ভূরুঙ্গামারীর সাতটি ইউপিতে ভোট কাল ১১ নভেম্বর

ভূরুঙ্গামারীর সাতটি ইউপিতে ভোট কাল ১১ নভেম্বর

ভূরুঙ্গামারীর সাতটি ইউপিতে ভোট কাল ১১ নভেম্বর

কুড়িগ্রামের ভূরুঙ্গামারীর সাতটি ইউনিয়ন পরিষদের নির্বাচন অনুষ্ঠিত হবে আগামীকাল ১১ নভেম্বর। অনুষ্ঠিতব্য নির্বাচনকে ঘিরে জমে ওঠেছে প্রচার প্রচারণা। শেষ সময়েও নির্বাচনী প্রচারে ব্যস্ত সময় পার করছেন প্রার্থীরা। সকাল থেকে গভীর রাত পর্যন্ত ঘুরছেন ভোটারদের দ্বারে দ্বারে সেইসঙ্গে দিচ্ছেন নানা প্রতিশ্রুতি।  

মিছিল-মিটিং, পথসভা, উঠান বৈঠক ও গণসংযোগসহ সাতটি ইউনিয়নেরই হাট বাজারে, চা স্টলে চলছে নির্বাচনী আলাপ-আলোচনা। চেয়ারম্যান প্রার্থীদের সঙ্গে পাল্লা দিয়ে সাধারণ সদস্য ও সংরক্ষিত নারী সদস্যরাও রাত দিন ভোটারদের বাড়ি বাড়ি ঘুরে ভোট প্রার্থনা করছেন। প্রতিটি গ্রামের অলিগলিতে ব্যানার, পোস্টার ও লিফলেটে ছেয়ে গেছে। সব মিলিয়ে জমে উঠেছে নির্বাচনী প্রচার-প্রচারণা।

উপজেলা নির্বাচন অফিস সূত্রে জানা গেছে, আসন্ন ইউনিয়ন পরিষদ নির্বাচনে আন্ধারীঝাড় ইউনিয়ন পরিষদের চেয়ারম্যান পদে আওয়ামী লীগের ফজলুল হক মন্ডল নৌকা, ইসলামী আন্দোলন বাংলাদেশের সোলায়মান আলী হাতপাখা, জাতীয় পার্টির জাবেদ আলী মন্ডল লাঙ্গল, স্বতন্ত্র প্রার্থী সামিউল আলম আনারস, রাজু আহম্মেদ খোকন ঘোড়া ও এটিএম গাজিউর রহমান মোটরসাইকেল প্রতীকে প্রতিদ্বন্দ্বিতা করছেন। সংরক্ষিত মহিলা সদস্য পদে ১৪ জন এবং সাধারণ সদস্য পদে ৩০ জন প্রার্থী প্রতিদ্বন্দ্বিতা করছেন।

জয়মনিরহাট ইউনিয়ন পরিষদের চেয়ারম্যান পদে আওয়ামী লীগের সাখাওয়াৎ হোসেন নৌকা, ইসলামী আন্দোলন বাংলাদেশের আনোয়ার হোসেন হাতপাখা, স্বতন্ত্র প্রার্থী আব্দুল ওয়াদুদ মোটরসাইকেল, জাহাঙ্গীর আলম ঘোড়া ও গোলাম রব্বানী তালুকদার আনারস প্রতিদ্বন্দ্বিতা করছেন। সংরক্ষিত সদস্য পদে ১১ জন এবং সাধারণ সদস্য পদে ২৫ জন প্রার্থী প্রতিদ্বন্দ্বিতা করছেন।

তিলাই ইউপিতে চেয়ারম্যান পদে আওয়ামী লীগের কামরুজ্জামান নৌকা, ইসলামী আন্দোলন বাংলাদেশের জিয়াউল হক হাতপাখা ও স্বতন্ত্র প্রার্থী একেএম ফরিদুল হক ঘোড়া প্রতীকে প্রতিদ্বন্দ্বিতা করছেন। সংরক্ষিত সদস্য পদে ১০ জন এবং সাধারণ সদস্য পদে ৩০ জন প্রার্থী প্রতিদ্বন্দ্বিতা করছেন।

