ক্ষুদ্র ও মাঝারি শিল্পে প্রণোদনার সুষম বন্টন দাবি ব্যবসায়ীদের

ক্ষুদ্র ও মাঝারি শিল্পে প্রণোদনার সুষম বন্টন দাবি ব্যবসায়ীদের

ক্ষুদ্র ও মাঝারি শিল্পে প্রণোদনার সুষম বন্টন দাবি ব্যবসায়ীদের

কোভিড-নাইনটিনে অর্থনৈতিক সংকট এবং বাংলাদেশের এসএমই খাত নিয়ে এক অনলাইন সংলাপের আয়োজন করে রিসারজেন্ট বাংলাদেশ। আলোচনায়  উঠে আসে আগামী এক বছর দেশে বেসরকারি খাতের বিনিয়োগ সাড়ে ১২ শতাংশ থেকে দ্বিগুণে নিতে হলে ১৪ ট্রিলিয়ন অর্থের প্রয়োজন হবে।

করোনার ধকল কাটাতে ক্ষুদ্র ও মাঝারি শিল্পের জন্য ২০ হাজার কোটি টাকার প্রণোদনা সুষম বন্টনের দাবি জানিয়েছেন উদ্যোক্তারা। বিষয়টি মন্ত্রণালয়ের মাথায় আছে জানিয়ে শিল্পমন্ত্রী নুরুল মজিদ মাহমুদ হুমায়ুন বলেন, প্রণোদনা বাস্তবায়নে জেলাভিত্তিক নজরদারি করবে মন্ত্রণালয়। এখানে মধ্যস্বত্ত্বভোগীরা যাতে সুযোগ না নিতে পারে সেদিকটাও খেয়াল রাখা হবে।

মন্ত্রী আরও বলেন দেশের অর্থনীতির মূল চালিকা শক্তি ক্ষুদ্র ও মাঝারি শিল্প বা এসএমই খাত। একে বাঁচিয়ে রাখতে সরকার প্রয়োজনীয় উদ্যাগ নেবে বলেও আশ্বস্ত করেন শিল্পমন্ত্রী। পাশাপাশি চেষ্টা চলছে নতুন কর্মসংস্থান সৃষ্টি করার।

আলোচনায় অংশ নিয়ে উদ্যোক্তারা বলেন, ক্ষুদ্র ও মাঝারি শিল্প বাঁচাতে অষ্টম পঞ্চবার্ষিকের পাশাপাশি দীর্ঘমেয়াদি পরিকল্পনায় গুরুত্ব দিতে হবে। সরকারের দেয়া প্রণোদনা যথাযথ বণ্টন ও সহজে ব্যাংঋণ পাওয়ার বিষয়টি নিশ্চিত করাকেও বড় চ্যালেঞ্জ বলে মনে করেন তারা।  

পাঠকের মন্তব্য