চিনের ভ্যাকসিনের পরীক্ষা নিয়ে সিদ্ধান্ত আগামী সপ্তাহে

মানবদেহে চিনের ভ্যাকসিনের পরীক্ষা নিয়ে সিদ্ধান্ত আগামী সপ্তাহে

মানবদেহে চিনের ভ্যাকসিনের পরীক্ষা নিয়ে সিদ্ধান্ত আগামী সপ্তাহে

চিনের কোম্পানির তৈরি ভ্যাকসিন প্রয়োগের পর সুফল পাওয়া গেলে তা স্বাস্থ্যকর্মীদের উপর পরীক্ষার অনুমতি দেওয়া হবে। গত ৪ আগস্ট একথা জানিয়েছিলেন স্বাস্থ্যসচিব মহম্মদ আবদুল মান্নান। এবার আগামী সপ্তাহে এই বিষয়ে চূড়ান্ত সিদ্ধান্ত নেওয়া হবে বলে জানালেন স্বাস্থ্যমন্ত্রী জাহিদ মালেক  (Zahid Maleque)।

বুধবার মন্ত্রিসভার ভারচুয়াল বৈঠকে এপ্রসঙ্গে তিনি বলেন, ‘চিনের তৈরি ভ্যাকসিনের পরীক্ষা এখানকার মানুষদের শরীরে করা হবে কিনা সেই বিষয়ে আগামী সপ্তাহে প্রধানমন্ত্রীর সঙ্গে আলোচনা করা হবে। তারপরই চূড়ান্ত সিদ্ধান্ত নেওয়া হবে। প্রধানমন্ত্রীর সঙ্গে আলোচনা করে ঠিক করা হবে চিনকে বাংলাদেশিদের উপর ওই পরীক্ষা করতে দেওয়া হবে কিনা। বৈঠকে ওই ভ্যাকসিন পরীক্ষার বিষয়ে অনুমোদন দেওয়া হলে অন্য বিষয়গুলিও খতিয়ে দেখা হবে। কতজন নাগরিকের শরীরে পরীক্ষা হবে তা জানার পাশাপাশি এর জন্য চিন আমাদের কত টাকা দেবে ও পরীক্ষা সফল হলে কী শর্তে ভ্যাকসিন দেবে তাও জেনে নেওয়া হবে।’

তিনি আরও বলেন, ‘ভ্যাকসিন তৈরির কাজে লিপ্ত কোম্পানিগুলি এখন থেকেই এগুলি সরবরাহের বিষয়ে বিভিন্ন দেশের সঙ্গে চুক্তি করছে। যারা আগে থেকে অ্যাভডান্স করছে তাদের ভ্যাকসিন দেওয়া হবে। এই বিষয়ে ইতিমধ্যেই বিভিন্ন কোম্পানির সঙ্গে আমাদের আলোচনা চলছে। প্রধানমন্ত্রীর সঙ্গে আলোচনার পরেই এবিষয়ে চূড়ান্ত সিদ্ধান্ত নেওয়া হবে।’
  
গত ৪ আগস্ট স্বাস্থ্যমন্ত্রণালয়ের একটি সংবাদ বৈঠকে স্বাস্থ্যসচিব বলেন, ‘চিনের একটি ওষুধ প্রস্তুতকারী সংস্থা করোনা ভ্যাকসিনের তৃতীয় পর্যায়ের পরীক্ষার আবেদন করেছে। সেটি আইসিডিডিআরবি (ICDDRB) -এর মাধ্যমে স্বাস্থ্য অধিদপ্তর হয়ে স্বাস্থ্য মন্ত্রণালয় এসেছে। এ বিষয়ে মঙ্গলবার আইসিডিডিআরবি প্রতিনিধিদের সঙ্গে মন্ত্রণালয়ে আমরা জরুরি বৈঠক করেছি। খোঁজখবর নিয়ে আমরা জেনেছি চিনের সিনোফার্ম ওষুধ কোম্পানিটি একটি বেসরকারি সংস্থা। এর সঙ্গে চিনা সরকারের কোনও যোগ নেই।

এই প্রতিষ্ঠানটির তৈরি ভ্যাকসিন ইতিপূর্বে চিনে প্রথম ও দ্বিতীয় ধাপে নিরীক্ষা চালিয়ে সফল হয়েছে। সেটা বিবেচনায় রেখে পরীক্ষা-নিরীক্ষা শেষে যদি তা সন্তোষজনক হয় তবে আমাদের দেশের স্বাস্থ্যকর্মীদের ওপর প্রয়োগের জন্য আইসিডিডিআরবির মাধ্যমে এই ভ্যাকসিনের অনুমোদন দেওয়া হবে।’

পাঠকের মন্তব্য