দুই জনই মেয়ে; একে অপরজনকে বিয়ের সিদ্ধান্তে ঘর ছাড়া

দুই জনই মেয়ে; একে অপরজনকে বিয়ের সিদ্ধান্তে ঘর ছাড়া

দুই জনই মেয়ে; একে অপরজনকে বিয়ের সিদ্ধান্তে ঘর ছাড়া

দুই জনই মেয়ে। জড়িয়ে পড়েন প্রেমের সম্পর্কে। একে অপরকে বিয়ে করার সিদ্ধান্তে ঘর ছেড়ে পালিয়ে যায় রাজধানী ঢাকায়। কিন্তু বাধা হয় আইন-শৃঙ্খলাবাহিনীর সদস্যরা। অভিভাবকের অভিযোগে আটক করা হয়েছে তাদের। আজ বুধবার সকালে জেলা শহর পটুয়াখালী থেকে আটকের পর এদের একজনকে জেলহাজতেও অপরজনকে পুলিশ হেফাজতে রেখেছেন আইন-শৃঙ্খলাবাহিনীর সদস্যরা।

জানা গেছে, বাউফল নিবাসী জনৈক একজন পাশের উপজেলা গলাচিপায় একটি এনজিওতে চাকরি সুবাধে অবস্থান করছিলেন পরিবার নিয়ে। তারই দশম শ্রেণি পড়ুয়া মেয়ের সঙ্গে সেখানকার একজনের এইচএসসি পাস মেয়ের বন্ধুত্বের সম্পর্ক গড়ে উঠে। দিনে দিনে বাড়ে এই সম্পর্কের গভীরতা। এ সমাজে মেয়ে-মেয়ে বিয়ের রীতি না থাকালেও এক পর্যায়ে ঘর বাধার স্বপ্ন দেখেন এই দুইজন। গত ২৪ অক্টোবর ঘর ছেড়ে পালিয়ে যায় তারা দু’জন রাজধানী ঢাকায়।
 
এ ঘটনায় বাউফলের জনৈক ওই ব্যক্তি গলাচিপা নিবাসীর মেয়েকে আসামি করে মামলা করেন থানায়।
 
সকালে ঢাকা থেকে আসা ডবল ডেকারলঞ্চ থেকে পটুয়াখালী শহরে এসে নামলে গোপন সংবাদেও ভিত্তিতে র‌্যাব-৮ সদস্যরা তাদের আটক করে বাউফল থানা পুলিশের কাছে সোপর্দ করেন। এদের মধ্যে গলাচিপার নিবাসীর ওই মেয়েকে আদালতের মাধ্যমে পটুয়াখালী জেল হাজতে প্রেরণ করা হয়েছে। 

এ রিপোর্ট লেখা পর্যন্ত (সন্ধ্যা সোয়া ৬টা) বাউফল নিবাসীর মেয়েকে রাখা হয়েছে পুলিশ হেফাজতে।

পাঠকের মন্তব্য