ফুলবাড়িয়ায় ইউপি সদস্যের বিরুদ্ধে মামলা প্রত্যাহার দাবি

ফুলবাড়িয়ায় ইউপি সদস্যের বিরুদ্ধে মামলা প্রত্যাহার দাবি

ফুলবাড়িয়ায় ইউপি সদস্যের বিরুদ্ধে মামলা প্রত্যাহার দাবি

ময়মনসিংহ জেলা ফুলবাড়িয়া উপজেলার ১৩ নং ভবানীপুর ইউনিয়ন পরিষদের ৫ নং ওয়ার্ডের মেম্বার গোলাম ফারুকের বিরুদ্ধে ষড়যন্ত্রমুলক মিথ্যা মামলা প্রত্যাহার ও কুচক্রিদের বিচারের আওতায় আনার দাবিতে মানববন্ধন অনুষ্ঠিত হয়েছে।মঙ্গলবার ইউনিয়নের মহেশপুর বাজারে এলাকাবাসীর ব্যানারে আয়োজিত মানববন্ধনে জনস্রোতের সৃষ্টি হয়। এতে বক্তব্য রাখেন, ১৩ নং ভবানীপুর ইউনিয়ন পরিষদ চেয়ারম্যান শাহীনূর মল্লিক জীবন, ইউনিয়ন আওয়ামী লীগের সর্বোচ্চ নেতা আলহাজ্ব আব্দুস ছালাম'সহ আওয়ামী লীগ ও তার অঙ্গ ও সহযোগী সংগঠনের বিভিন্ন পর্যায়ের নেতৃবৃন্দ| এছাড়াও বক্তব্য রাখেন, ভবানীপুর ইউনিয়নের সামাজিক, বিভিন্ন রাজনৈতিক, শিক্ষক, মসজিদের ঈমাম, দোকানদার'সহ আরো অনেকে|

মানববন্ধনে বক্তারা বলেন, এটি একটি মিথ্যা মামলা| যা সম্পুর্ণ ভিত্তিহীন| মামলার এজাহারে যা বলা হয়েছে, তা সম্পূর্ণই বানোয়াট, উদ্দেশ্যেমুলক যা কল্পনাতেও বিশ্বাসযোগ্য নয়|

শাহীনূর মল্লিক জীবন বলেন, এই মামলার পিছনে গভীর ষড়যন্ত্র লোকায়িত। গোলাম ফারুকের জনপ্রিয়তাকে প্রশ্নবিদ্ধ করার জন্যই মুলত এই মামলা,তিনি প্রশাসনের নিকট দাবি জানান, সঠিক তদন্তের মাধ্যমে আসল দোষীদের বিচারের আওতায় আনতে হবে|

"জনগণের উপস্থিতিই প্রমাণ করে এটি মিথ্যা মামলা" উল্লেখ করে আব্দুস ছালাম বলেন, এই মামলা টি হওয়া দরকার যিনি মামলা করেছেন তার বিরুদ্ধে। কারন তিনিইতো টাকা আত্মসাৎ করেছেন| কিন্তু হয়েছে উল্টো। এসময় তিনি সংশ্লিষ্ট কর্তৃপক্ষের নিকট সঠিক তদন্ত সাপেক্ষে আসল অপরাধীদের আইনের আওতায় এনে দৃষ্টান্তমূলক শাস্তির দাবি জানান। মানববন্ধনে অন্যান্য বক্তারা বলেন, গোলাম ফারুক একজন দক্ষ ও অভিজ্ঞ মেম্বার| তিনি নিঃসন্দেহে ভালো মানুষ| করোনা ভাইরাসের প্রাদুর্ভাবের সময় নিজের পুকুরের মাছ ধরে তার ওয়ার্ডের অসহায়দের খাবারের জন্য দিয়েছেন| তার বিরুদ্ধে মিথ্যা ও ষড়যন্ত্র করে পার পাওয়া যাবে না|

সরকারের নিকট দাবি করে তারা বলেন, সঠিক তদন্তের মাধ্যমে আসল দোষীদের বিচারের আওতায় আনতে হবে। 

পাঠকের মন্তব্য