বিশ্বদরবারে মাথা উঁচু করে দাঁড়াবে দেশের তরুণরা

বিশ্বদরবারে মাথা উঁচু করে দাঁড়াবে দেশের তরুণরা

বিশ্বদরবারে মাথা উঁচু করে দাঁড়াবে দেশের তরুণরা

বেশিসংখ্যক মানুষকে কর্মসংস্থানের সুযোগ করে দেয়াই সরকারের লক্ষ্য। এই লক্ষ্যকে সামনে রেখেই তরুণদের উদ্যোক্তা হিসেবে তৈরিতে কাজ করছে সরকার বলে জানিয়েছেন প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা। 

অনলাইন মার্কেট প্লেসে কাজ করছে দেশের সাড়ে ৬ লাখ ফ্রিল্যান্সার। আয় করছে বছরে ৩০০ মিলিয়ন ডলারের বেশি। মুক্তপেশার এই মানুষদের পরিচয় আর আত্মমর্যাদার স্বীকৃতি দিতে ফ্রিল্যান্সারদের দেয়া হল ভার্চুয়াল আইডি কার্ড।   

বুধবার গণভবন থেকে এ আয়োজনে ভার্চুয়ালি যুক্ত হন প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা। এ সময় তিনি বলেন, বেশিসংখ্যক মানুষকে কর্মসংস্থানের সুযোগ করে দেয়াই সরকারের লক্ষ্য। দেশের সব প্রান্তের তরুণদের কাজের সুযোগ করে দিতে গ্রামকে শহুরে সুবিধায় আনতে কাজ চলছে। দক্ষ জনশক্তি হয়ে একদিন বিশ্বদরবারে মাথা উঁচু করে দাঁড়াবে দেশের তরুণরা। 

প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা বলেন,  ১৯৯৬ সালের আগ পর্যন্ত সরকারি অফিসের কোন স্তরেই কম্পিউটারের ব্যবহার ছিল না। সজীব ওয়াজেদ জয়ের পরামর্শই কম্পিউটারের আমদানি শুল্ক প্রত্যাহার করে এই খাতকে উৎসাহিত করা হয়েছে। ফ্রিল্যান্সিং পেশাকে প্রাতিষ্ঠানিক রূপ দিতেই সরকারের এই আয়োজন বলে জানান প্রধানমন্ত্রী।

সরকার প্রধান বলেন, দেশের তরুনরা অত্যন্ত মেধাবী। সুযোগ সৃষ্টি করে দিলে খুব সহজে তারা আয়ত্বে আনতে পারে। নিজেরা কাজ করবে এবং অন্যকে কাজ করার সুযোগ করে দেবে, সে লক্ষ্যে প্রশিক্ষণ দিয়ে তৈরি করা হচ্ছে তরুনদের। দেয়া হচ্ছে আর্থিক সহায়তাও। 

দক্ষ জনশক্তি হয়ে বিশ্বদরবারে মাথা উচু করে দাঁড়াবে দেশের তরুনরা এমন আশা জানিয়ে ভার্চুয়াল আইডি কার্ড পোর্টালের উদ্ধোধন করেন প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা।

পাঠকের মন্তব্য