করোনা ভাইরাসে স্পেনে জরুরি অবস্থা, রাতে কারফিউ

করোনা ভাইরাসে স্পেনে জরুরি অবস্থা, রাতে কারফিউ

করোনা ভাইরাসে স্পেনে জরুরি অবস্থা, রাতে কারফিউ

করোনা ভাইরাস সংক্রমণ রুখতে সারা স্পেনে জরুরি অবস্থা ঘোষণা করা হয়েছে। রাতে দেয়া হয়েছে কারফিউ। নতুন করে সেখানে করোনা ভাইরাস সংক্রমণ বৃদ্ধির ফলে প্রধানমন্ত্রী পেদ্রো সানচেজ এই ঘোষণা দেন। এতে বলা হয়, রোববার স্থানীয় সময় রাত ১১টা থেকে ভোর ৬ টা পর্যন্ত এই কারফিউ চলতে থাকবে। তিনি আরো বলেছেন, জরুরি অবস্থার মধ্যে স্থানীয় কর্তৃপক্ষ তাদের অঞ্চলের ভিতরে চলাচল নিষিদ্ধ করতে পারবে। পেদ্রো সানচেজ আরো বলেছেন, নতুন এসব বিধিনিষেধকে তিনি প্রথমে ১৫ দিন কার্যকর করার আহ্বান জানাবেন পার্লামেন্টের কাছে। এরপর তা ৬ মাস বর্ধিত করার প্রস্তাব দেয়া হবে। এ খবর দিয়েছে অনলাইন বিবিসি।

এতে আরো বলা হয়, এ বছর প্রথম দিকে করোনা ভাইরাস সংক্রমণে বিপর্যস্ত হয়ে পড়ে দেশটি। ওই সময় তারা আরো কড়া বিধিনিষেধসহ লকডাউন ঘোষণা করে। একে বিশ্বের সবচেয়ে কঠিন বিধিনিষেধের অন্যতম বলা হয়। এখন আবার ইউরোপের অন্যসব দেশের মতো স্পেনেও দ্বিতীয় দফায় করোনা সংক্রমণ বৃদ্ধি পেয়েছে। ওদিকে ইতালিতে রোববার থেকে নতুন বিধিনিষেধ দেয়া হয়েছে। সরকার বলছে, নতুন করে সংক্রমণ বৃদ্ধিতে দেশের স্বাস্থ্য ব্যবস্থার ওপর বড় এক প্রভাব পড়েছে। ওদিকে ফ্রান্সে একদিনে সর্বোচ্চ আক্রান্তের রেকর্ড করা হয়েছে। সেখানে গত একদিনে আক্রান্ত হয়েছেন মোট ৫২ হাজার ১০ জন। এর আগে শনিবার সেখানে আক্রান্ত হয়েছিলেন ৪৫ হাজার মানুষ।

এ অবস্থায় স্পেনের প্রধানমন্ত্রী বলেছেন, অঞ্চলভেদে কারফিউ এক ঘন্টার জন্য শিথিল করা যেতে পারে। এক অঞ্চল থেকে আরেক অঞ্চলে চলাচলের বিষয়টি দেখবেন স্থানীয় নেতারা। কাজ এবং চিকিৎসার প্রয়োজনীয়তার ওপর ভিত্তি করে তারা এসব বিষয়ে অনুমোদন দেবেন অথবা দেবেন না। নতুন ঘোষণায় বাসাবাড়িতেও ৬ জনের বেশি একত্রিত না হতে অনুরোধ করা হয়েছে। রোববার টেলিভিশনে প্রচারিত ভাষণে প্রধানমন্ত্রী সানচেজ বলেন, পরিস্থিতি চরমের দিকে যাচ্ছে। গত ৫০ বছরের মধ্যে এত ভয়াবহতা আসে নি কখনো। তাই স্পেনের ১৭টিরও বেশি অঞ্চলকে বিধিনিষেধ আরো কড়াকড়ি করার আহ্বান জানিয়েছেন তিনি।

পাঠকের মন্তব্য