পাইকগাছায় মন্ত্রীর অনুষ্ঠানের সেই পকেটমার আটক

ভিআইপি চোর ইসহাক শেখ (৫৬)

ভিআইপি চোর ইসহাক শেখ (৫৬)

পাইকগাছায় সংস্কৃতি প্রতিমন্ত্রী কেএম খালিদ-এমপি ও পুলিশের কাছাকাছি থেকে ইউপি চেয়ারম্যান, রাজনৈতিক নেতা ও সাংবাদিকদের পকেটমারের ঘটনায় সেই ভিআইপি চোর ইসহাক শেখ (৫৬) কে পুলিশ গ্রেফতার করেছেন। 

থানা পুলিশ জানান, অনুষ্ঠানের ভিডিও ফুটেজে ইসহাক কে সনাক্ত করে বৃহস্পতিবার সন্ধ্যার পূর্বে রূপসা বাসস্ট্যান্ড ক্যাম্প পুলিশের সহায়তায় এসআই তকবীর হুসাইন, এএসআই নাজমূল, আনিছ তাকে আটক করেন। সে রুপসার নৈহাটি গ্রামের মৃতঃ জজ আলীর ছেলে। এদিকে পকেটমারের স্বীকার  দৈনিক জন্মভূমি কপিলমুনির প্রতিনিধি সাংবাদিক তপন পাল বাদী হয়ে শুক্রবার ইসহাকের বিরুদ্ধে থানায় মামলা করেছেন। 

সংশ্লিষ্ট সুত্র জানিয়েছে, ২আগস্ট-২২ পাইকগাছার রাড়ুলীতে বিশ্ববিখ্যাত বিজ্ঞানী আচার্য প্রফুল্ল চন্দ্র (পিসি) রায়ের ১৬১ তম জন্মবার্ষিকী'র নানা কর্মসূচি ছিল। এ কর্মসূচিতে প্রধান অতিথি ছিলেন সংস্কৃতি বিষয়ক প্রতিমন্ত্রী কেএম খালিদ-এমপি। তিনি অনুষ্ঠান স্থলে পৌঁছানোর পূর্বে সকালে কপিলমুনিতে স্থাপিত ৭১'র মুক্তিযুদ্ধে নিহত শহীদদের প্রতি শ্রদ্ধা জানাতে বধ্যভূমি স্মৃতি কমপ্লেক্স আসেন। 

এ সময় ভিআইপি অতিথি সহ বহু মানুষের ভীড়ে ঠাসা ছিল। এ ভীড়ের মধ্যে মন্ত্রী, এমপি, ওসি'র সম্মুখ থেকে সুকৌশলে ইসহাক কপিলমুনি ইউনিয়ন যুগোল কিশোর দে'র পাঞ্জাবীর পকেট থেকে ১৮ শ টাকা পকেট মারেন। এ সময় কপিলমুনির ইউপি চেয়ারম্যান কওসার আলীর ৯ হাজার টাকা, স্থানীয় প্রেসক্লাব সম্পাদক আঃ রাজ্জাক রাজু'র একটি নোকিয়া বাটন মোবাইল চুরি হয়। মন্ত্রী চলে যাবার পরেই এ ঘটনা জানাজানি হলে খবরটি ফেসবুকে ভাইরাল আকারে ছড়িয়ে পড়ে। পরবর্তীতে সাংবাদিকদের মোবাইলে ধারণকৃত ছবি দেখে পুলিশ ইসহাককে গ্রেফতার করেন। ধৃত ইসহাক  ১৮শ টাকা চুরির কথা স্বীকার করে বলেন, এখানে আরোও ক'জন পকেটমারের অবস্থান ছিল। 

এ ঘটনায় থানায় মামলার তথ্য দিয়ে ওসি মোঃ জিয়াউর রহমান বলেন, ধৃত ইসহাক আন্তঃ বিভাগীয় পকেটমারের মূল হোতা। সে ইতোপূর্বেও ঝিনাইদহে আটক হয়েছিল।

পাঠকের মন্তব্য