ক্ষমতা দখলে পাকিস্তানের সঙ্গে ষড়যন্ত্র বিএনপি-জামাতের !

ক্ষমতা দখলে পাকিস্তানের সঙ্গে ষড়যন্ত্র বিএনপি-জামাতের!

ক্ষমতা দখলে পাকিস্তানের সঙ্গে ষড়যন্ত্র বিএনপি-জামাতের!

পাকিস্তান ও কিছু আন্তর্জাতিক গোষ্ঠির সঙ্গে আঁতাত করে জাতিরজনক বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবর রহমানকে হঠিয়ে ক্ষমতা দখল করেছিলেন খন্দকার মোশতাক ও জেনারেল জিয়াউর রহমান। একই পথে হাঁটতে চলেছে বিএনপি ও জামাতে ইসলামি। এবার বঙ্গবন্ধুর কন্যা শেখ হাসিনা ও আওয়ামি লিগের রাজনৈতিকভাবে মোকাবেলা করতে ব্যর্থ হয়ে ক্রমাগতভাবে ষড়যন্ত্রের পথ বেছে নিয়েছে বিএনপি। পাকিস্তনি গোয়েন্দা ও গোয়েন্দা সংস্থার সাথে তাদের যে দহরম-মহরম সেটা বহু পুরনো। এর প্রমাণ হচ্ছে পাকিস্তানি গোয়েন্দাদের সাথে মধ্যপ্রাচ্যের বৈঠক, যা অত্যন্ত নিন্দনীয়।

এই বিষয়ে তথ্যমন্ত্রী বলেন, ১৯৯১ সালের নির্বাচনের আগে পাকিস্তানি গোয়েন্দা সংস্থার পক্ষ থেকে বিএনপিকে ৫ কোটি টাকা দেওয়া হয়েছিল। এটি পাকিস্তানের গোয়েন্দা সংস্থার প্রাক্তন প্রধান আদালতে জবানবন্দিতে বলেছেন। তারা বাংলাদেশকে অস্থির করার জন্য এখনও নানা ষড়যন্ত্র করছে।” শুক্রবার বন্দরনগর চট্টগ্রামে এক অনুষ্ঠানে এ কথা বলেন তথ্যমন্ত্রী। সৌদি আরবের জেদ্দায় বিএনপি-জামাত পাকিস্তানি গোয়েন্দা সংস্থা আইএসআই’র সঙ্গে গোপন বৈঠক করে। ড. হাছান মাহমুদ বলেন, “করোনা ভাইরাসে মানুষ শঙ্কিত-উদ্বিগ্ন সেই সময়ে বিএনপি জনগণের পাশে না দাঁড়িয়ে দেশে-বিদেশে ষড়যন্ত্রের বৈঠক করে বেড়াচ্ছে।”

বিদেশে বসে বিএনপির ষড়যন্ত্রের একই অভিযোগের কথা ফাঁস করে দিলেন আওয়ামি লিগের সাধারণ সম্পাদক, সড়ক পরিবহন ও সেতুমন্ত্রী ওবায়দুল কাদেরও। তিনি বলেন, “করোনা মহামারীর সময় বিএনপি-জামাত জনগণের পাশে না দাঁড়িয়ে অবৈধ পথে চোরাগলি দিয়ে ক্ষমতায় আসার জন্য ষড়যন্ত্রের অলিগলি খুঁজে বেড়াচ্ছে। এ দুটি দলের যৌথভাবে রাষ্ট্রীয় ক্ষমতা দখলের গভীর ষড়যন্ত্রের তথ্য উদ্‌ঘাটন করেছে গোয়েন্দা সংস্থা।” ওবায়দুল কাদের বলেন, “ষড়যন্ত্র করাই বিএনপির রাজনৈতিক দর্শন। বিএনপির নেতারা বিদেশে বসে সরকার পতনের জন্য ষড়যন্ত্র করেন, আবার দেশে নির্বাচনে অংশগ্রহণের কথা বলেন, এটা তাঁদের ষড়যন্ত্রের রাজনীতির অংশ।”

পাঠকের মন্তব্য