গোয়ালন্দে ব্যবসা প্রতিষ্ঠানের গ্রিল কেটে জিনিসপত্র লুট

গোয়ালন্দে ব্যবসা প্রতিষ্ঠানের গ্রিল কেটে জিনিসপত্র লুট

গোয়ালন্দে ব্যবসা প্রতিষ্ঠানের গ্রিল কেটে জিনিসপত্র লুট

রাজবাড়ীর গোয়ালন্দ বাসষ্ট্যান্ড এলাকায় অবস্থিত  মের্সাস দাদাভাই এন্টারপ্রাইজ নামক প্রতিষ্ঠানের তালা ভেঙ্গে নগদ টাকাসহ গুরুত্বপূর্ণ কাগজ পত্র লুটের ঘটনা ঘটেছে। এ সময় ওই প্রতিষ্ঠানের নৈশ প্রহরীকে হাত-পা, মুখ বেঁধে তুলে নিয়ে যাওয়ার প্রায় ৮ঘন্টা পর গোয়ালন্দ উপজেলা কমপ্লেক্স জামে মসজিদের বারান্দা থেকে তাকে উদ্ধার করে পুলিশ।

গত মঙ্গলবার (২ আগস্ট) দিবাগত গভীর রাতে এ ঘটনাটি ঘটে।

মের্সাস দাদাভাই এন্টারপ্রাইজ এর মালিক রেজাউল ইসলাম বলেন,গত মঙ্গলবার রাত ১টার দিকে গাড়ি থেকে মালামাল নামানোর পর দোকানের শার্টার ও কলাপসিবল গেট বন্ধ করে নৈশ প্রহরী শামসু শেখকে (৩৭) রেখে যান। বুধবার সকালে স্থানীয়দের খবরে জানতে পারি দোকানের কলাপসিবল গেটে লাগানো কিন্তু একটিও তালা নেই। দ্রুত দোকানে এসে দেখি দোকানের  শাটারের তালা ভেঙ্গে ভিতরে প্রবেশ করে লোহার ড্রয়ারের তালা ভেঙে নগদ পৌনে ২ লাখ টাকা, তিনটি ব্যাংকের চেকবই, পাসপোর্ট এবং কিছু জমির দলিল নিয়ে যায়। এ সময় দূর্বৃত্তরা সিসি ক্যামেরা ভাঙচুর করে হার্ডডিস্ক নিয়ে যায়। এসময় অপহরণ হওয়া নৈশ প্রহরী শামসু শেখকে গোয়ালন্দ উপজেলা কমপ্লেক্সে জামে মসিজদের বারান্দা থেকে উদ্ধার করে তাকে হেফাজতে নেয় পুলিশ।

গোয়ালন্দ ঘাট থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (ওসি) স্বপন কুমার মজুমদার বলেন, উদ্ধার হওয়া নৈশ প্রহরীকে জিজ্ঞাসাবাদ করা হচ্ছে। এ ঘটনায় রেজাউল খান রেজা (৩৬) অজ্ঞাত ৫-৬ জনকে আসামী করে থানায় একটি চুরির মামলা দায়ের করেছেন। ঘটনার অনুসন্ধান এবং আসামিদের গ্রেফতারের চেষ্টা চালছে।

পাঠকের মন্তব্য