একজন সাবেক আদর্শিক যুবলীগ নেতার ছোট পরিবারের গল্প  

একজন সাবেক আদর্শিক যুবলীগ নেতার ছোট পরিবারের গল্প  

একজন সাবেক আদর্শিক যুবলীগ নেতার ছোট পরিবারের গল্প  

দূর সময়ের আওয়ামী যুবলীগের 'সাহসী সন্তান হিসেবে খ্যাত, সাহসী যোদ্ধা সাবেক সফল যুবনেতা, পরিচ্ছন্ন ও রাজপথের লড়াকু সৈনিক সাবেক জামালপুর শহর যুবলীগের সাধারণ সম্পাদক শেখ ফরিদ ফাল্টু। 

শেখ ফরিদ ১৪ এপ্রিল ১৯৫৬ সালে জামালপুর শহরের শাহাপুর গ্রামে এক সম্ভ্রান্ত মুসলিম পরিবারে জন্ম গ্রহন করেন। তার পিতা -মোঃ কালা চান ও মাতা -মোছাঃ সফুরা। তিন ভাই এক বোনের সুখী সংসারে তিনি বাবা মা'র ছোট সন্তান। 

বঙ্গবন্ধুর একনিষ্ঠ ভক্ত শেখ ফরিদ যুবকাল থেকেই বাংলাদেশ যুবলীগের একজন সক্রিয় কর্মী হিসাবে কাজ করেছেন। জামালপুর শহর যুবলীগের সাধারণ সম্পাদক এর দায়িত্ব পাওয়ার পর থেকে সফলতার সাথে দায়িত্ব পালন করে গেছেন। বিএনপি জামাত দলীয় জোটের দু:শাসনের সময়ে তিনি একজন সাহসী যোদ্ধা একজন সফল ব্যবসায়ী, পরিচ্ছন্ন ও প্রতিশ্রুতিশীল রাজনৈতিক কর্মী ছিলেন।

জামালপুর শহর যুবলীগের সাধারণ সম্পাদক শেখ ফরিদ রাজনীতি ও পেশাগত দায়িত্বের পাশাপাশি ধর্মীয়, সামাজিক, সাংস্কৃতিক, ক্রীড়া-খেলাধুলা-সহ নানামুখী কর্মকান্ডের সাথে নিজেকে সম্পৃক্ত রেখে গেছেন।

১৯৯৩ সালের ১৫ আগস্ট বাংলার যুবকন্ঠ বাংলাদেশ আওয়ামীলীগের সাংগঠনিক সম্পাদক মির্জা আজম এর নেতৃত্বে রেল অবোরুদ্ধ মামলার অন্যতম আসামী ছিলেন শেখ ফরিদ। 

১৯৮৬ সালের ১৮ জুলাই এক শুভ ক্ষণে তিনি মোছা: সাহিদা বেগম সাথে বিবাহ বন্ধনে আবদ্ধ হন।তাদের ঘড় আলোকিত করে দুই পুএ সন্তান ও দুই কন্যা সন্তান জন্ম লাভ করে। তার বড় সন্তান মো: পারভেজ আহমেদ, তিনিও তার বাবার দেখানো নির্দেশিত পথে বঙ্গবন্ধুর আদর্শকে বুকে ধারণ করে আওয়ামী পরিবারের সাথে যুক্ত রয়েছেন। বিএনপি জামাত চার দলীও জোট সরকারের আমলে পারভেজ আহমেদ অনেক নির্যাতন নিপিড়ণ এর শিকার হয়েছেন।২০০৪ সালে বিএনপি জামাত কতৃক মিথ্যা মামলায় পারভেজ আহমেদ এবং তার পিতা ও জেঠা এবং ফুপাত ভাই রাজু আহমেদ সহ পরিবারের একাধিক সদস্য গন কারা বরণ করেন।সত্যিকারের বঙ্গবন্ধুর আদর্শিত কর্মীহিসেবে এত নির্যাতনেও সে পিছপা হন নি।

বর্তমান সময় তিনি ৮নং ওর্য়াড আওয়ামীলীগের এি-বার্ষিকী সম্মেলনে, সাধারণ-সম্পাদক প্রাথী হয়েছেন।তিনি একজন নির্যাতিত কর্মী।আওয়ামী পরিবারের সন্তান হিসেবে জেলা আওয়ামীলীগের নিতীনির্ধারন নেতা কর্মীদের কাছে বিনিত অনুরোধ জানিয়েছেন তাকে যথার্থ মূল্যায়ন করার জন্য।

পাঠকের মন্তব্য