বিশ্বনবী'র ব্যঙ্গচিত্র প্রকাশের প্রতিবাদে বিক্ষোভে উত্তাল ঢাকা

বিশ্বনবী'র ব্যঙ্গচিত্র প্রকাশের প্রতিবাদে বিক্ষোভে উত্তাল ঢাকা

বিশ্বনবী'র ব্যঙ্গচিত্র প্রকাশের প্রতিবাদে বিক্ষোভে উত্তাল ঢাকা

ফ্রান্সে মহানবী হযরত মুহাম্মদ (সা.) ব্যঙ্গচিত্র প্রকাশের প্রতিবাদে বাংলাদেশের রাজধানী ঢাকাসহ দেশের বিভিন্ন স্থানে বিক্ষোভ সমাবেশ, মিছিল ও মানববন্ধন কর্মসূচি পালন করেছে বিভিন্ন ইসলামি সংগঠন।

আজ (শুক্রবার) বাদ জুমা জাতীয় মসজিদ বায়তুল মোকাররম জাতীয় মসজিদের উত্তর গেইট সম্মিলিত ইসলামী দলসমূহের উদ্যোগে বিক্ষোভ সমাবেশ ও গণমিছিল অনুষ্ঠিত হয়। এতে সভাপতিত্ব করেন জমিয়তে উলামায়ে ইসলামের মহাসচিব আল্লামা নূর হোসাইন কাসেমী।

ইসলামী দলসমূহের সহসভাপতি আবু তাহের জিহাদী আল কাশেমী বলেন, ‘সরকারকে বলছি, ফ্রান্সের রাষ্ট্রদূতকে এ দেশ থেকে বের করে দেন। যেভাবে সারাদেশে আন্দোলন শুরু হয়েছে তাতে পালানোর দিশা পাবে না। তাই আগেভাগেই রাষ্ট্রদূতকে বাংলাদেশ থেকে বের করে দেন। আল্লাহর নবীকে কটূক্তি করে এদেশে কেউ থাকতে পারবে না।’

চরমোনাই পীরের নেতৃত্বাধীন ইসলামী আন্দোলন বাংলাদেশের আহ্বানে দেশব্যাপী মিছিলের অংশ হিসেবে কেন্দ্রীয়ভাবে পুরানা পল্টন জামে মসজিদ থেকে দলের মহাসচিব অধ্যক্ষ হাফেজ মাওলানা ইউনুছ আহমাদের নেতৃত্বে একটি মিছিল পল্টন মোড়, জিরোপয়েন্ট হয়ে পল্টন মোড়ে এসে সংক্ষিপ্ত সমাবেশের মাধ্যমে কর্মসূচি সমাপ্ত করা হয়।

সমাবেশে মাওলানা ইউনুছ আহমাদ বলেন, ফ্রান্সের সাথে সম্পর্ক ছিন্ন ও পণ্য বর্জন অব্যাহত রাখতে হবে। ফ্র্যান্সের রাষ্ট্রদূতকে ডেকে নিন্দা জানাতে হবে এবং সংসদ অধিবেশন ডেকে ফ্রান্সের বিরুদ্ধে রাষ্ট্রীয়ভাবে নিন্দা প্রস্তাব করতে হবে।

এর আগে সকাল ১০টায় জাতীয় প্রেস ক্লাবের সামনে বাংলাদেশ নেজামে ইসলাম পার্টি ঢাকা মহানগরীর উদ্যোগে মানববন্ধন কর্মসূচি পালিত হয়।
বাংলাদেশ খেলাফত মজলিসও দেশব্যাপী বিক্ষোভ কর্মসূচি পালন করেছে। বিক্ষোভ মিছিল করেছে জাতীয় ইমাম সমাজ বাংলাদেশও।

এসব বিক্ষোভ সমাবেশে নেতৃবৃন্দ বলেছেন, ‘ফ্রান্সের প্রেসিডেন্ট ম্যাক্রন বিশ্বনবী হজরত মুহাম্মদ (সা.)-এর ব্যঙ্গচিত্র কার্টুন প্রকাশ করে মুসলিম উম্মাহর হৃদয়ে চরম আঘাত হেনেছে। এ জন্য ফ্রান্সকে নিঃশর্ত ক্ষমা চাইতে হবে। ঈমানদার মুসলমানরা এই ন্যক্কারজনক ঘটনার প্রতিবাদে ফ্রান্সের সকল পণ্য বর্জন করে ওদের দাঁতভাঙ্গা জবাব দেবে।

