মরণব্যাধী করোনা ভাইরাসে সংক্রমিত দেশের ৯ মন্ত্রী-এমপি 

মরণব্যাধী করোনায় সংক্রমিত দেশের ৯ মন্ত্রী-এমপি 

মরণব্যাধী করোনায় সংক্রমিত দেশের ৯ মন্ত্রী-এমপি 

দেশে মরণব্যাধী করোনাভাইরাসের সংক্রমণ প্রতিনিয়তই বেড়ে চলেছে। ভাইরাসটির ছোবল থেকে রক্ষা পাচ্ছেন না ভিআইপিরাও। ইতোমধ্যে দুই মন্ত্রী ও সাত সংসদ সদস্য এবং সাবেক স্বাস্থ্যমন্ত্রী মোহাম্মদ নাসিম করোনায় সংক্রমিত হয়েছেন। সবাই ক্ষমতাসীন আওয়ামী লীগের সদস্য। এদের মধ্যে দুই জন ইতোমধ্যেই সুস্থ হয়েছেন।

সর্বশেষ আজ শুক্রবার মুক্তিযুদ্ধবিষয়ক মন্ত্রী আ ক ম মোজাম্মেল হকের শরীরে মরণব্যাধী এই ভাইরাসটি শনাক্ত করা হয়েছে। একই সঙ্গে তার স্ত্রী লায়লা আরজুমান্দ বানু এবং মন্ত্রীর একান্ত সচিব (পিএস) হাবিবুর রহমানেরও কোভিড-১৯ রিপোর্ট পজেটিভ এসেছে।

এ বিষয়ে মুক্তিযুদ্ধবিষয়ক মন্ত্রণালয়ের সিনিয়র তথ্য কর্মকর্তা সুফি আব্দুল্লাহিল মারুফ বলেন, করোনার উপসর্গ দেখা দেয়ায় গতকাল বৃহস্পতিবার মন্ত্রীর নমুনা পরীক্ষা করা হয়। আজ রিপোর্ট দিলে ফলাফল পজেটিভ আসে। বর্তমানে চিকিৎসকের পরামর্শ অনুযায়ী নিজ বাসাতেই চিকিৎসা নিচ্ছেন।

করোনায় আক্রান্ত অন্য মন্ত্রী হলেন- পার্বত্য চট্টগ্রাম বিষয়ক মন্ত্রণালয়ের মন্ত্রী বীর বাহাদুর উশৈসিং। গত ৬ জুন তার শরীরে মরণব্যাধী এই ভাইরাসটি শনাক্ত হয়। বর্তমানে রাজধানী ঢাকার সম্মিলিত সামরিক হাসপাতালে (সিএমএইচ) তার চিকিৎসা চলছে।

করোনায় আক্রান্ত সাত সংসদ সদস্য হলেন-

যশোর-৪ (বাঘারপাড়া-অভয়নগর) আসনের সংসদ সদস্য রণজিত কুমার রায়, চট্টগ্রাম-৮ আসনের এমপি মোছলেম উদ্দিন, চট্টগ্রাম-১৬ (বাঁশখালী) আসনের এমপি মো. মোস্তাফিজুর রহমান, জামালপুর-২ আসনের এমপি ফরিদুল হক খান দুলাল, চট্টগ্রাম-৬ আসনের এমপি এ বি এম ফজলে করিম চৌধুরী, ব্রাহ্মণবাড়িয়া-৫ আসনের এমপি মোহাম্মদ এবাদুল করিম বুলবুল ও নওগাঁ-২ আসনের এমপি শহীদুজ্জামান সরকার।

এদের মধ্যে ইতোমধ্যে শহীদুজ্জামান সরকার ও এবিএম ফজলে করিম চৌধুরী সুস্থ হয়ে গেছেন। এ ছাড়া ব্যক্তিগত সহকারীর করোনা রিপোর্ট পজেটিভ আসায় চিকিৎসকের পরামর্শে বর্তমানে আইসোলেশনে আছেন বাগেরহাট-২ আসনের সংসদ সদস্য শেখ সারহান নাসের তন্ময়।

পাঠকের মন্তব্য