। যেখানে এ+ প্রাপ্তির সংখ্যা ৩। সাফল্যের হার ৯৭.৫৬%।

সরুলিয়া মাধ্যমিক বিদ্যালয় থেকে ৩৭ জন পরীক্ষায় অংশগ্রহণ করে ৩৬ জন উত্তীর্ণ হয়েছে। যেখানে এ+ প্রাপ্তির সংখ্যা ৩। সাফল্যের হার ৯৭.৩০%।

সুজনশাহ মাধ্যমিক বালিকা বিদ্যালয় থেকে ২৫ জন পরীক্ষায় অংশগ্রহণ করে ২৪ জন উত্তীর্ণ হয়েছে। যেখানে এ+ প্রাপ্তির সংখ্যা ৩। সাফল্যের হার ৯৬.০০%।

ইসলামকাটি পি এন মাধ্যমিক বিদ্যালয় থেকে ৪১ জন পরীক্ষায় অংশগ্রহণ করে ৩৯ জন উত্তীর্ণ হয়েছে। যেখানে এ+ প্রাপ্তির সংখ্যা ৩। সাফল্যের হার ৯৫.১২%।

নোয়াপাড়া মাধ্যমিক বিদ্যালয় থেকে ৩০ জন পরীক্ষায় অংশগ্রহণ করে ২৮ জন উত্তীর্ণ হয়েছে। যেখানে এ+ প্রাপ্তির সংখ্যা ৩। সাফল্যের হার ৯৩.৩৩%।

মির্জাপুর মাধ্যমিক বিদ্যালয় থেকে ৬২ জন পরীক্ষায় অংশগ্রহণ করে ৫৭ জন উত্তীর্ণ হয়েছে। যেখানে এ+ প্রাপ্তির সংখ্যা ৩। সাফল্যের হার ৯১.৯৪%।

ফুলবাড়ি মাধ্যমিক বিদ্যালয় থেকে ৩৩ জন পরীক্ষায় অংশগ্রহণ করে ৩০ জন উত্তীর্ণ হয়েছে। যেখানে এ+ প্রাপ্তির সংখ্যা ৩। সাফল্যের হার ৯০.৯১%।

খলিষখালি শৈবা বালিকা বিদ্যালয় থেকে ২৯ জন পরীক্ষায় অংশগ্রহণ করে ২৬ জন উত্তীর্ণ হয়েছে। যেখানে এ+ প্রাপ্তির সংখ্যা ৩। সাফল্যের হার ৮৯.৬৬%।

খলিষখালী মাগুরা এস সি ইনস্টিটিউট থেকে ৭৬ জন পরীক্ষায় অংশগ্রহণ করে ৬৮ জন উত্তীর্ণ হয়েছে। যেখানে এ+ প্রাপ্তির সংখ্যা ৩। সাফল্যের হার ৮৯.৪৭%।

ঘোনা পল্লী মঙ্গল মাধ্যমিক বিদ্যালয় থেকে ৫০ জন পরীক্ষায় অংশগ্রহণ করে ৪৪ জন উত্তীর্ণ হয়েছে। যেখানে এ+ প্রাপ্তির সংখ্যা ৩। সাফল্যের হার ৮৮.০০%।

বারাত মনোহরপুর মাধ্যমিক বিদ্যালয় থেকে ৫০ জন পরীক্ষায় অংশগ্রহণ করে ৪৩ জন উত্তীর্ণ হয়েছে। যেখানে এ+ প্রাপ্তির সংখ্যা ৩। সাফল্যের হার ৮৬.০০%।

প্রগতি মাধ্যমিক বিদ্যালয় থেকে ৪৩ জন পরীক্ষায় অংশগ্রহণ করে ৩৫ জন উত্তীর্ণ হয়েছে। যেখানে এ+ প্রাপ্তির সংখ্যা ৩। সাফল্যের হার ৮১.৪০%।

মোহন্দী প্রগতি মাধ্যমিক বিদ্যালয় থেকে ৪৪ জন পরীক্ষায় অংশগ্রহণ করে ৪১ জন উত্তীর্ণ হয়েছে। যেখানে এ+ প্রাপ্তির সংখ্যা ২। সাফল্যের হার ৯৩.১৮%।

জাগরণী মাধ্যমিক বিদ্যালয় থেকে ৬০ জন পরীক্ষায় অংশগ্রহণ করে ৫৪ জন উত্তীর্ণ হয়েছে। যেখানে এ+ প্রাপ্তির সংখ্যা ২। সাফল্যের হার ৯০.০০%।

শহীদ কামেল মডেল মাধ্যমিক বিদ্যালয় থেকে ১৩৯ জন পরীক্ষায় অংশগ্রহণ করে ১২২ জন উত্তীর্ণ হয়েছে। যেখানে এ+ প্রাপ্তির সংখ্যা ২। সাফল্যের হার ৮৭.৭৭%।

