নন্দীগ্রাম শেরপুর রাস্তার বেহাল দশা; সংস্কার করার দাবি

নন্দীগ্রাম শেরপুর রাস্তার বেহাল দশা; সংস্কার করার দাবি

নন্দীগ্রাম শেরপুর রাস্তার বেহাল দশা; সংস্কার করার দাবি

বগুড়া জেলার নন্দীগ্রাম টু-শেরপুর রাস্তাটি বেশ কিছুদিন হলে সংস্কার না করায় জন দূর্ভোগ চরমে উঠেছে যার কারনে রাস্তাটি সংস্কার করার জন্য জনগন দাবি তুলেছেন।জানা যায়,নন্দীগ্রাম-শেরপুর দীর্ঘ ২২ কিলোমিটার রাস্তাটি নন্দীগ্রাম ও শেরপুর দুই অংশে বিভক্ত।নন্দীগ্রাম অংশে কৈগাড়ি, রিধইল, সিংড়া খালাস, দোহার, সোহাগি পাড়া নামক স্থানে ছোট বড় অসংখ্য গর্তের সৃষ্টি হয়েছে।বিশেষ করে রিধইল, সিংড়া খালাস দোহার চৌমাথা ও বুড়ইলসহ বিভিন্ন স্থানে খাদে পড়ে বাস, ট্রাক, ভটভটি, মটরসাইকেল, অটো, ভ্যানগাড়ি র্দূঘটনার কবলে পড়ে ব্যাপক ভাবে প্রান হানির ঘটনা ঘটছে।এবং মাঝে মধ্যেই আহত হওয়ার খবর পাওয়া যায়।এছাড়াও এ রাস্তাটি অত্যন্ত জন গুরত্বপূর্ন হওয়ায় প্রতিদিন এ রাস্তায় নন্দীগ্রাম টু শেরপুর ১৫ থেকে ২০টি যাএীবাহী বাস ও ভারী মালবাহী ট্রাক চলাচল করে।ওই রাস্তাটি সংস্কার করা হলে যানবাহন সহজে চলাচল করতে পারবে।

রাস্তাটি সংস্কার না হওয়ায় ভারি মালবাহী যানবাহন গুলোকে নন্দীগ্রাম টু বগুড়া টু শেরপুর প্রায় ৪৫ কিলোমিটার রাস্তা ঘুরিয়ে যেতে হয়।এতে সময় ও খরচ দুটোয় বেশি লাগে।কিন্তু নন্দীগ্রাম থেকে শেরপুর মাত্র ২২ কিলোমিটার রাস্তা হওয়ায় সময় ও খরচ দুটোয় কম লাগে। যার কারনে, ভারি যানবাহন গুলো ঝুঁকি নিয়ে ওই ভাঙা রাস্তা দিয়েই চলাচল করছে। কৈগাড়ি গ্রামের আব্দুল মজিদ, ছাত্তার, রাজ্জাক, রিধইল গ্রামের জয়নাল, জাফর, আলিম, সিংড়া খালাস গ্রামের মজিদ, ফারুক আকবর, দোহার গ্রামের তোতা, সাদেক, কাসেম এই প্রতিনিধিকে জানান, রাস্তাটি পাকা করনের সময় দায়সাড়া গোছের কাজ করার কারনে অল্প দিনেই রাস্তাটি নষ্ট হয়ে গেছে। 

এই রাস্তাটি আমাদের জন্য খুবই গুরত্বপূর্ণ অচিরেই এই রাস্তাটি সংস্কার করা প্রোয়োজন।

পাঠকের মন্তব্য