ব্যক্তিগত/গোপনীয় ছবি আদান প্রদানে সতর্ক হন 

ব্যক্তিগত/গোপনীয় ছবি আদান প্রদানে সতর্ক হন 

ব্যক্তিগত/গোপনীয় ছবি আদান প্রদানে সতর্ক হন 

ভিকটিম সাগরিকা (ছদ্মনাম) বাংলাদেশের একটি সনামধন্য ইউনিভার্সিটির ছাত্রী। ফেসবুকে ভিকটিমের সাথে ফেক আইডি Tanjiara Tuly এর পরিচয় হয়। পরিচয়ের সুবাদে ভিকটিমকে অভিনয় শেখানোর প্রস্তাব দেয় প্রতারক। প্রতারকের মিষ্টি কথায় প্রলুব্ধ হয়ে ভিকটিম তার গোপনীয় ছবি প্রতারককে দিয়ে দেয়। প্রতারক ভিকটিমের গোপনীয় ছবিগুলো  পেয়ে ব্লাকমেইল করে টাকা দাবি করে এবং দাবিকৃত টাকা না পেলে গোপনীয় ছবি গুলো ভাইরাল করবে বলে হুমকি দেয়। 

ভিকটিম নিরুপায় হয়ে লালবাগ থানায় জিডি করেন এবং সাইবার ক্রাইম ইনভেস্টিগেশন ডিভিশনে অভিযোগ করেন। অভিযোগের ভিত্তিতে ডিজিটাল ফরেনসিক টিমের সহকারি পুলিশ কমিশনার জনাব ইশতিয়াক আহমেদ পিপিএম-সেবা অভিযোগটি তত্ত্বাবধান করেন। এস আই সুদীপ বাছাড় প্রাযুক্তিক বিশ্লেষণে এবং সহকারি পুলিশ কমিশনার জনাব ইশতিয়াক আহমেদ পিপিএম- সেবা এর সঠিক দিক নির্দশনায় প্রতারককে হবিগঞ্জে সনাক্ত করা হয়। প্রতারকের ব্যাপারে চট্টোগ্রাম সিটিটিসি ডিভিশনের সাথে যোগাযোগ করা হয়। চট্টোগ্রাম সিটিটিসির সহায়তায় প্রতারককে গ্রেপ্তার পূর্বক ডিজিটাল নিরাপত্তা আইনে মামলা দায়ের করা হয়। আসামীর নিকট হইতে হ্যাককৃত অসংখ্য ফেসবুক আইডি উদ্ধার করা হয়।
 
সোস্যাল মিডিয়া ব্যবহারে সতর্ক হোন এবং ইলেকট্রনিক  ডিভাইসে গোপনীয় ছবি ধারণ করা হতে বিরত থাকুন। আপনার ধারনকৃত ছবি,আপনার বিপদের কারণ হতে পারে।

প্রতারিত হলে সাথে সাথে থানায় জিডি করে সাইবার ক্রাইম ইনভেস্টিগেশন ডিভিশনে যোগাযোগ করুন।

তথ্যসুত্র : Cyber Crime Investigation Division, CTTC, DMP

পাঠকের মন্তব্য