উখিয়ার পালংখালীর মেম্বার প্রার্থী ফয়েজের নির্বাচনী জনসভা

উখিয়ার পালংখালীর মেম্বার প্রার্থী

উখিয়ার পালংখালীর মেম্বার প্রার্থী

নির্বাচন কমিশনের ঘোষিত তপসিল মতে দ্বিতীয় ধাপে উখিয়ার উপজেলার পালংখালীতে জমে উঠেছে মেম্বার প্রার্থীদের নির্বাচনী প্রচার, গণসংযোগ, জনসভা, উঠান বৈঠকসহ চলছে ভোটারদের বাড়ি বাড়ি ভোট প্রার্থনা। তবে নানা কৌশলে এই ইউনিয়নে প্রচার-প্রচারণায় এগিয়ে রয়েছেন জনগণের মনোনীত ৮ নং ওয়ার্ডের তালা মার্কার মেম্বার প্রার্থী বিশিষ্ট শিক্ষানুরাগী ও জনবান্ধব সমাজ সেবক তরুণ জননেতা ফয়েজুল ইসলাম।

নির্বাচনে মেম্বার প্রার্থী ফয়েজুল ইসলামকে বিজয় করতে মাঠে নেমেছেন দলমত নির্বিশেষে সর্বস্তরের শ্রেনী পেশার মানুষ।তার সমর্থনে বৃদ্ধ থেকে শুরু করে তরুণ ও যুবকরা ওয়ার্ডের বিভিন্ন পাড়া-মহল্লায় প্রচার-প্রচারণা ও ভোট প্রার্থনা এবং গনসংযোগ চালিয়ে যাচ্ছেন। এ ক্ষেত্রে তার সমর্থক নারীরাও পিছিয়ে নেই। গণসংযোগ করার পাশাপাশি নিত্যদিন কোন না কোন ওয়ার্ডের মহল্লায় নির্বাচনী উঠান সভা করে চলেছেন তরুণ জননেতা ফয়েজুল ইসলাম।

৮ নং ওয়ার্ডের বিভিন্ন পাড়া-মহল্লায় এবং অলিগলিতে গণসংযোগ করে ব্যস্ত সময় পার করছেন তালা মার্কার মেম্বার প্রার্থী ফয়েজুল ইসলাম।

এদিকে, সোমবার দিনব্যাপী গণসংযোগ ও পথমিছিল শেষে ওইদিন রাতে ৮নম্বর ওয়ার্ডের পালংখালী উচ্চ বিদ্যালয় মাঠে নির্বাচনী এক বিশাল জনসভা অনুষ্ঠিত হয়। এই নির্বাচনী জনসভায় হাজার হাজার মানুষ দলে দলে এসে নির্বাচনী জনসভাকে জনসমুদ্রে পরিণত করেছে।

নির্বাচনী জনসভায় মেম্বার প্রার্থী ফয়েজুল ইসলাম তার বক্তব্যে বলেন, আজ যেখানে দাঁড়িয়ে আছি এটি ছিল অঁজোপাড়া একটি জনপদ। এ জনপদকে মানুষের বাসযোগ্য ও আলোকিত হিসেবে গড়ে তুলেছেন আমার শ্রদ্বেয় মরহুম পিতা বীর মুক্তিযোদ্ধা সিরাজুল ইসলাম মেম্বার।আজ তিনি বেঁচে নেই। কিন্ত তার রেখে যাওয়া নানা স্মৃতিচিহ্ন এখনো বিদ্যমান রয়েছে।আমি তারই একজন সন্তান। মৃত্যুর পূর্ব মুহুর্ত পর্যন্ত আমার বাবা এখানকার মানুষের দু:খ-দুর্দশা কথা চিন্তা করতো। তিনি এই জনপদের মানুষকে পরিচিত লাভ করতে এবং তাদের সন্তানদের আদর্শিক সুনাগরিক ও সুশিক্ষিত হিসেবে গড়ে তুলতে প্রতিষ্ঠিত করে গেছেন শিক্ষা প্রতিষ্ঠান।

মেম্বার প্রার্থী আরও বলেন, সমাজে পিছিয়ে থাকা এই ৮ নং ওয়ার্ডের জনপথ সহ অবকাঠামো উন্নয়নের মাধ্যমে সাজানো হবে। উন্নয়নের ক্ষেত্রে কোন ধরণের বৈষম্য করা হবে না।ওয়ার্ডের মানুষের দূরগোড়ায় শতভাগ সেবা নিশ্চিতে যা যা করণীয় তা নিরুপণ করে সেবা দেওয়া হবে। তিনি মাদক ও সস্ত্রাস মুক্ত একটি মডেল ওয়ার্ড উপহার দিতে এবারের নির্বাচনে তাকে বিপুল ভোটে বিজয়ী করার জন্য আহবান জানান।

উঠান সভায় বিভিন্ন বক্তারা বলেছেন, নির্বাচনে শুধুমাত্র অংশ নিয়েছেন ফয়েজুল ইসলাম। এখনো মেম্বার নির্বাচিত হয়নি, তিনি মেম্বার নির্বাচিত হওয়ার পূর্বেই অনেক উন্নয়নমূলক কাজ করেছেন,গরীব-দুঃখী মানুষের পাশে ছিলেন।৮ নং ওয়ার্ডের মানুষ তাকে মেম্বার হিসেবে পেলে ওয়ার্ডের সম্পূর্ণ চিত্র পাল্টে যাবে। তার নিষ্টা, সততা, কর্মদক্ষতা যাচাই করে যোগ্য প্রার্থী হিসেবে সঠিক কাজে সাহসী ভুমিকার জন্য ৮ নং ওয়ার্ডের ভোটারগন তাকে বিপুল ভোটে বিজয়ী করবেন বলে আশাবাদ ব্যক্ত করেন বক্তারা।

পাঠকের মন্তব্য