ফুলবাড়িয়ায় শিক্ষার্থীদের মাঝে জনপ্রিয় হচ্ছে অনলাইন ক্লাশ

ফুলবাড়িয়ায় শিক্ষার্থীদের মাঝে জনপ্রিয় হচ্ছে অনলাইন ক্লাশ

ফুলবাড়িয়ায় শিক্ষার্থীদের মাঝে জনপ্রিয় হচ্ছে অনলাইন ক্লাশ

ময়মনসিংহের ফুলবাড়িয়া উপজেলায় মহামারী করোনা ভাইরাসের কারণে শিক্ষা প্রতিষ্ঠান বন্ধ থাকায় ঘরবন্দি কোমলমতি শিক্ষার্থীরা। রুটিন মাফিক পাঠদান ব্যহত হচ্ছে। শিক্ষার মূল ধারায় দরে রাখার লক্ষে ফুলবাড়িয়া চালু হয়েছে অনলাইন ক্লাশ। এতে কিছুটা হলেও স্বস্তি পাচ্ছেন অভিভাবকরা। উপজেলা মাধ্যমিক শিক্ষা অফিস ও আইসিটি শিক্ষক ফোরামের যৌথ উদ্যোগে গত ১৭ জুন থেকে এ কার্যক্রম উদ্বোধন করেন উপজেলা নির্বাহি অফিসার আশরাফুল ছিদ্দিক।

উপজেলা একাডেমিক সুপারভাইজার মোহসিনা বেগম বলেন, করোনা ভাইরাস চলাকালীন শিক্ষা প্রতিষ্ঠান বন্ধের মধ্যে শিক্ষার্থীদের লেখাপড়ায় চালু রাখতে এ অন লাইন ক্লাশ কর্মসূচী।

ফুলবাড়িয়া উপজেলা শিক্ষা প্রতিষ্ঠানের নাম ফেইজবুক আইডি খোলে শিক্ষকগন ক্লাশ ধারন করে আইডিতে পোস্ট দেন। ইতিমধ্যে এ কার্যক্রম উপজেলার সর্বত্র সারা ফেলেছে। তবে প্রযুক্তি সহজ লভ্যতা না থাকায় দরিদ্র পরিবারের শিক্ষার্থীদের এ কার্যক্রমে যুক্ত করা সম্ভব হচ্ছে না।

জানা যায়, করোনার কারণে সরকার দেশের সকল শিক্ষা প্রতিষ্ঠান বন্ধ ঘোষণা করায় শিক্ষার্থীরা ঘরবন্দি হয়ে পড়ে। এতে দেশের শিক্ষা কার্যক্রম মারাত্মকভাবে ব্যহত হয়। এ অবস্থায় সরকার বিটিভি, বিটিভি ওয়াল্ড ও সংসদ টেলিভিশনে অনলাইণশিক্ষা কার্যক্রম চালু হয়েছে।। এতে অনুপ্রানিত হয়ে ফুলবাড়িয়া উপজেলা মাধ্যমিক শিক্ষা অফিস ও আইসিটি শিক্ষক ফোরাম যৌথ উদ্যোগে স্থানীয়ভাবে অনলাইন ক্লাশের পাঠদান কার্যক্রম শুরু করেন। ইতিমধ্যেই ফুলবাড়িয়া অন-লাইন ক্লাশ, ক্রিয়েটিব আই সি টি ট্রেনিং পেইজ শিক্ষার্থীদের মাঝে জনপ্রিয়তা লাভ করেছে।

ফুলবাড়িয়া আইসিটি শিক্ষক ফোরামে সম্পাদক মো: শামছুল হক বলেন উপজেলার যে সকল শিক্ষাপ্রতিষ্ঠানএখনও অন লাইন কার্যক্রম চালু করেনি তাদের কে চালু করার পরামর্শ প্রদান করা হচ্ছে। ফুলবাড়িয়া অন-লাইন ক্লাশের এডমিন আল-আমীন উচ্চ বিদ্যালয়ের আইসিটি শিক্ষক শাখাওয়াত হোসেন বলেন, করোনাভাইরাসের কারণে শিক্ষা প্রতিষ্ঠান বন্ধ থাকার কারনে শিক্ষার্থীদের লেখাপড়ায় আগ্রহ ধরে রাখার লক্ষে প্রথমে নিজের ফেইজবুক আইডিতে পোষ্ট করা হতো পরে উপজেলা মাধ্যমিক অফিসের নির্দেশনায় ফুলবাড়িয়া অন লাইন নামে পেইজ খোলা হয় যাতে উপজেলার আগ্রহী শিক্ষা প্রতিষ্ঠানের শ্রেষ্ঠ শিক্ষকদের পাঠদান পোষ্ট করতে পারে।

আল আমীন উচ্চ বিদ্যালয়ের প্রধান শিক্ষক মো: আব্দুল্লাহ আল ফারুক বলেন, আমার প্রতিষ্ঠানের শিক্ষার্থীদেরকে অন লাইন ক্লাশগুলো দেখার জন্য ম্যাসেস পাঠিয়েছি। এ বিষয়ে তদারকী করছি। নাম প্রকাশে অনিচ্ছুক এক অভিভাবক বলেন, কার্যক্রমটি ভালো। তবে অর্থনৈতিক কারণে সব পরিবারের শিশুদের পক্ষে অ্যানড্রয়েট মোবাইল, কম্পিউটার-ল্যাপটপ ব্যবহারের সুযোগ থাকে না। কিন্তু সব পরিবারে টেলিভিশন থাকে। তাই এ কার্যক্রমটি যদি ডিশলাইনে চালানো যেত তা হলে প্রায় সব শিক্ষার্থী পাঠ গ্রহনে সুযোগ পেত।

উপজেলা মাধ্যমিক শিক্ষাঅফিসার আবুল কালাম আজাদ বলেন করোনা ভাইরাস পরবর্তী সময়ে অনলাইন ক্লাশ চালা রাখার চেষ্ঠা অব্যহত থাকবে।

ইউএনও আশরাফুল ছিদ্দিক বলেন, করোণা ভাইরাসের বন্ধের মধ্যে ফুলবাড়িয়া সকল শিক্ষাপ্রতিষ্ঠানকে অনলাইন ক্লাশ চালু করার নির্দেশ প্রদান করা হয়েছে।

পাঠকের মন্তব্য