পটুয়াখালীর ৯১টি বীটে ধর্ষণ বিরোধী পুলিশের সমাবেশ অনুষ্ঠিত

পটুয়াখালীর ৯১টি বীটে ধর্ষণ বিরোধী পুলিশের সমাবেশ অনুষ্ঠিত

পটুয়াখালীর ৯১টি বীটে ধর্ষণ বিরোধী পুলিশের সমাবেশ অনুষ্ঠিত

সম্মানিত ইন্সপেক্টর জেনারেল অব পুলিশ (আইজিপি) ড. বেনজীর আহমেদ, বিপিএম (বার) মহোদয়ের নির্দেশে সারাদেশের ন্যায় পটুয়াখালী জেলায় সকাল ১০ ঘটিকায় একযোগে "নারী ধর্ষণ ও নারী নির্যাতন বিরোধী বিট পুলিশিং  সমাবেশ" স্বাস্থ্যবিধি বজায় রেখে অনুষ্ঠিত হয়। এ সময় প্রত্যেক বীটের বসবাসরত সম্মানিত নাগরিকবৃন্দ, সুশীল ব্যক্তিবর্গ, স্থানীয় নির্বাচিত প্রতিনিধি, শিক্ষকবৃন্দ, ইমাম নেতৃবৃন্দ, এনজিও কর্মী, স্কুল কলেজের ছাত্রছাত্রী বৃন্দ, সাংবাদিকবৃন্দ, সংশ্লিষ্ট বিট অফিসার প্রমুখ উপস্থিত ছিলেন। প্রত্যেক বীটের এ মহতী সমাবেশ ফেসবুক লাইভ স্ট্রিম করা হয়।

 পটুয়াখালী সদর পৌরসভার ০১ নং বীটের সমাবেশে সভাপতিত্ব করেন পুলিশ সুপার মোহাম্মদ মইনুল হাসান পিপিএম। অনুষ্ঠানে প্রধান অতিথি হিসেবে উপস্থিত ছিলেন মহান জাতীয় সংসদের সংসদীয় আসন-৩২৯, সংরক্ষিত নারী আসন-২৯ এর মাননীয় সংসদ সদস্য জনাব কাজী কানিজ সুলতানা মহোদয়। অন্যান্য বিশেষ অতিথি বৃন্দের মধ্যে ছিলেন জেলা আওয়ামীলীগের বিপ্লবী সভাপতি ও সাধারণ সম্পাদক, উপজেলা চেয়ারম্যান, মেয়রের প্রতিনিধি, পটুয়াখালী সরকারি কলেজের সহঃ অধ্যাপিকা প্রমুখ।পটুয়াখালী সরকারি কলেজের ছাত্রী দীপা দত্ত সহ সম্মানিত সকল অতিথিবৃন্দ তাৎপর্যপূর্ণ বক্তব্য প্রদান সহ সমাজের সকল স্তরের নাগরিকবৃন্দকে নারী ধর্ষণ ও নারী নির্যাতন বিরোধী প্রচার প্রচারণা, সচেতনতা, বিপ্লব ও গণজাগরণ সৃষ্টি করতে উদ্বুদ্ধ করেন।

এসময় একদল তরুন স্বেচ্ছাসেবক সংগঠনের হাতে নারী ধর্ষণ ও নারী নির্যাতন বিরোধী লেখা সম্বলিত  (নারীর প্রতি সহিংসতা নিরসনে,আপনার পুলিশ আপনার পাশে/ নিরাপদ দেশ গড়ি নারী নির্যাতন বন্ধ করি/ নিরাপদ সমাজ গড়ি, নারী নির্যাতন বন্ধ করি/ নারী ধর্ষণ ও নির্যাতন বন্ধ করি, নারীবান্ধব দেশ গড়ি/নিরাপদ নারী, নিরাপদ দেশ,সুখী সমৃদ্ধ বাংলাদেশ/ বন্ধ হোক নারী নির্যাতন, নিশ্চিত হোক দেশের উন্নয়ন) প্লেকার্ড শোভিত হয়।

এ ধরনের মহৎ, সৃজনশীল ও ব্যতিক্রমী উদ্যোগ নারী ধর্ষণ ও নারী নির্যাতন প্রতিরোধে অনন্য ভূমিকা পালন করবে। বাংলাদেশে একযোগে এ বিট পুলিশিং সমাবেশ মাইলফলক হয়ে থাকবে যা সর্বমহলে ভূয়সী প্রশংসিত হয়েছে।

পাঠকের মন্তব্য