ফ্রান্সবিরোধী পোস্ট; বাংলাদেশিদের ফেরত পাঠাচ্ছে সিঙ্গাপুর

ফ্রান্সবিরোধী পোস্ট; বাংলাদেশিদের ফেরত পাঠাচ্ছে সিঙ্গাপুর

ফ্রান্সবিরোধী পোস্ট; বাংলাদেশিদের ফেরত পাঠাচ্ছে সিঙ্গাপুর

সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যমে প্রকাশিত পোস্টের মাধ্যমে সহিংসতা উস্কে দেয়া ও সাম্প্রদায়িক অশান্তি সৃষ্টির দায়ে ১৫ বাংলাদেশিকে সিংগাপুর থেকে বিতাড়িত করেছে দেশটির সরকার৷

সাম্প্রতিক সপ্তাহগুলোতে কয়েকটি সন্ত্রাসী হামলার ঘটনা ঘটায় ইউরোপের দেশ ফ্রান্সে এখন ‘হাই এলার্ট' জারি রয়েছে৷ এসব হামলার মধ্যে একটি ঘটনায় একজন শিক্ষককে শিরশ্ছেদ করা হয়েছিল, যিনি তার শিক্ষার্থীদের ইসলামের মহানবী মোহাম্মদকে নিয়ে আঁকা কার্টুন দেখিয়েছিলেন৷ এছাড়া নিসে একটি চার্চে প্রাণঘাতি হামলাও চালানো হয়৷ 

গত ২১ অক্টোবর প্যাটিকে মরনোত্তর লিজিয়ন অফ অনারে ভূষিত করে প্রেসিডেন্ট মাক্রোঁ বলেন, আমরা কার্টুন ছাড়বো না৷ ইউরোপীয় গণতান্ত্রিক ও ধর্মনিরপেক্ষ মূল্যবোধকে রক্ষা করতে গিয়ে প্যাটি জীবন দিয়েছেন। তিনি এই প্রজাতন্ত্রের মুখ।

শিক্ষকের উপর হামলার ঘটনার পর ফ্রান্সের প্রেসিডেন্ট ইমানুয়েল মাক্রোঁ কার্টুন প্রকাশকে মানুষের অধিকার হিসেবে বর্ণনা করেন এবং এই অধিকার রক্ষা করা হবে বলে জানান৷ মুসলমান প্রধান কয়েকটি দেশে মাক্রোঁর এই বক্তব্যের তীব্র প্রতিক্রিয়া সৃষ্টি হয়৷ বাংলাদেশে মাক্রোঁর বক্তব্যের প্রতিবাদে রাস্তায় বিক্ষোভ, সমাবেশ করেছেন কয়েক হাজার মানুষ৷ প্রতিবাদকারীরা ম্যাক্রোঁর কুশপুত্তলিকাও দাহ করেন৷

বাংলাদেশিদের বিতাড়িত করার বিষয়ে সিঙ্গাপুরের স্বরাষ্ট্র মন্ত্রণালয় জানিয়েছে, গত সেপ্টেম্বর থেকেই এই বিষয়ে নজর রাখছিল দেশটির নিরাপত্তা সংস্থাগুলো এবং তাদের তদন্তের ভিত্তিতে বাংলাদেশিদের বিতাড়িত করা হয়েছে৷

যে বাংলাদেশিদের বিতাড়িত করা হয়েছে তাদের অধিকাংশই নির্মাণ শ্রমিক ছিলেন এবং ফ্রান্সে হামলার ঘটনার পর তাদের ফেসবুক পোস্টগুলো সহিংসতা উস্কে দিয়েছে বা সাম্প্রদায়িক অস্থিরতা সৃষ্টি করেছে, জানিয়েছে মন্ত্রণালয়৷ তবে, সেসব ফেসবুক পোস্টের বিস্তারিত প্রকাশ করেনি সিংগাপুর কর্তৃপক্ষ৷

উল্লেখ্য, সিংগাপুরের বাসিন্দাদের অধিকাংশই নৃতাত্ত্বিকভাবে চীনা বংশোদ্ভূত হলেও সেখানে অনেক মুসলমানও বসবাস করেন৷ দেশটিতে তিন লাখের মতো স্বল্প বেতনের অভিবাসী শ্রমিক রয়েছেন, যাদের অধিকাংশই দক্ষিণ এশীয়৷

পাঠকের মন্তব্য