মেজর সিনহা হত্যা : প্রদীপের সম্পত্তি ক্রোকের নির্দেশ

মেজর সিনহা হত্যা : প্রদীপের সম্পত্তি ক্রোকের নির্দেশ

মেজর সিনহা হত্যা : প্রদীপের সম্পত্তি ক্রোকের নির্দেশ

অবসরপ্রাপ্ত মেজর সিনহা মোহাম্মদ রাশেদ খান হত্যা মামলার আসামী টেকনাফ থানার বরখাস্ত হওয়া ওসি প্রদীপ কুমার দাশ ও তার স্ত্রীর সম্পত্তি ক্রোক করার নির্দেশ দিয়েছে আদালত। এছাড়া প্রদীপ কুমারের জামিন আবেদনও নাকচ করা হয়েছে। আজ রোববার চট্টগ্রামের সিনিয়র স্পেশাল জজ ও মহানগর দায়রা জজ শেখ আশফাকুর রহমানের আদালত এই আদেশ দেয়।

মেজর সিনহা হত্যাকাণ্ডের পর ওসি প্রদীপ কুমারের নামে একের পর এক মামলা হয়। এতদিন যেসব ভুক্তভোগীরা চুপ করেছিলেন, ওই ঘটনার পর তাদের অনেকেই মুখ খুলেছেন, মামলা করেছেন। এর বাইরে দুর্নীতি দমন কমিশনের পক্ষ থেকেও প্রদীপ কুমার ও তার স্ত্রীর বিরুদ্ধে মামলা করা হয়। অবৈধ সম্পদ অর্জনের দায়ে এই মামলা করা হয় গত ২৩ আগস্ট।

মামলায় অভিযোগ আনা হয়েছে, প্রদীপ ও তার স্ত্রী মিলে জ্ঞাত আয় বহির্ভূত সম্পদ অর্জন করেছেন ৩ কোটি ৯৫ লাখ ৫ হাজার ৬৩৫ টাকা। এছাড়া সম্পদের তথ্য গোপন ও মানি লন্ডারিংয়ের অভিযোগ আনা হয়েছে প্রদীপ কুমারের বিরুদ্ধে। এই মামলার আরেক আসামী প্রদীপের স্ত্রী চুমকি এখনো পলাতক আছেন।

দুদকের আইনজীবী কাজী সানোয়ার আহমেদ লাভলু বলেন, মামলার আওতায় দুদকের পক্ষ থেকে বরখাস্ত হওয়া ওসি প্রদীপ কুমারের সম্পত্তি ক্রোকের আবেদন জানানো হয়েছিল। আদালত সেই আবেদন মঞ্জুর করেছে। এর ফলে মামলার এজাহারভুক্ত সম্পত্তি ক্রোকের ব্যাপারে আর কোনো বাধা থাকলো না।

৩১ জুলাই রাতে কক্সবাজার-টেকনাফ মেরিন ড্রাইভ সড়কের শামলাপুর চেকপোস্টে পুলিশের গুলিতে নিহত হন সিনহা রাশেদ। এ ঘটনায় ৫ অগাস্ট কক্সবাজারের হাকিম আদালতে হত্যা মামলা দায়ের করেন নিহতের বড় বোন শারমিন শাহরিয়া ফেরদৌস। মামলায় ওসি প্রদীপ, পরিদর্শক লিয়াকত ও নন্দদুলাল রক্ষিতসহ ৯ জনকে আসামি করা হয়। মূল এই মামলা ছাড়াও প্রদীপের বিরুদ্ধে আরো অনেক মামলা চলমান।

পাঠকের মন্তব্য