করোনা ভাইরাসে আক্রান্ত ৬৩ শতাংশ আনসারই সুস্থ 

করোনা ভাইরাসে আক্রান্ত ৬৩ শতাংশ আনসারই সুস্থ 

করোনা ভাইরাসে আক্রান্ত ৬৩ শতাংশ আনসারই সুস্থ 

মহামারির সংকটকালে দায়িত্ব পালন করতে গিয়ে ৬ আগস্ট রাত পর্যন্ত বাংলাদেশ আনসার ও গ্রাম প্রতিরক্ষা বাহিনীর করোনা আক্রান্তদের মধ্যে ৯ জন কর্মকর্তাসহ সুস্থ হয়েছেন ৬৫৫ জন। সুস্থতার হার প্রায় ৬৩ শতাংশ। এখন পর্যন্ত কর্মকর্তাসহ ১০৪৩ আনসার ও সদস্য আক্রান্ত হয়েছে।

বাহিনীটিতে সারাদেশের তুলনায় রাজধানী ঢাকায় আক্রান্তের সংখ্যা তুলনামূলক বেশি। ঢাকায় আক্রান্ত হয়েছেন ৫৩৩ জন এবং ঢাকার বাইরে আক্রান্ত হয়েছেন ৫১০ জন।

করোনার সংকটময় মুহূর্তে বিভিন্ন হাসপাতালে এবং সরকারি-বেসরকারি শিল্পপ্রতিষ্ঠানে দায়িত্ব পালন করতে গিয়ে প্রতিদিন করোনায় আক্রান্ত হচ্ছে বাহিনীর সদস্যরা। করোনায় সকল সদস্যকে পর্যাপ্ত নিরাপত্তা সামগ্রীসহ নিরাপদ দূরত্ব বজায় রেখে দায়িত্ব পালনের নির্দেশ দিয়েছেন বাহিনীর মহাপরিচালক মেজর জেনারেল কাজী শরীফ কায়কোবাদ।

৭ আগস্ট সকালে আনসার ও গ্রাম প্রতিরক্ষা বাহিনীর উপ-পরিচালক (যোগাযোগ) মেহেনাজ তাবাসসুম রেবিন বলেন, করোনাভাইরাস থেকে দেশের মানুষকে সচেতন করার লক্ষ্যে শুরু থেকে সাহসীকতার সঙ্গে কাজ করছে বাহিনীর সদস্যরা।

করোনাযুদ্ধে সম্মুখভাগে দায়িত্ব পালন করতে গিয়ে আক্রান্তের সংখ্যা যেমন প্রতিদিন বাড়ছে, তেমনি আক্রান্তদের মধ্যে থেকে অর্ধেকেরও বেশি সদস্য সুস্থ হয়ে কর্মস্থলে যোগদান করে সেবামুখী কার্যক্রম অব্যাহত রেখেছেন।

সুস্থ হয়েছেন কর্মকর্তা ৯ জন, ব্যাটালিয়ন আনসার ২০৭ জন, সাধারণ আনসার ৪০৬ জন, কর্মচারী ৫ জন, মহিলা আনসার ৩ জন, ভিডিপি সদস্য ৭ জন, উপজেলা আনসার কমান্ডার একজন এবং বিশেষ আনসার ৪ জন, হিল আনসার ৪ জন এবং উপেজেলা প্রশিক্ষক ৭ জন, উপজলা প্রশিক্ষকা ২ জন। এছাড়া ১৭৮ জন সদস্য বিভিন্ন হাসপাতালে চিকিৎসাধীন। বিভিন্ন কোয়ারেন্টাইনে আছেন ২০৩ জন।
৬ আগস্ট রাত পর্যন্ত করোনায় আক্রান্ত ১০৪৩ জনের মধ্যে রাজধানী ঢাকায় আক্রান্ত হয়েছেন ৫৩৩ জন এবং ঢাকার বাইরে আক্রান্ত ৫১০ জন। ঢাকা মহানগরে এবং ঢাকার বাইরে দায়িত্ব পালন করতে গিয়ে এ বাহিনীর ২২ জন কর্মকর্তা আক্রান্ত হন।

আইন-শৃঙ্খলা রক্ষার দায়িত্ব পালন করতে গিয়ে সারাদেশে ৩৯৭ জন ব্যাটালিয়ন আনসার আক্রান্ত হয়েছে। ঢাকা মহানগরসহ সারাদেশে আইন-শৃঙ্খলা রক্ষা ও চিকিৎসা সহায়তা করতে গিয়ে ৫৬৯ জন অঙ্গীভূত সাধারণ আনসার সদস্য আক্রান্ত হন এবং বাহিনীর সদর দফতরে বিভিন্ন পদবীর ১৭ জন সদস্য আক্রান্ত হন। এছাড়া সারাদেশে বিভিন্ন পদবীর সদস্য আক্রান্ত হয়েছেন। এ বাহিনীর ৭ জন সদস্য করোনায় প্রাণ হারিয়েছেন।

পাঠকের মন্তব্য