এসআই আকবরকে দেশত্যাগে নিষেধাজ্ঞা, সীমান্তে সতর্কতা

এসআই আকবরকে দেশত্যাগে নিষেধাজ্ঞা, সীমান্তে সতর্কতা

এসআই আকবরকে দেশত্যাগে নিষেধাজ্ঞা, সীমান্তে সতর্কতা

সিলেটের বন্দরবাজার পুলিশ ফাঁড়িতে যুবক রায়হান হত্যায় অভিযুক্ত পলাতক এসআই আকবর হোসেন যেন দেশত্যাগ করতে না পারে সে বিষয়ে সতর্ক থাকতে সীমান্তে সতর্কতা জারি করা হয়েছে।

আজ বৃহস্পতিবার (১৫ অক্টোবর) দুপুরে রাজধানীর ধানমণ্ডিতে পুলিশ ব্যুরো অব ইনভেস্টিগেশনের (পিবিআই) কার্যালয়ে সংবাদ সম্মেলনে এ তথ্য জানিয়েছেন ডিআইজি বনজ কুমার মজুমদার।
 
এসময় তিনি বলনে, আমাদের প্রাথমিক তদন্তে মনে হয়েছে আকবরকে আমাদের দরকার। এ কারণে আমরা সমগ্র ইমগ্রিেশনে জানিয়ে দিয়েছি সে যেন কোন পাসপোর্ট নিয়ে না যেতে পারে। আমরা পাসপোর্ট নাম্বার দিয়ে জানিয়ে দিয়েছি। আমরা যতটুকু শুনেছি স্বরাষ্ট্র মন্ত্রণালয় থেকে বলা হয়েছে সে যেন পালিয়ে যেতে না পারে। বাহিনীর সম্মানের কথা চিন্তা না করে যদি অপরাধ করে, তাহলে সে যেমন আমাদের দিক দেখেনি, আমাদেরও তার দিক দেখার কিছু নাই।

উল্লেখ্য, সিলেটে পুলিশ হেফাজতে যুবক রায়হান উদ্দিনের অস্বাভাবিক মৃত্যুর ঘটনায় বন্দর বাজার পুলিশ ফাঁড়ির বরখাস্ত হওয়া ইনচার্জ এসআই আকবর হোসেন ভূঁইয়া পালিয়েছেন। তাকে খোঁজার পাশাপাশি আলোচিত এ ঘটনার মামলার তদন্তভার এরইমধ্যে পিবিআইতে হস্তান্তর করা হয়েছে।

এ ঘটনায় রায়হানের পরিবারের অভিযোগ, পুলিশের হেফাজতে মৃত্যু হয়েছে রায়হানের। মামলার এজাহারে অভিযোগ করা হয়েছে, ভোররাতে টাকা চেয়ে রায়হানের মায়ের মুঠোফোনে কল দেয় এক পুলিশ সদস্য। ভোর সাড়ে পাঁচটার দিকে রায়হানের চাচা টাকা নিয়ে গেলে তাকে বলা হয় রায়হান অসুস্থ। পরে সকালে আবার ফাঁড়িতে গিয়ে জানতে পারেন তাকে হাসপাতালে নেয়া হয়েছে। পরবর্তীতে ওসমানী মেডিক্যাল কলেজ হাসপাতালে গিয়ে তারা জানতে পারেন রায়হানের মরদেহ হাসপাতালের হিমঘরে রাখা হয়েছে।

এরপরই নিহতের স্ত্রী তাহমিনা আক্তার তান্নি বাদি হয়ে কোতোয়ালি থানায় অজ্ঞাতনামা আসামিদের বিরুদ্ধে মামলা দায়ের করেন।

পাঠকের মন্তব্য