বঙ্গসোনাহাট ইউপিতে চেয়ারম্যান পদে আওয়ামী লীগের মায়নুল ইসলাম নৌকা, জাতীয় পার্টির শাজাহান আলী মোল্লা লাঙ্গল, ইসলামী আন্দোলন বাংলাদেশের মাইদুল ইসলাম হাতপাখা ও স্বতন্ত্র প্রার্থী মোহাম্মদ আলী মন্ডল চশমা প্রতীকে প্রতিদ্বন্দ্বিতা করছেন। সংরক্ষিত মহিলা সদস্য পদে ১৩ জন এবং সাধারণ সদস্য পদে ২৬ জন প্রার্থী প্রতিদ্বন্দ্বিতা করছেন।

পাইকেরছড়া ইউনিয়ন পরিষদের চেয়ারম্যান পদে আওয়ামী লীগের ফারুখ আহমেদ নৌকা, ইসলামী আন্দোলন বাংলাদেশের রফিকুল ইসলাম হাতপাখা, জাতীয় পার্টির আব্দুর রাজ্জাক সরকার লাঙ্গল ও স্বতন্ত্র প্রার্থী সোলায়মান আলী ঘোড়া প্রতীকে প্রতিদ্বন্দ্বিতা করছেন। সংরক্ষিত সদস্য পদে ১২ জন এবং সাধারণ সদস্য পদে ২৭ জন প্রতিদ্বন্দ্বিতা করছেন।

চর ভূরুঙ্গামারী ইউপিতে চেয়ারম্যান পদে আওয়ামী লীগের এনামুল ইসলাম (রোকন) নৌকা, ইসলামী আন্দোলন বাংলাদেশের মানিক উদ্দিন হাতপাখা, জাতীয় পার্টির জাহাঙ্গীর আলম লাঙ্গল, স্বতন্ত্র প্রার্থী এটিএম ফজলুল হক ঘোড়া ও মিজানুর রহমান আনারস প্রতীকে প্রতিদ্বন্দ্বিতা করছেন। সংরক্ষিত মহিলা সদস্য পদে ১২ জন এবং সাধারণ সদস্য পদে ৩১ জন প্রার্থী প্রতিদ্বন্দ্বিতা করছেন।

বলদিয়া ইউনিয়ন পরিষদের চেয়ারম্যান পদে আওয়ামী লীগের খোকন মিয়া নৌকা, ইসলামী আন্দোলন বাংলাদেশের ইসলামুল হক হাতপাখা, জাতীয় পার্টির মোজাম্মেল হক লাঙ্গল, স্বতন্ত্র প্রার্থী এএম সাজ্জাদ হোসাইন খোকন মোটরসাইকেল, আব্দুল বারেক ঘোড়া, জাবেদুল ইসলাম চশমা ও মোখলেছুর রহমান আনারস প্রতীকে প্রতিদ্বন্দ্বিতা করছেন। সংরক্ষিত মহিলা সদস্য পদে ১২ জন এবং সাধারণ সদস্য পদে ৪০ জন প্রার্থী প্রতিদ্বন্দ্বিতা করছেন।

উপজেলা নির্বাচন কর্মকর্তা ও রিটার্নিং কর্মকর্তা মশিউর রহমান জানান, সাতটি ইউনিয়নে মোট ১লাখ ১৫ হাজার ৪৩৬ জন ভোটার তাদের ভোটাধিকার প্রয়োগ করবেন। এখন পর্যন্ত নির্বাচনী আচরণ বিধি লঙ্ঘনের কোন অভিযোগ আমরা পাইনি। নির্বাচনী প্রচারণায় সকল প্রার্থী সমান সুযোগ ভোগ করছেন। অবাধ, সুষ্ঠু ও শান্তিপূর্ণ একটি নির্বাচন অনুষ্ঠানে তিনি সকলের সহযোগিতা কামনা করেন।

পাঠকের মন্তব্য