ক্যারিবীয় দলে করোনার হানায় উদ্বিগ্ন নয় বিসিবি

ক্যারিবীয় দলে করোনার হানায় উদ্বিগ্ন নয় বিসিবি

ক্যারিবীয় দলে করোনার হানায় উদ্বিগ্ন নয় বিসিবি

বাংলাদেশে আসার আগমুহূর্তে করোনা হানা দিয়েছে ওয়েস্ট ইন্ডিজ দলে। বাংলাদেশ সফরের জন্য ঘোষিত দলের এক ক্রিকেটারই করোনার কারণে ছিটকে পড়েছেন। সফরকারী দলের সদস্য করোনা আক্রান্ত হলেও এ নিয়ে অবশ্য উদ্বিগ্ন নয় আয়োজক বোর্ড বিসিবি।

সম্প্রতি ক্যারিবীয় অলরাউন্ডার রোমারিও শেফার্ডের দেহে করোনা শনাক্ত হয়, যিনি ছিলেন বাংলাদেশের বিপক্ষে সফরকারীদের ওয়ানডে সিরিজের স্কোয়াডে। তার বদলি হিসেবে দলে নেওয়া হয়েছে পেসার কিওন হার্ডিংকে। সফরের আগমুহূর্তে সফরকারী এক ক্রিকেটারের করোনা আক্রান্তের খবর কিছুটা চিন্তায় ফেলার মতই। বায়োবাবল চলাকালে একজন ক্রিকেটারের দেহে করোনার উপস্থিতি পাওয়া গেলেই হুমকির মুখে পড়বে গোটা সিরিজ।

তবে বিসিবি এ নিয়ে চিন্তিত নয়, বাড়তি কোনো পদক্ষেপের তাড়নাও তাই নেই। বিসিবির ক্রিকেট অপারেশন্স কমিটির চেয়ারম্যান আকরাম খান বলেন, ‘নিয়মের মধ্যে যেটা আছে সেটাই থাকবে। আইসিসি একটা গাইডলাইন দিয়েছে, সাথে আমাদের সরকারও একটা গাইডলাইন দিয়েছেন। আমরা সেটার মধ্যেই থাকব।’

আকরাম জানান, ঘরোয়া দুই টুর্নামেন্টের অভিজ্ঞতা আন্তর্জাতিক সিরিজে বায়োবাবল তৈরির ক্ষেত্রে আত্মবিশ্বাস যোগাচ্ছে তাদের, ‘বায়োবাবল নিয়ে চিন্তিত ছিলাম। আল্লাহর রহমতে সফলভাবে দুইটা টুর্নামেন্ট সফলভাবে করেছি, এটা আমাদের জন্য বড় এক আত্মবিশ্বাস। তারপরও আমরা গুরুত্ব সহকারে দেখছি।’

বায়োবাবলের আগে বাংলাদেশের ক্রিকেটাররা নিজেদের মত সময় কাটিয়েছেন, সবাই একসাথে ঐচ্ছিক অনুশীলনও করেছেন। তবে প্রথম দফা করোনা পরীক্ষায় সবাই-ই ‘নেগেটিভ’ সনদ পেয়েছেন। আকরাম বলেন, ‘কোভিড টেস্ট দুই-একদিন ধরেই চলছে, আগামীকালও হবে চূড়ান্ত টেস্ট। সেখানে যারা নেগেটিভ আসবে তারা তো ভালো, যারা পজিটিভ হবে তাদের জন্য যা ব্যবস্থা করার তা করা হবে। আল্লাহর রহমতে সবাই ভালো আছে।’

এদিকে নতুন ব্যাটিং কোচ জন লুইসের ব্যাপারে আকরাম জানিয়েছেন, করোনা টেস্টে নেগেটিভ হলে তার কোয়ারেন্টিন শিথিলের জন্য সরকারের কাছে আবেদন করা হবে।

পাঠকের মন্তব্য