‘কৃচ্ছ্রতা সাধন ও সাশ্রয়ী হওয়ার পরামর্শ’ 

প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা

প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা

বিশ্ববাজারে খাদ্যসহ সব ধরনের পণ্যের দামবৃদ্ধির প্রেক্ষাপটে প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা দেশের মানুষকে ‘কৃচ্ছ্রতা সাধন ও সাশ্রয়ী হওয়ার পরামর্শ দিয়েছেন’ বলে জানিয়েছেন পরিকল্পনামন্ত্রী এম এ মান্নান।

তিনি বলেছেন, অর্থ ব্যয়ে সাশ্রয়ী ও পরিতিমিতিবোধ দেখাতে হবে, অপচয় করা যাবে না, প্রধানমন্ত্রী নির্দেশ দিয়েছেন। মঙ্গলবার জাতীয় অর্থনৈতিক পরিষদের (এনইসি) সভায় সরকারপ্রধানের পক্ষ থেকে এই নির্দেশনা আসে। পরে সংবাদ সম্মেলনে সভার আলোচনার বিষয়ে ব্রিফ করেন পরিকল্পনামন্ত্রী।

গণভবন থেকে ভিডিও কনফারেন্সের মাধ্যমে শেরে বাংলা নগরের এনইসি সম্মেলন কক্ষে ওই বৈঠকে যুক্ত হয়ে সভাপতিত্ব করেন প্রধানমন্ত্রী।

বৈঠকে আগামী ২০২২-২০২৩ অর্থ বছরের জন্য ২ লাখ ৪৬ হাজার ৬৬ কোটি টাকার বার্ষিক উন্নয়ন কর্মসূচি (এডিপি) অনুমোদন দেওয়া হয়। এছাড়া স্বায়ত্বশাসিত সংস্থা বা কর্পোরেশনের প্রায় ৯ হাজার ১৩০ কোটি টাকার এডিপি অনুমোদন পায়।

পরে সংবাদ সম্মেলনে পরিকল্পনামন্ত্রী বলেন, আলোচনায় আরেকটা বিষয় গুরুত্ব পেয়েছে, সেটা হল অপচায় রোধ করা। মাননীয় প্রধানমন্ত্রী আমাদের দেশের সাধারণ মানুষকে কৃচ্ছ্রতা সাধন ও সাশ্রয়ী হওয়ার পরামর্শ দিয়েছেন।

এম এ মান্নান বলেন, সরকারি-বেসরকারি সব খাতে সব বিষয়ে সাশ্রয়ী হতে বলেছেন প্রধানমন্ত্রী, বিদ্যুৎ-পানি থেকে শুরু করে কোনো খাতে অপচয় করা যাবে না।

প্রধানমন্ত্রী ভ্রমণের বিষয়ে নির্বাহী আদেশ দিয়েছেন। সুতরাং সব বিষয়ে সাশ্রীয় হতে হবে, অহেতুক সম্পদ নষ্ট করবেন না। তবে সরকারের শীর্ষ পর্যায় থেকে কৃচ্ছ্রতা সাধনের এই পরামর্শে শঙ্কিত না হওয়ার পরামর্শ দিয়েছেন পরিকল্পনামন্ত্রী।

তিনি বলেন, এই বার্তা ভয়ের কোনো কারণে নয়। আমরা সঠিক পথেই আছি। অন্যান্য দেশের সঙ্গে আমাদের তুলনীয় নয়। তবে নিজের ঘর সামলানো অনেক বেশি দরকার, সেটাই বলেছেন প্রধানমন্ত্রী।    

পরিকল্পনা প্রতিমন্ত্রী অধ্যাপক ড. শামসুল আলম, পরিকল্পনা সচিব প্রদীপ রঞ্জন চক্রবর্তী, আইএমইডি সচিব আবু হেনা মোরশেদ জামান এবং ভৌত অবকাঠামো বিভাগের সদস্য মো. মামুন আল রশীদ সংবাদ সম্মেলনে উপস্থিত ছিলেন।

পাঠকের মন্তব্য