মিয়ানমারে দ্রুত প্রত্যাবাসনসহ ১৯ দফা দাবীতে সমাবেশ

মিয়ানমারে দ্রুত প্রত্যাবাসনসহ ১৯ দফা দাবীতে সমাবেশ

মিয়ানমারে দ্রুত প্রত্যাবাসনসহ ১৯ দফা দাবীতে সমাবেশ

রোহিঙ্গা ক্যাম্পে ১৯ দফা দাবীতে কক্সবাজারের উখিয়া-টেকনাফের ২৯টি রোহিঙ্গা ক্যাম্পে একযোগে সমাবেশ করেছে রোহিঙ্গারা। যার মধ্যে উখিয়ার ২৭টি ক্যাম্প এবং টেকনাফের ২৬ ও ২৭ নম্বর ক্যাম্পে নানারকম প্ল্যাকার্ড নিয়ে এ সমাবেশ অনুষ্ঠিত হয়। সমাবেশে মিয়ানমারে দ্রুত প্রত্যাবাসনসহ ১৯ দফা দাবী উত্থাপন করা হয়। তবে বৃষ্টি হওয়ায় আধাঘন্টার মধ্যে শেষ করা হয় এ কর্মসূচি।

রোববার (১৯ জুন) সকাল ১১ টা থেকে ক্যাম্পের বিভিন্ন পয়েন্টে পয়েন্টে প্ল্যাকার্ড, ব্যানার, ফেস্টুন নিয়ে রোহিঙ্গারা অবস্থান নিতে শুরু করে। তারা নিজেদের রোহিঙ্গা জাতির স্বীকৃতির দাবীর পাশাপাশি দ্রুত সময়ের মধ্যে নিজেদের মাতৃভূমি মিয়ানমারে প্রত্যাবাসনের দাবী জানান।

সমাবেশে রোহিঙ্গারা জানান, মিয়ানমারের গণহত্যা থেকে বেঁচে যাওয়া রোহিঙ্গা জাতিগোষ্ঠী তারা। তারা স্বদেশে ফিরতে ইচ্ছুক। তবে এ ক্ষেত্রে তারা নিরাপদ প্রত্যাবাসন চান।

কোন ধরনের সংগঠনের নাম না থাকলেও আয়োজক হিসেবে নির্যাতিত রোহিঙ্গা জনগোষ্ঠী বলে উল্লেখ করা হয়। একযোগে ২৯টি ক্যাম্পে এ সমাবেশ হলেও কোথাও কোন ধরনের অপ্রীতিকর ঘটনা ঘটেনি। পরিস্থিতি নিয়ন্ত্রনে আইনশৃঙ্খলা বাহিনীর উপস্থিতি ছিল লক্ষণীয়। প্রতিটি ক্যাম্পে হাজার থেকে ৫০০ রোহিঙ্গা খন্ড খন্ড জমায়েত হয়ে এ সমাবেশ করে।

সমাবেশে উত্থাপিত দাবীর মধ্যে উল্লেখযোগ্য ছিল পূর্ণ নাগরিকত্বে নিজ দেশ মিয়ানমারে দ্রুত প্রত্যাবাসন, ১৯৮২ সালের নাগরিকত্ব আইন সংশোধন, প্রত্যাবাসন প্রক্রিয়ায় যুক্তরাষ্ট্র, যুক্তরাজ্য, জাতিসংঘ, আশিয়ান, বাংলাদেশসহ বিভিন্ন দেশ ও সংস্থার সম্পৃক্ততা, গ্রামে গ্রামে প্রত্যাবাসন, প্রত্যেকের নিজের ভিটে মাটি, জমি-জমা ফেরতসহ নানা দাবীর কথা তুলে ধরা হয়।

পাঠকের মন্তব্য