প্রেমের টানে রংপুরে আসা ভারতীয় তরুণীসহ ৩ জনকে আটক

প্রেমের টানে রংপুরে আসা ভারতীয় তরুণীসহ ৩ জনকে আটক

প্রেমের টানে রংপুরে আসা ভারতীয় তরুণীসহ ৩ জনকে আটক

অবৈধভাবে দেশে আসা ভারতীয় এক কিশোরীসহ তিনজনকে আটক করেছে রংপুর সদর কোতয়ালি থানা পুলিশ। শনিবার (২৬ জুন) দুপুরে রংপুরের মিঠাপুকুর উপজেলার রানীপুকুর ইউনিয়নের নূরপুর বালাপাড়া এলাকার লতিফুল ইসলামের বাড়ি থেকে তাদের গ্রেফতার করা হয়।

রোববার (২৭ জুন) দুপুরে প্রেমিক মিলন ও তার সহযোগীসহ ওই কিশোরীকে রংপুর আদালতে হাজির করা হয়। আটক ভারতীয় কিশোরী প্রীতি পন্ডিতের বাড়ি ভারতের কলকাতার হুগলি জেলায় বলে জানা গেছে। তার সঙ্গে আটক হওয়া বাংলাদেশী নাগরিক মো. মিলন ও হাবিবুর রহমান পাচারকারী বলে জানিয়েছে পুলিশ। তাদের বাড়ি রংপুর সদরের সদ্যপুস্করিনী ইউনিয়নের নয়াপুকুর ফাজিলখা এলাকায়।

রংপুর সদর কোতোয়ালি থানার পুলিশ অফিসার এস.আই জাহাঙ্গীর আলম আমাদের এ প্রতিবেদককে জানান, ভারতের কলকাতার হুগলি জেলার মন্টু পন্ডিতের মেয়ে প্রীতি পন্ডিতের (১৭) সঙ্গে রংপুর সদর উপজেলার সদ্যপুস্করিণী ইউনিয়নের মহির উদ্দিনের ছেলে মিলনের পরিচয় সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যম ফেসবুকে। এরপর দুজনের মধ্যে গড়ে ওঠে প্রেমের সম্পর্ক। সেই টানে গত ২৪ জুন ভারত থেকে যশোরের বেনাপোল সীমান্ত দিয়ে পালিয়ে বাংলাদেশ আসে প্রীতি। গত কয়েকদিন ধরে সদ্যপুস্করিণী ইউনিয়নের পালিচড়া ফাজিল খা গ্রামে মিলনের বাড়িতে অবস্থান করছিল সে। 

এসআই আরও জানান, খবর পেয়ে শনিবার দুপুরে অভিযানে নামে পুলিশ। তবে পুলিশের অভিযানের খবর পেয়ে পালিয়ে যায় তারা। পরে মিলন ও তার এক সহযোগী একই গ্রামের বাবলু মিয়ার ছেলে হাবিবুর রহমানকে পার্শ্ববর্তী মিঠাপুকুর উপজেলার রানী পুকুর ইউনিয়নের নূরপুর বালাপাড়া এলাকার লতিফুল ইসলামের বাড়ি থেকে গ্রেফতার করা হয়। এ সময় গ্রেফতার করা হয় প্রীতি পন্ডিতকেও।

রংপুর সদর কোতোয়ালি থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (ওসি) মোস্তাফিজুর রহমান সাংবাদিকদের জানান, এ ঘটনায় থানার এসআই জাহাঙ্গীর আলম বাদী হয়ে মানবপাচার আইনে তিনজনকে আসামি করে একটি মামলা দায়ের করেছেন। প্রাথমিক জিজ্ঞাসাবাদ শেষে গ্রেফতার তিনজনকে আদালতে পাঠানো হয়েছে বলেও তিনি নিশ্চিত করেন।

পাঠকের মন্তব্য