বিএনপি নেতার গাড়িতে হামলা; দোকান ভাংচুর, গ্রেফতার ১

বিএনপি নেতার গাড়িতে হামলা; দোকান ভাংচুর, গ্রেফতার ১

বিএনপি নেতার গাড়িতে হামলা; দোকান ভাংচুর, গ্রেফতার ১

প্রধানমন্ত্রীর গাড়িবহরে হামলা মামলার প্রধান আসামি বিএনপির কেন্দ্রীয় প্রচার ও প্রকাশনা সম্পাদক ও সাতক্ষীরা জেলা বিএনপির সাবেক সভাপতি এবং সাবেক এমপি হাবিবুল ইসলাম হাবিবের উপর উপর হা’ম’লা চালিয়েছে দলীয় নেতাকর্মীরা। বুধবার (২৭জানুয়ারী) সকাল সাড়ে ১০টার দিকে স্থানীয় বিএনপির দুগ্রুপের অভ্যন্তরীন কোন্দলের কারণে ওই হামলার ঘটনা ঘটে বলে এলাবাসীর দাবি। 

একটি সূত্রে জানা গেছে, বাংলাদেশ আওয়ামী লীগের সভানেত্রী তৎকালীন বিরোধীদলীয় নেতা বর্তমান প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনার গাড়ি বহরে হামলা মামলায় ২৭ জানুয়ারি যুক্তিতর্কের শেষ দিনে সাতক্ষীরা আদালতে হাজির দিতে তালা-কলারোয়া আসনের সাবেক এমপি ও জেলা বিএনপির সাবেক সভাপতি হাবিবুল ইসলাম হাবিব নিজ প্রাইভেটকারে সকালে কলারোয়ার বাড়ি থেকে রওনা হয়ে কলারোয়া জিকেএমকে পাইলট হাইস্কুলের সামনে পৌছালে কলারোয়া পৌরসভার গদখালী গ্রামের মফিজুল ইসলামের ছেলে রাজন (২৫) এর নেতৃত্বে ৭/৮ জন দলীয় নেতাকর্মী তার গাড়ি থামিয়ে ভাংচুর শুরু করে। 

এসময় ঘটনাস্থলে উপস্থিত থাকা প্রধানমন্ত্রীর গাড়ি বহরে হামলা মামলার অপর আসামী গাজী আক্তারুল ইসলাম হামলাকারীদের থামিয়ে দেন বলে জানা গেছে। এব্যাপারে কলারোয়ায় বিএনপির দুই গ্রুপের মধ্যে উত্তেজনা বিরাজ করছে। এবিষয়ে গোয়েন্দা সংস্থার একজন কর্মকর্তা বলেন, বিএনপির অভ্যন্তরীন কোন্দলের জেরে ওই হামলার ঘটনা ঘটেছে। রাজন নামের বিএনপির স্থানীয় এক নেতার নেতৃত্বে ৭/৮ জন সাবেক এমপি হাবিবুল ইসলামের প্রাইভেট কারে হামলা করে। তবে এতে কেউ হতাহত হয়নি বলে জানান তিনি। পরে এঘটনাকে কেন্দ্র করে সাবেক এমপি হাবিবের পক্ষে নিয়ে একদল নেতা কর্মী ঝিকরা রাজিব এর মুদি দোকানের সামনে হট্টোগোল শুরু করে। পরে তাদের মধ্যে ঠেলাঠেলির মধ্যে রাজিব এর মুদি দোকান ভাংচুর হয়। 

এঘটনা তিনি থানায় একটি অভিযোগ দিয়ে পুলিশ ঘটনা স্থান থেকে মাসুদ নামে এক যুবককে গ্রেফতার করে। এবিষয়ে কলারোয়া থানার অফিসার ইনচার্জ মীর খায়রুল কবির বলেন, বিএনপির দুই গ্রুপের হামলার ঘটনা ঘটেছে। এঘটনার পর থেকে বাজারে পুলিশি টহল জোরদার করা হয়েছে।

পাঠকের মন্তব্য