বক্তারা আরও বলেন, ‘ফ্রান্সে রাষ্ট্রীয় মদদে মহানবী (সা.)-এর অবমাননাকর কার্টুন প্রদর্শন করায় বিশ্বের দুইশ’ কোটি মুসলমান ব্যথিত হয়েছেন। ফ্রান্সের এহেন ইসলাম ও মুসলিম বিদ্বেষী কর্মকাণ্ড বন্ধ করতে হবে। বিক্ষুব্ধ মুসলমানদের হৃদয়ের ক্ষত মুছতে হলে ফ্রান্সকে অবিলম্বে রাষ্ট্রীয়ভাবে ক্ষমা চাইতে হবে। জাতীয় সংসদে মহানবী (সা.)-এর অবমাননার বিরুদ্ধে নিন্দা প্রস্তাব পাশ করতে হবে।’

এদিকে, সিলেট হেফাজতে ইসলাম বাংলাদেশের উদ্যোগে আজ শুক্রবার বাদ জুমুআ নগরীর সুরমা পয়েন্টে বিক্ষোভ সমাবেশ অনুষ্ঠিত হয়। এতে বক্তারা বলেন, 'ফ্রান্স দীর্ঘ দিন থেকে ইসলাম বিরোধী অবস্থানে নিজেকে কট্টরপন্থী হিসেবে বিশ্ববাসীর সামনে আপন কদর্য চেহারা বার বার উন্মোচিত করেছে। সম্প্রতি ফ্রান্সের একটি স্কুল শিক্ষকের অসহিষ্ণু ভূমিকার প্রেক্ষিতে জনৈক মুসলিম যুবকের প্রতিক্রিয়ায় গোটা ফ্রান্সউড়ে রাষ্ট্রীয় পৃষ্ঠপোষকতায় ইসলাম বিদ্বেষ ছড়ানোয় তাদের উগ্র চেহারা আবারো বিশ্ববাসী প্রত্যক্ষ করেছে। এহেন পরিস্থিতিতে শুধু মুসলমান কেন সকল মানবতাবাদী শক্তির হৃদয়ে রক্তক্ষরণ হচ্ছে।'

বক্তারা বলেন, বিশ্ব শান্তির অগ্রদূত মহানবী হযরত মুহাম্মদ (সা.)- এর অবমাননার নিন্দায় জাতিসংঘসহ বিভিন্ন দেশ সরব হয়েছে। কিন্তু আমরা দুঃখের সাথে লক্ষ করছি, পাশ্চাত্যের দাসানুদাস হিসেবে মুসলিম বিশ্বের বিভিন্ন দেশে ক্ষমতা জবর দখল করে থাকা ক্ষমতাসীনরা রহস্যজনক নিরবতা পালন করে যাচ্ছে। ওআইসিকে ঠুঁটো জগন্নাথ বানিয়ে রাখা হয়েছে। তাদেরই পথ অনুসরণ করে আমাদের সরকারও ফ্রান্সের ঘটনায় নিরপেক্ষ থাকার ঘোষণা দিয়েছেন। অথচ সারা জাতি আজ সরকারের কাছে নিন্দা জানানোর দাবি জানাচ্ছেন। ফ্রান্সের রাষ্ট্রীয় অনাচার দেখেও কোন মুসলিম দেশ নিরপেক্ষ থাকতে পারে না। অবিলম্বে ঢাকায় ফরাসী রাষ্ট্রদূতকে তলব করে নিন্দা জানাতে হবে।'

হেফাজতে ইসলাম বাংলাদেশের মহাসচিব আল্লামা জুনায়েদ বাবুনগরীর নেতৃত্বে চট্টগ্রাম আন্দরকিল্লা শাহী জামে মসজিদও থেকে বিক্ষোভ মিছিল হয়েছে।

পাঠকের মন্তব্য