দলুয়া মাধ্যমিক বিদ্যায়ল থেকে ৫৪ জন পরীক্ষায় অংশগ্রহণ করে ৪৫ জন উত্তীর্ণ হয়েছে। যেখানে এ+ প্রাপ্তির সংখ্যা ২। সাফল্যের হার ৮৩.৩৩%।

কে এস ডি মাধ্যমিক বালিকা বিদ্যালয় থেকে ২৭ জন পরীক্ষায় অংশগ্রহণ করে ২২ জন উত্তীর্ণ হয়েছে। যেখানে এ+ প্রাপ্তির সংখ্যা ২। সাফল্যের হার ৮১.৪৮%।

রাজাপুর বি আর  মাধ্যমিক বিদ্যালয় থেকে ৩০ জন পরীক্ষায় অংশগ্রহণ করে ৩০ জন উত্তীর্ণ হয়েছে। যেখানে এ+ প্রাপ্তির সংখ্যা ১। সাফল্যের হার ১০০%।

সমকাল মাধ্যমিক বিদ্যালয় থেকে ৫৪ জন পরীক্ষায় অংশগ্রহণ করে ৫৩ জন উত্তীর্ণ হয়েছে। যেখানে এ+ প্রাপ্তির সংখ্যা ১। সাফল্যের হার ৯৮.১৫%।

তেরছি আদর্শ উচ্চ বিদ্যালয় থেকে ৫১ জন পরীক্ষায় অংশগ্রহণ করে ৪৮ জন উত্তীর্ণ হয়েছে। যেখানে এ+ প্রাপ্তির সংখ্যা ১। সাফল্যের হার ৯৪.১২%।

সেনেরগাতি মাধ্যমিক বালিকা বিদ্যালয় থেকে ৩৩ জন পরীক্ষায় অংশগ্রহণ করে ৩০ জন উত্তীর্ণ হয়েছে। যেখানে এ+ প্রাপ্তির সংখ্যা ১। সাফল্যের হার ৯০.৯১%।

মাগুরা বালিকা উচ্চ বিদ্যালয় থেকে ৩৯ জন পরীক্ষায় অংশগ্রহণ করে ৩৫ জন উত্তীর্ণ হয়েছে। যেখানে এ+ প্রাপ্তির সংখ্যা ১। সাফল্যের হার ৮৯.৭৪%।

আমিরুন্নেছা মাধ্যমিক বিদ্যালয় থেকে ৩৭ জন পরীক্ষায় অংশগ্রহণ করে ৩৩ জন উত্তীর্ণ হয়েছে। যেখানে এ+ প্রাপ্তির সংখ্যা ১। সাফল্যের হার ৮৯.১৯%।

মাদরা অগ্রণী মাধ্যমিক বিদ্যালয় থেকে ৩৯ জন পরীক্ষায় অংশগ্রহণ করে ৩৪ জন উত্তীর্ণ হয়েছে। যেখানে এ+ প্রাপ্তির সংখ্যা ১। সাফল্যের হার ৮৭.১৮%।

জে এন এ পল্লী মঙ্গল মাধ্যমিক বিদ্যালয় থেকে ৫৬ জন পরীক্ষায় অংশগ্রহণ করে ৪৮ জন উত্তীর্ণ হয়েছে। যেখানে এ+ প্রাপ্তির সংখ্যা ১। সাফল্যের হার ৮৫.৭১%।

সৈয়দ দিদার বখত বালিকা মাধ্যমিক বিদ্যালয় থেকে ২০ জন পরীক্ষায় অংশগ্রহণ করে ১৭ জন উত্তীর্ণ হয়েছে। যেখানে এ+ প্রাপ্তির সংখ্যা ১। সাফল্যের হার ৮৫.০০%।

খলিল নগর ইউনিয়ন মাধ্যমিক বিদ্যালয় থেকে ৮৮ জন পরীক্ষায় অংশগ্রহণ করে ৭১ জন উত্তীর্ণ হয়েছে। যেখানে এ+ প্রাপ্তির সংখ্যা ১। সাফল্যের হার ৮০.৬৮%।

ধানদিয়া মাধ্যমিক বিদ্যালয় থেকে ২৪ জন পরীক্ষায় অংশগ্রহণ করে ১৯ জন উত্তীর্ণ হয়েছে। যেখানে এ+ প্রাপ্তির সংখ্যা ১। সাফল্যের হার ৭৯.১৭%।

ইসলামকাটি মাধ্যমিক বালিকা বিদ্যালয় থেকে ১৩ জন পরীক্ষায় অংশগ্রহণ করে ১৩ জন উত্তীর্ণ হয়েছে। সাফল্যের হার ১০০%।

কাশিপুর মাধ্যমিক বিদ্যালয় থেকে ৫৮ জন পরীক্ষায় অংশগ্রহণ করে ৫৬ জন উত্তীর্ণ হয়েছে। সাফল্যের হার ৯৬.৫৫%।

সোনার বাঙলা মাধ্যমিক বিদ্যালয় থেকে ৩৬ জন পরীক্ষায় অংশগ্রহণ করে ৩৪ জন উত্তীর্ণ হয়েছে। সাফল্যের হার ৯৪.৪৪%।

