নির্বাচনী বিধি ভেঙ্গে শাস্তির মুখে পড়লেন তিন প্রার্থী

নির্বাচনী বিধি ভেঙ্গে শাস্তির মুখে পড়লেন তিন প্রার্থী

নির্বাচনী বিধি ভেঙ্গে শাস্তির মুখে পড়লেন তিন প্রার্থী

নির্বাচনী বিধি ভঙ্গের দায়ে দেশে শাস্তির মুখে পড়লেন তিন প্রার্থী। ভ্রাম্যমাণ আদালতে অভিযোগ প্রমাণিত হওয়ায় মোটা অঙ্কের জরিমানা করা হল সিরাজগঞ্জ ও উল্লাসপাড়া পুর এলাকার ওই তিনজনকে। সোমবার এবং রবিবার রাতে তাঁরা নির্বাচনী বিধি ভেঙে মাইকে প্রচার চালাচ্ছিলেন বলে অভিযোগ। তা জানতে পেরে সঙ্গে সঙ্গে হানা দেয় ভ্রাম্যমাণ আদালত। হাতেনাতে ধরা হয় উল্লাসপাড়ার দুই কাউন্সিলর প্রার্থী এবং সিরাজগঞ্জের এক প্রার্থীকে। তিনজনকেই মোটা অঙ্কের জরিমানা দিতে হয়েছে আদালতের কাছে।

করোনা পরিস্থিতিতে বাংলাদেশে কয়েক দফায় চলছে পুরনির্বাচন। বিধি অনুযায়ী, রাত আটটার পর মাইক বাজিয়ে প্রচার নিষিদ্ধ। কিন্তু সোমবার রাতে সিরাজগঞ্জ পুর এলাকার ৩ নং ওয়ার্ডের কাউন্সিলর প্রার্থী খাজা বিপুল মাইকিং করে প্রচার করছিলেন। নির্বাচনী আচরণবিধি ভঙ্গের অভিযোগে ভ্রাম্যমাণ আদালত তাঁকে ৫০০০ টাকা জরিমানা করে। অন্যদিকে, উল্লাসপাড়ার ৬ নং ওয়ার্ডের কাউন্সিলর প্রার্থী মনোয়ার হোসেন এবং ৭ নং ওয়ার্ডের জানে আলমও একইভাবে নির্বাচনী বিধিভঙ্গ করেছেন বলে অভিযোগ। রাত আটটার পর মাইকে প্রচার করায় ভ্রাম্যমাণ আদালত তাঁদের দু’জনকে ১০ হাজার টাকা করে জরিমানা করে।

পরপর দু’দিন এ ধরনের অভিযোগ শুনে সক্রিয় হয়ে উঠেছে বাংলাদেশের ভ্রাম্যমাণ আদালত। এই আদালত পরিচালনা করেন সদর উপজেলার সহকারী কমিশনার (ভূমি) মহম্মদ রহমতউল্লাহ। তাঁর সঙ্গে উপস্থিত ছিলেন সদর থানার পুলিশ সদস্য ও উপজেলা ভূমি কার্যালয়ের কর্মকর্তা ও কর্মচারীরা। সকলের সহায়তায় অন্যায়ের দ্রুত বিচার সম্ভব হচ্ছে বলে জানাচ্ছেন তাঁরা। সুষ্ঠুভাবে পুর নির্বাচন সম্পন্ন করতেও দেশজুড়ে চলছে ভ্রাম্যমাণ আদালতের নজরদারি। ডিসেম্বরের ২৮ তারিখ থেকে শুরু হয়েছে পুর নির্বাচন। চলবে ফেব্রুয়ারি পর্যন্ত। তারই মধ্যে অবশ্য সিরাজগঞ্জ এবং উল্লাসপাড়ায় প্রার্থীদের মধ্যে বিধিভঙ্গে প্রবণতায় অসন্তোষ তৈরি হচ্ছে দেশবাসীর মধ্যে।

পাঠকের মন্তব্য