লক্ষীপুরে ব্যবসায়ীর নতুন বাইক পুড়িয়ে দিল দূলর্বৃত্তরা 

লক্ষীপুরে ব্যবসায়ীর নতুন বাইক পুড়িয়ে দিল দূলর্বৃত্তরা 

লক্ষীপুরে ব্যবসায়ীর নতুন বাইক পুড়িয়ে দিল দূলর্বৃত্তরা 

ভাগ্যের ফেরে ভাগ্য যখন দূর্ভাগ্য হয়ে দাঁড়ায়,তখন নির্মম স্বপ্ন হারিয়ে যায় বাস্তবতার মগডালে।ভাগ্যকে সবাই তাইতো সবসময় পাশে পায়না, আর তাই দূর্ভাগ্যকেই করতে হয় বরন আপন হাতে। এরকমই এক নির্মমতার শিকার এক ব্যবসায়ী, বাড়ি তার লক্ষীপুর জেলার সদর ইউনিয়নে।

সাইফুল ইসলাম মোহন।পেশায় একজন আড়তদার ও মুদি ব্যবসায়ী। ব্যবসায়িক কাজ দ্রুত সম্পন্ন করার জন্য প্রায় দুই লক্ষ টাকায় কিনেন মোটর বাইক। কিন্তু দুবৃর্ত্তগ দের দেয়া আগুনে পুড়লো ব্যবসায়ীর স্বপ্ন। অগ্নিকান্ডে জলসে যাওয়া মোটর বাইকের পাশে কান্নায় ভেঙ্গে পড়েন তিনি। অল্পের জন্য বসতঘরে বড় দুর্ঘটনা থেকেও রক্ষা পান তাঁর পরিবার, এঘটনায় চন্দ্রগঞ্জ থানায় একটি লিখিত অভিযোগ দায়ের করেন তিনি। আজ এমনটিই জানালেন ক্ষতিগ্রস্থ ব্যবসায়ী মোহন।

সোমবার ভোররাতে লক্ষ্মীপুর সদর উপজেলার বশিকপুর ইউনিয়নের দপাদার বাড়িতে এ ঘটনা ঘটে। ক্ষতিগ্রস্ত ব্যবসায়ী মোহন বশিকপুর বাজারের ব্যবসায়ী ও দপাদার বাড়ীর হারুনুর রশীদের ছেলে।

প্রত্যক্ষদর্শী ও অভিযোগকারী সূত্রে জানা যায়, ঘটনার সময় প্রতিদিনের মত মোহন পরিবার নিয়ে ঘুমিয়ে ছিলো। এসময় আগুনে পোড়ার শব্দ শুনে ক্ষতিগ্রস্থের স্ত্রী মুন্নি আক্তার জোরেশোরে চিৎকার শুরু করে। পরে স্থানীয়রা এগিয়ে এসে আগুন নিয়ন্ত্রনে আনলেও ততক্ষণে তাঁর মোটর বাইকসহ বেশ কিছু আসবাবপত্র পুড়ে যায়। এতে তাঁর দুই লাখ টাকারও বেশি ক্ষয় ক্ষতি হয় বলে দাবি করেন ব্যবসায়ী মোহন।

এদিকে এর আগেও একই কায়দায় মোহনের আরেকটি মোটর সাইকেলে আগুন দেয় দুবৃর্ত্তরা। তবে এসব ঘটনায় পুলিশ এখনো কাউকে আটক করতে পারেনি। এনিয়ে স্থানীয়দের মাঝে তীব্র ক্ষোভ বিরাজ করছে বলে জানালেন বশিকপুর বাজার ব্যবসায়ী সমিতির একাধিক সদস্য। চন্দ্রগঞ্জ থানার ওসি একে ফজলুল হক জানালেন, বিষয়টি খতিয়ে দেখা হচ্ছে।

পাঠকের মন্তব্য