খলিল নগর ইউনিয়ন বালিকা মাধ্যমিক বিদ্যালয় থেকে ১৫ জন পরীক্ষায় অংশগ্রহণ করে ১৪ জন উত্তীর্ণ হয়েছে।  সাফল্যের হার ৯৩.৩৩%।

জে সি এস মাধ্যমিক বিদ্যালয় থেকে ৪৩ জন পরীক্ষায় অংশগ্রহণ করে ৪০ জন উত্তীর্ণ হয়েছে। সাফল্যের হার ৯৩.০২%।

ঘোষনগর গঙ্গারামপুর বালিকা মাধ্যমিক বিদ্যালয় থেকে ১৪ জন পরীক্ষায় অংশগ্রহণ করে ১৩ জন উত্তীর্ণ হয়েছে। সাফল্যের হার ৯২.৮৬%।

এ জে ডি পি মাধ্যমিক বালিকা বিদ্যালয় থেকে ২৩ জন পরীক্ষায় অংশগ্রহণ করে ২১ জন উত্তীর্ণ হয়েছে। সাফল্যের হার ৯১.৩০%।

এ জে এইচ মাধ্যমিক বালিকা বিদ্যালয় থেকে ৩৩ জন পরীক্ষায় অংশগ্রহণ করে ৩০ জন উত্তীর্ণ হয়েছে। সাফল্যের হার ৯০.৯১%।

শতদল মাধ্যমিক বিদ্যালয় থেকে ৩২ জন পরীক্ষায় অংশগ্রহণ করে ২৯ জন উত্তীর্ণ হয়েছে। সাফল্যের হার ৯০.৬২%।

ডুমুরিয়া মাধ্যমিক বিদ্যালয় থেকে ১৯ জন পরীক্ষায় অংশগ্রহণ করে ১৭ জন উত্তীর্ণ হয়েছে। সাফল্যের হার ৮৯.৪৭%।

নাঙলা আদর্শ মাধ্যমিক বিদ্যালয় থেকে ২৬ জন পরীক্ষায় অংশগ্রহণ করে ২৩ জন উত্তীর্ণ হয়েছে। সাফল্যের হার ৮৮.৪৬%।

রথখোলা মাধ্যমিক বিদ্যালয় থেকে ৪৩ জন পরীক্ষায় অংশগ্রহণ করে ৩৭ জন উত্তীর্ণ হয়েছে। সাফল্যের হার ৮৬.০৫%।

শাহাপুর সিরাজদ্দিন গাজী স্মৃতি মাধ্যমিক বিদ্যালয় থেকে ২৭ জন পরীক্ষায় অংশগ্রহণ করে ২৩ জন উত্তীর্ণ হয়েছে। সাফল্যের হার ৮৫.১৯%

কৃষ্ণকাটি মাধ্যমিক বিদ্যালয় থেকে ৪৪ জন পরীক্ষায় অংশগ্রহণ করে ৩৬ জন উত্তীর্ণ হয়েছে। সাফল্যের হার ৮১.৮২%।

শাহাজাতপুর ইউসুফ স্মৃতি মাধ্যমিক বিদ্যালয় থেকে ৪১ জন পরীক্ষায় অংশগ্রহণ করে ৩৩ জন উত্তীর্ণ হয়েছে। সাফল্যের হার ৮০.৪৯%।

কপোতাক্ষ মাধ্যমিক বিদ্যালয় থেকে ২৮ জন পরীক্ষায় অংশগ্রহণ করে ২২ জন উত্তীর্ণ হয়েছে। সাফল্যের হার ৭৮.৫৭%।

কলাগাছী সম্মিলনী মাধ্যমিক বিদ্যালয় থেকে ৪৪ জন পরীক্ষায় অংশগ্রহণ করে ৩২ জন উত্তীর্ণ হয়েছে। সাফল্যের হার ৮৮.৭২.৭৩%।

পার মাদরা পল্লী শ্রী মাধ্যমিক বিদ্যালয় থেকে ৩১ জন পরীক্ষায় অংশগ্রহণ করে ২২ জন উত্তীর্ণ হয়েছে। সাফল্যের হার ৭০.৯৭%।

পল্লী স্মৃতি বালিকা উচ্চ বিদ্যালয় থেকে ১৩ জন পরীক্ষায় অংশগ্রহণ করে ৯ জন উত্তীর্ণ হয়েছে। সাফল্যের হার ৬৯.২৩%।

উদয়ন মাধ্যমিক বিদ্যালয় থেকে ৮ জন পরীক্ষায় অংশগ্রহণ করে ৫ জন উত্তীর্ণ হয়েছে। সাফল্যের হার ৬২.৫০%।

তালা পাবলিক মাধ্যমিক বিদ্যালয় থেকে ৩২ জন পরীক্ষায় অংশগ্রহণ করে ১৯ জন উত্তীর্ণ হয়েছে। সাফল্যের হার ৫৯.৩৮%।

পাঠকের মন্তব্য