সবশেষে উপকমিটি গঠনে বাড়তি সতর্কতায় আওয়ামী লীগ

সবশেষে উপকমিটি গঠনে বাড়তি সতর্কতায় আওয়ামী লীগ

সবশেষে উপকমিটি গঠনে বাড়তি সতর্কতায় আওয়ামী লীগ

ঢাকা মহানগর ও সহযোগী সংগঠনগুলোর পর ঘোষণা করা হচ্ছে আওয়ামী লীগের উপকমিটি। দলটির নেতারা বলছেন, শাহেদকাণ্ডের পর উপকমিটি গঠন বা নাম বাছাইয়ে বিশেষ সতকর্তা অবলম্বন করা হয়েছে। সহ সম্পাদক থাকছে না। আর সদস্য নির্বাচনে আরোপ করা হয়েছে বেশ কিছু শর্ত।

গেলো কেন্দ্রীয় সম্মেলনে উপকমিটি থেকে সহ-সম্পাদকের পদ বিলুপ্ত করা হয়। একজন চেয়ারম্যান, একজন কো-চেয়ারম্যান এবং বাকীদের সদস্য হিসেবে রাখার সিদ্ধান্ত হয়। এর আগে বিশাল আকৃতির উপকমিটিগুলো নিয়ে ছিল নানান অভিযোগ।

ফলে সহ সম্পাদক না রাখার উপকমিটিতে ৩৫ সদস্য নির্ধারণ করে দেয়া হয়েছে। এছাড়া কোন সহযোগী সংগঠনের নেতাকর্মীও থাকতে পারবেন  উপকমিটিতে। আওয়ামী লীগের সাধারণ সম্পাদক ওবায়দুল কাদের বলেন, 'বিতর্কিত লোকের অনুপ্রবেশ যে কোন মূল্যে বন্ধ করতে হবে। একজন নতুন লোককে যখন দেবেন খোঁজখবর নেবেন। একজন একাধিক সাব কমিটিতে থাকতে পারবে না। কোন সহযোগী সংগঠনে যদি কেউ থাকে তবে এখানে থাকতে পারবেন না।'

তবে সংসদ সদস্য, সংসদীয় স্থায়ী কমিটির সভাপতি এবং বিশেষজ্ঞ ব্যক্তিদের ক্ষেত্রে এসব নিয়মকানুন কিছুটা শিথিল থাকবে। আওয়ামী লীগ যুগ্ম সাধারণ সম্পাদক আ ফ ম বাহাউদ্দিন নাসিম বলেন, 'আওয়ামী লীগের কোন সংসদ সদস্য কোন না কোন কমিটিতে আছেন। সেই বিবেচনায় তাদেরকে রাখা হবে পদাধিকার বলে। টেকনোট্রাটদের রাখা হবে ওই বিবেচনায়। একই ব্যক্তি একাধিক জায়গায় বিভিন্ন পদে থাকে। সে বিষয়টার প্রতি নজর দেয়া হয়েছে। যাতে অন্যদের সদস্য হবার পথে কোন বাঁধা না থাকে।'

এদিকে, বন ও পরিবেশ, যুব ও ক্রীড়া এবং ত্রাণ ও সমাজকল্যাণ বিষয়ক উপকমিটি বাড়তি সদস্য রাখার সুপারিশ করেছে। দলটির ত্রাণ ও সমাজকল্যাণ বিষয়ক সম্পাদক সুজিত রায় নন্দী বলেন,'দলে একটা পোষ্ট কিন্ত এটা দুইটা মন্ত্রণালয় হয়েছে। একটা ত্রাণ ও দুর্যোগ মন্ত্রণালয় ও আরেকটা সমাজকল্যাণ মন্ত্রণালয়। সে জন্য এখানে লোকবল দরকার। সে কারণে এ কমিটির কলেবর বৃদ্ধি করার জন্য আমরা আবেদন করেছি।'

আওয়ামী লীগের সাংস্কৃতিক সম্পাদক অসীম কুমার উকিল জানান,'সতর্ক পদক্ষেপ নিচ্ছি, যাতে কোন অর্থে, কোন ভাবেই সমালোচার সম্মুখীন হতে না হয়।'

দলটির নেতারা বলছেন সব কমিটির সদস্যের নামের তালিকা প্রায় চূড়ান্ত। দলীয় সভাপতির অনুমোদন প পেলেই কাজ শুরু করবে উপকমিটিগুলো।

পাঠকের মন্তব্য