পাইকগাছা বাজার জোয়ারের পানিতে প্লাবিত : জরুরী হস্তক্ষেপ কামনা 

পাইকগাছা বাজার জোয়ারের পানিতে প্লাবিত : জরুরী হস্তক্ষেপ কামনা 

পাইকগাছা বাজার জোয়ারের পানিতে প্লাবিত : জরুরী হস্তক্ষেপ কামনা 

পাইকগাছা বাজার অমাবস্যায় নদীর জোয়ারের পানিতে জলমগ্ন। পৌরসদরের কোল ঘেষে প্রবাহিত শিবসা নদী। নদীটি পলি জমে মৃত্যুর দ্বারপ্রান্তে পৌঁছিয়েছে। পানি নিষ্কাশনের কোনো উপায় নেই। সামান্য জলোচ্ছ্বাস বা জোয়ারের পানি বাড়লেই তলিয়ে যাচ্ছে পৌর সদর। ব্যবসায়ীমহল সহ এলাকাবাসী প্রতিকারের দাবি জানিয়েছেন। দাবি জানিয়েছেন  দ্রুত শিবসা নদী খননের জন্য।

খুলনা জেলার প্রথম পৌরসভা পাইকগাছা। পৌরসভাটি শিবসা নদীর উপকূলে অবস্থিত। যার ৩ দিকে রয়েছে শিবসা নদী আর একদিকে স্থলভাগ। মাত্র কয়েক বছর পূর্বে এ নদী দিয়ে লঞ্চ, স্টিমারে করে দক্ষিণ এলাকার লোকজন খুলনা জেলা সদরে যাতায়াত করতো। পাইকগাছা বাজারের পাশেই ছিল যাত্রী ছাউনী বিআইডব্লিউটিএ ঘাট। প্রতিদিন কয়েকটি লঞ্চ ভিড়তো ঘাটে। লোকজন উঠা-নামাসহ ব্যবসায়ীরা বিভিন্ন পণ্য উঠা-নামা করতো। পৌরসভার তিন দিকে ছিল একাধীক খেয়াঘাট। হাজার হাজার যাত্রী পারাপার হতো খেয়া'র নৌকায়। কিন্তু কালের বিবর্তনে নদীটি পলি জমে একেবারেই ভরাট হতে চলেছে। 

নদীর তলদেশের তুলনায় পৌর সদর, নদীর দক্ষিণ পাশের সোলাদানা, লস্কর ইউনিয়নের স্থল ভূমি অনেক নিচু হয়ে গেছে। ফলে পৌর সদরসহ এলাকার পানি নিষ্কাশন ব্যবস্থা হারিয়ে ফেলেছে। নদীতে সামান্য জলোচ্ছ্বাস বা জোয়ারের পানিতে প্লাবিত হলে বাজার তলিয়ে যায়। আর বৃষ্টি হলে তো কথাই নেই। পৌর সদরসহ আশ-পাশের এলাকা অধিকাংশ সময় তলিয়ে থাকে। 

পৌর বাজার অমাবস্যার জোয়ারের পানিতে প্লাবিত হচ্ছে।পৌর বাজারের কাঁকড়া মার্কেট, কাঁচা ববাজার, সোনা পট্টি, সেলুনী পট্টি, মুক্তিযোদ্ধা মার্কেটসহ পাকা সড়কের উপর দিয়ে জোয়ারের পানি প্লাবিত হওয়ায় চরম দুর্ভোগ পোহাতে হচ্ছে সেখানকার ক্রেতা-বিক্রেতা এবং জনসাধারণের। বিভিন্ন ধরণের পানিবাহিত রোগের ভীতি কাজ করছে। নদী খননসহ পরিকল্পিত ড্রেনেজ ব্যবস্থা করে এ জনদুর্ভোগ লাঘবে  সংশ্লিষ্ঠ কর্তৃপক্ষের জরুরী হস্তক্ষেপ কামনা করেছেন এলাকাবাসী।

পাঠকের মন্তব্য