চাকরির নামে টাকা আত্মসাত; বেরোবি শিক্ষকের বিরুদ্ধে অভিযোগ

চাকরির নামে টাকা আত্মসাত; বেরোবি শিক্ষকের বিরুদ্ধে অভিযোগ

চাকরির নামে টাকা আত্মসাত; বেরোবি শিক্ষকের বিরুদ্ধে অভিযোগ

বেরোবি প্রতিনিধি : চাকরি দেওয়ার নামে টাকা নিয়ে আত্মসাতের অভিযোগ তুলে বেগম রোকেয়া বিশ্ববিদ্যালয়ের ভূগোল ও পরিবেশ বিদ্যা বিভাগের সহকারী অধ্যাপক মোস্তাফিজুর রহমানের নামে লিগ্যাল নোটিশ পাঠিয়েছেন বকুল চন্দ্র মোহন্ত। চাকরি দেওয়ার নামে গৃহীত
টাকার চেকের অর্থ পরিশোধ করতে এই নোটিশ পাঠান তিনি।

গণমাধ্যমে প্রকাশিত সেই লিগ্যাল নোটিশ থেকে জানা যায়, ভূগোল ও পরিবেশ বিদ্যা বিভাগে অফিস সহকারী ও কাম কম্পিউটার অপারেটর পদে চাকরি দেওয়ার নাম করে ২০১৭ সালের ২০ ফেব্রুয়ারী সাক্ষীগণের উপস্থিতিতে নগদ ৭ লাখ টাকা গ্রহণ করে ২শ টাকার নন জুডিশিয়াল স্ট্যাম্পে একটি অঙ্গিকারনামা সম্পাদন করেন। এক বছরের মধ্যে চাকরি না দিতে পারলে সমুদয় টাকা ফেরৎ দিবেন বলে অঙ্গিকারনামায় উল্লেখ করেন তিনি।

কিন্তু পরবর্তিতে নির্ধারিত এক বছরের মধ্যে চাকরি নিয়ে দিতে না পারায় চাকরি প্রত্যাশী সেই ব্যক্তি তার টাকা ফেরৎ চাইলে টাকা না দিয়ে কালক্ষেপন করেন মোস্তাফিজুর রহমান।

অবশেষে গত ২৬ আগস্ট ২০২০ তারিখে জনতা ব্যাংক লিঃ লালবাগ শাখা রংপুরের নিজ নামীয় হিসাব থেকে সাত লক্ষ টাকার একটি
চেক (চেক নম্বর-১৮০৬৪৯৫) প্রদান করেন। গত ১লা সেপ্টেম্বর নগদায়নের জন্য সেই চেক জমা করলে হিসাবে (হিসাব নং ১০৫৪১) পর্যাপ্ত পরিমান টাকা না থাকায় অপর্যাপ্ত তহবিল, প্রদানকারীর স্বাক্ষরের অমিল থাকায় ব্যাংক কর্তৃক সেই চেক প্রত্যাখ্যাত হয়। লিগ্যাল নোটিশে ত্রিশ দিনের মধ্যে সাত লক্ষ টাকা পরিশোধ করে তার প্রদত্ত চেক ফেরৎ নিতে বলা হয়েছে।

এবিষয়ে অভিযুক্ত শিক্ষক মোস্তাফিজুর রহমানকে বারবার মুঠোফোনে কল দেওয়া হলেও তিনি কল রিসিভ করেননি।

পাঠকের মন্তব্য