ঈদুল ফিতরের ঈদযাত্রার ১৪ দিনে নিহত ৩৭৬

ঈদুল ফিতরের ঈদযাত্রার ১৪ দিনে নিহত ৩৭৬

ঈদুল ফিতরের ঈদযাত্রার ১৪ দিনে নিহত ৩৭৬

ঈদুল ফিতরের আগে-পরে ১৪ দিনে (২৫ এপ্রিল থেকে ৮ মে) দেশে ২৮৩টি সড়ক দুর্ঘটনায় ৩৭৬ জন নিহত হয়েছেন। দুর্ঘটনাগুলোতে আহত হয়েছেন কমপক্ষে ১ হাজার ৫০০ জন।এর মধ্যে ১২৮টি মোটরসাইকেল দুর্ঘটনায় নিহত হয়েছেন ১৫৬ জন। নিহতদের মধ্যে ৩৮ নারী ও ৫১টি শিশু রয়েছে।

বৃহস্পতিবার সকালে সংবাদমাধ্যমে রোড সেফটি ফাউন্ডেশনের নির্বাহী পরিচালক সাইদুর রহমানের পাঠানো এক প্রতিবেদনে এ তথ্য জানানো হয়েছে।

রোড সেফটি ফাউন্ডেশন জানিয়েছে, সাতটি জাতীয় দৈনিক, পাঁচটি অনলাইন নিউজ পোর্টাল ও ইলেকট্রনিক গণমাধ্যমের তথ্যের ভিত্তিতে এ প্রতিবেদন তৈরি হয়েছে।

প্রতিবেদনে বলা হয়েছে, ১২৮টি মোটরসাইকেল দুর্ঘটনায় প্রাণ গেছে ১৫৬ জনের, যা মোট নিহতের ৪১.৪৮ শতাংশ। দুর্ঘটনায় ৫৪ জন পথচারী নিহত হয়েছে, যা মোট নিহতের ১৪.৩৬ শতাংশ। যানবাহনের চালক ও সহকারী নিহত হয়েছেন ৪৯ জন, অর্থাৎ ১৩ শতাংশ। এ সময়ে সাতটি নৌ দুর্ঘটনায় চারজন নিহত হয়েছে এবং দুজন নিখোঁজ রয়েছে। ১৭টি রেলপথ দুর্ঘটনায় ১৯ জন নিহত এবং ৩ জন আহত হয়েছে।

প্রতিবেদনে মোটরসাইকেল দুর্ঘটনার ধরন বিশ্লেষণে দেখা যায়, অন্য যানবাহনের সঙ্গে মোটরসাইকেলের মুখোমুখি সংঘর্ষ ঘটেছে ১৬.১৯ শতাংশ। মোটরসাইকেল নিয়ন্ত্রণ হারিয়ে দুর্ঘটনা ঘটেছে ৪১.৯৫ শতাংশ। অন্য যানবাহন দ্বারা মোটরসাইকেলে ধাক্কা/চাপায় দুর্ঘটনা ঘটেছে ৩৯.০৪ শতাংশ। অন্যান্য কারণে দুর্ঘটনা ঘটেছে ২.৮ শতাংশ। মোটরসাইকেল দুর্ঘটনায় নিহত চালক ও আরোহীদের মধ্যে ৫১.৪২ শতাংশের বয়স ১৪ থেকে ২০ বছর

রোড সেফটি ফাউন্ডেশনের নির্বাহী পরিচালক সাইদুর রহমান বলেন, কিশোর-যুবকদের বেপরোয়া মোটরসাইকেল চালানোর কারণে তারা নিজেরা দুর্ঘটনায় পতিত হচ্ছে এবং অন্যদের আক্রান্ত করছে। মোটরসাইকেল উৎপাদন ও আমদানির ক্ষেত্রে সরকার নানা ধরনের সুযোগ-সুবিধা দিচ্ছে। এর ফলে দেশে মোটরসাইকেলের ব্যবহার ব্যাপক হারে বাড়ছে।

পাঠকের মন্তব্য