দাদু ভাইয়ের মৃত্যুতে সাব—এডিটরস কাউন্সিলের শোক

সাব—এডিটরস কাউন্সিলের শোক

সাব—এডিটরস কাউন্সিলের শোক

দেশ বরেণ্য ছড়াকার, চাঁদের হাটের প্রতিষ্ঠাতা, দৈনিক যুগান্তরের ফিচার এডিটর, প্রবীণ সাংবাদিক  রফিকুল হক দাদু ভাইয়ের মৃত্যুতে গভীর শোক প্রকাশ করেছেন ঢাকা সাব—এডিটরস কাউন্সিলের সভাপতি মামুন ফরাজী ও সাধারণ সম্পাদক আবুল হাসান হৃদয়। এক বিবৃতিতে নেতৃদ্বয় বলেন, দাদু ভাই ইতিহাসের সাক্ষী। তিনি আমাদের অভিভাবক ছিলেন। তার হাতে বিকশিত হয়েছে শিশুসাহিত্য। তার মৃত্যুতে আমরা অভিভাবক হারিয়েছি।

বিবৃতিতে নেতৃদ্বয় মরহুমের শোক সন্তপ্ত পরিবারের প্রতি সমবেদনা প্রকাশ করেন।

আজ রবিবার বেলা পৌনে ১১টার দিকে রাজধানীর মুগদার নিজ বাসায় তিনি মৃত্যুবরণ করেন। তার বয়স হয়েছিল ৮৫ বছর। রফিকুল হক বার্ধক্যজনিত নানা জটিলতায় ভুগছিলেন। গত বছর পর পর দুবার করোনা ভাইরাসে আক্রান্ত হয়ে হাসপাতালে ভর্তি ছিলেন তিনি। সুস্থ হয়ে কর্মস্থল যুগান্তরে যোগ দিলেও বার্ধক্যসহ নানা জটিলতায় ছয় মাস আগে মুগদার বাসায় পুরোপুরি শয্যাশায়ী হয়ে পড়েন তিনি। মৃত্যুর আগে তিনি স্ট্রোক করেন।

বাংলা শিশুসাহিত্যে গুরুত্বপূর্ণ অবদানের জন্য রফিকুল হক দাদুভাই ২০০৯ সালে বাংলা একাডেমি পুরস্কার, একই বছর বাংলাদেশ শিশু একাডেমি পুরস্কার, অগ্রণী ব্যাংক শিশুসাহিত্য পুরস্কার, চন্দ্রাবতী একাডেমি পুরস্কার, নিখিল ভারত শিশুসাহিত্য পুরস্কারসহ দেশে ও দেশের বাইরে বিভিন্ন পুরস্কার লাভ করেন।

ঢাকা সাব—এডিটরস কাউন্সিলের সদস্য রফিকুল হক দাদুভাইয়ের জন্ম ১৯৩৭ সালের ৮ জানুয়ারি। তার গ্রামের বাড়ি রংপুরের কামালকাচনায়। তার দুই ছেলে এক মেয়ে। বড় ছেলে দেশের বাইরে থাকেন।

পাঠকের মন্তব্য