কক্সবাজারের ৬২ অবৈধ ইটভাটা উচ্ছেদে অভিযান শুরু

কক্সবাজারের ৬২ অবৈধ ইটভাটা উচ্ছেদে অভিযান শুরু

কক্সবাজারের ৬২ অবৈধ ইটভাটা উচ্ছেদে অভিযান শুরু

কক্সবাজারে বিভিন্ন এলাকায় বাড়ছে অবৈধ ইটভাটা। বিদ্যমান ১১১ টি ইটভাটার ৬৮ টিই অনুমোদনহীন। পরিপূর্ণ বৈধতা আছে মাত্র ৪৩ টি ইটভাটার। তাহলে  ৬৮ টি অবৈধ ইট ভাটা এতদিন পর্যন্ত চলে আসছে কিভাবে এটাই প্রশ্ন। নিয়মনীতি না মেনেই অবৈধভাবে গড়ে ওঠা ইটভাটার কালো ধোঁয়ায় বিপন্ন হচ্ছে পরিবেশ। অবৈধভাবে কৃষি জমিতে ইটভাটা তৈরির কারণে কমছে চাষাবাদের জমি। 

এছাড়া, ইট পোড়ানোর কাজে জ্বালানি হিসেবে কাঠ ব্যবহারে কমছে গাছ। ফলে বিরান ভূমিতে পরিণত হচ্ছে বনাঞ্চল। পরিবেশ অধিদপ্তর বলছে কক্সবাজারের ৬১.২৬ শতাংশ ইটভাটার পরিবেশগত ছাড়পত্র নেই। যদিও উচ্চ আদালতে রীট করে কিছু কাগজপত্র সৃজনের মাধ্যমে চলছে এ সব ইটভাটা।অবশেষে এসব অবৈধ ইটভাটা বন্ধে অভিযান শুরু করেছে পরিবেশ অধিদপ্তর

আজ সোমবার (১১ ডিসেম্বর) সকালে কক্সবাজারের রামু থেকে এ অভিযান শুরু হয়। অভিযানে নেতৃত্ব দিচ্ছেন পরিবেশ অধিদপ্তরের সিনিয়র সহকারী সচিব ও নির্বাহী ম্যাজিষ্ট্রেট সাদিকুর রহমান সবুজ।

তিনি জানান, পরিবেশ ছাড়পত্র ও ইট পুড়ানোর ছাড়পত্র না থাকায় অবৈধ ইটভাটা ধ্বংসে দেশব্যাপী অভিযান চলছে। এর অংশ হিসেবে কক্সবাজারেও অভিযান শুরু হয়েছে। পর্যায়ক্রমে সকল অবৈধ ইটভাটার বিরুদ্ধে অভিযান অব্যাহত থাকবে।

কক্সবাজারের পরিবেশ বিষয়ক স্বেচ্ছাসেবী সংগঠন এনভারয়নমেন্ট পিপল এর প্রধান নির্বাহী রাশেদুল মজিদ বলেন, কক্সবাজারে তিনভাগের দুইভাগ ইটভাটা অবৈধ। পরিবেশ ছাড়পত্র ছাড়া দীর্ঘদিন ধরে এসব ইটভাটা কার্যক্রম চালিয়ে আসছে। এসব ইটভাটা মারাত্মক ভাবে পরিবেশ দূষণ করছে। কিন্তু স্থানীয় প্রশাসন এসব ইটভাটা বন্ধে আন্তরিক ছিলেন না।

অভিযানে কক্সবাজার পরিবেশ অধিদপ্তর সহ র‌্যাব, পুলিশ ও ফায়ার ব্রিগেড এর সদস্যরা উপস্থিত ছিলেন।

পাঠকের মন্তব্য