নেটিজেনদের মনে প্রশ্ন জাগে, কে এই ব্যালে গার্ল ? 

নেটিজেনদের মনে প্রশ্ন জাগে, কে এই ব্যালে গার্ল ? 

নেটিজেনদের মনে প্রশ্ন জাগে, কে এই ব্যালে গার্ল ? 

ব্যস্ত ফেসবুক স্ক্রলে হঠাৎ চোখ আটকে যায় এক বালিকার ভাসমান ছবিতে। ব্যালে নাচের ভঙ্গিতে একটি নয়, একাধিক ছবি ঘুরছে সোশ্যাল মিডিয়ায়। এরপরেই নেটিজেনদের মনে প্রশ্ন জাগে, কে এই ব্যালে গার্ল? 

মোবাশ্বিরা কামাল ইরার এই ছবিগুলো তুলেছেন জয়িতা আফরিন। তার তোলা এই ছবিগুলোই এখন ভাইরাল। কেউ কেউ বিদ্রোহী কবিতা লিখে ক্যাপশন দিয়ে শেয়ার করেছেন এই ছবি। কেউ আবার ফ্লাই উইথ সাস্ট লিখে শেয়ার করেছেন। কারণ একটি ছবির ব্যাকগ্রাউন্ডে ছিল শাবিপ্রবির আন্দোলনের স্লোগানসহ ব্যানার। 

নওগাঁর মেয়ে ইরা। ঢাকায় এসেছিলেন শিল্পকলার ২০ থেকে ২২ তারিখের নৃত্য উৎসবে। উৎসব শেষে ২৩ জানুয়ারি ছবিগুলো তোলেন তিনি। এরপরেই আবার ফিরে যান বাড়ি। 

নওগাঁ সরকারি কলেজে দ্বিতীয় বর্ষের শিক্ষার্থী ইরা নিজের ফেসবুকে পোস্ট দিয়ে লিখেছেন, “মাকে ধন্যবাদ, যিনি সবসময় আমাকে ব্যালে করতে উৎসাহ যুগিয়েছেন।”

ইরার ছবিগুলো তুলেছেন ফটোগ্রাফার জয়িতা আফরিন। 

জয়িতা জানান, ঢাকার রাস্তায় ব্যালে থিমে কাজ করার আইডিয়াটা তার অনেকদিন ধরেই ছিল। তাই এবার টিএসসিতে রাজু ভাস্কর্যের সামনে সাস্টের পরিস্থিতি নিয়ে ব্যানার দেখেই তার মাথায় আসে যে এটা এভাবে এখন করলেই সবচেয়ে ভালো হবে। 

এদিকে ব্যালের এই ফর্মটি নিয়ে ইরা জানান, করোনাকালে এই ফর্মে কিছু কাজ করেছিলেন তিনি, যার ছোট ছোট ভিডিও করে শেয়ারও করেছিলেন সোশ্যাল মিডিয়ায়। তখন সাড়া পেলেও ভিডিওগুলো ভাইরাল হয়নি। 

এর পর ঢাকায় এসে জয়িতা আফরিনের সঙ্গে পরিচয় হয় ইরার। 

বরাবরই নাচ করতে ভালোবাসেন ইরা। শৈশবে নওগাঁয় সুলতান মাহমুদের কাছে শিখেছেন। পরে ঢাকায় ভরতনাট্যম শেখেন। ২০২১ থেকে সাধনা সংগঠনের সঙ্গে কাজ করছেন।

পাঠকের মন্তব্য