বাংলা বিভাগের নতুন বিভাগীয় প্রধান অধ্যাপক মনিরুজ্জামান

বাংলা বিভাগের নতুন বিভাগীয় প্রধান অধ্যাপক মনিরুজ্জামান

বাংলা বিভাগের নতুন বিভাগীয় প্রধান অধ্যাপক মনিরুজ্জামান

আগামী তিন বছরের জন্য তৃতীয় বারের মতো কুমিল্লা বিশ্ববিদ্যালয়ের (কুবি) কলা ও মানবিক অনুষদের বাংলা বিভাগের বিভাগীয় প্রধান হিসেবে দায়িত্ব গ্রহণ করেছেন অধ্যাপক ড. জি. এম মনিরুজ্জামান। সোমবার (২৭ জুন) বিশ্ববিদ্যালয়ের রেজিস্ট্রার (অতিরিক্ত দায়িত্ব) অধ্যাপক ড. মো. আবু তাহেরের স্বাক্ষরিত এক অফিস আদেশের মাধ্যমে এ তথ্য জানানো হয়। 

অফিস আদেশে বলা হয়, 'কুমিল্লা বিশ্ববিদ্যালয় বাংলা বিভাগের বিভাগীয় প্রধান মুহাম্মদ শামসুজ্জামান মিলকী'র মেয়াদ পূর্ন হওয়ায় কুমিল্লা বিশ্ববিদ্যালয় আইন এর ধারা ২৪(২) মোতাবেক উক্ত বিভাগের অধ্যাপক ড. জি. এম মনিরুজ্জামানকে নির্দেশক্রমে বিভাগীয় প্রধানের দায়িত্ব দেয়া হল। এ আদেশ যোগদানের তারিখ থেকে কার্যকর হবে।'

 অধ্যাপক ড. জি. এম মনিরুজ্জামান নতুন দায়িত্ত্বের ব্যাপারে বলেন, 'তৃতীবারের মতো দায়িত্ব পেলাম। বিভাগের শুরুর দিকে প্রথম দায়িত্ব পেয়েছিলাম। আমাকে আবারো দায়িত্ব দেয়ার জন্য বিশ্ববিদ্যালয়কে, মাননীয় উপাচার্য স্যারকে ধন্যবাদ। প্রথমবার আমি যেসব শিক্ষার্থীদের পেয়েছিলাম তাদের থেকে বর্তমানের শিক্ষার্থীরা আরো বেশি স্মার্ট, নিজেদের দায়িত্ব নিতে জানে। বর্তমানে করোনার সময় চলছে। কিন্তু বিভাগের শিক্ষার্থীরা যাতে কোন সমস্যা ছাড়াই তাদের বিশ্ববিদ্যালয় জীবন দ্রুত এবং সুষ্ঠভাবে শেষ করতে পারে সেরকম উদ্যোগ নিতে আমি সর্বদা সচেষ্ট থাকবো।'

বিভাগীয় প্রধান হিসেবে দায়িত্ব পাওয়ার পর সদ্য সাবেক হওয়া বিভাগীয় প্রধান মুহাম্মদ শামসুজ্জামান মিলকী অধ্যাপক ড. জি. এম মনিরুজ্জামানকে ফুল দিয়ে বরণ করে নেন। এ সময় বিভাগের অন্যান্য শিক্ষকদের মধ্যে সহযোগী অধ্যাপক ড. তসলিমা খাতুন, ড. মো: মোকাদ্দেস-উল-ইসলাম বিদ্যুৎ, সহকারী অধ্যাপক সুমাইয়া আফরিন সানি ও নূর মোহাম্মদ রাজু উপস্থিত ছিলেন।

বাংলা বিভাগের বিভাগীয় প্রধান ছাড়াও তিনি বিশ্ববিদ্যালয়ের ছাত্র পরামর্শক ও নির্দেশনা কার্যালয়ের পরিচালক হিসেবে নিয়োজিত আছেন।

প্রসঙ্গত, অধ্যাপক ড. জি. এম মনিরুজ্জামান ২০০৫ সালে বঙ্কিমচন্দ্র চট্টোপাধ্যায়ের ঐতিহাসিক উপন্যাসের উপর পিএইচডি ডিগ্রি লাভ করেন। বর্তমানে তার গবেষণা প্রকাশনা আছে ৪১টি। বই আছে ৩ টি। বর্তমানে তিনি আদিবাসীদের জীবন-ভাষা-সংস্কৃতি নিয়ে গবেষণা করছে।

পাঠকের মন্তব্য