শিক্ষকের বেত্রাঘাতে মাদ্রাসাছাত্রের মৃত্যু; আটক শিক্ষক

মো. সিহাব উদ্দিন (১৪)

মো. সিহাব উদ্দিন (১৪)

কুমিল্লায় শিক্ষকের বেত্রাঘাতে মো. সিহাব উদ্দিন (১৪) নামে এক মাদ্রাসাছাত্রের মৃত্যুর অভিযোগ উঠেছে। শুক্রবার দুপুরের দিকে কুমিল্লা মেডিকেল কলেজ হাসপাতালে (কুমেক) ওই ছাত্রের মৃত্যু হয়।

সিহাব কুমিল্লার বরুড়া উপজেলার ঝলম ইউনিয়নের শশইয়া গ্রামের শুক্কুর আলী ডিলারের ছেলে। অভিযুক্ত শিক্ষকের নাম মাওলানা আব্দুর রব। তিনি মেড্ডা আল মাতিনিয়া নূরানী মাদ্রাসার শিক্ষক। এ ঘটনায় শুক্রবার সন্ধ্যা সাড়ে ৭টার দিকে তাকে আটক করেছে পুলিশ।

সিহাবের ভাবী সাবিকুন নাহার ঝুমুর বলেন, সিহাব আবাসিক ছাত্র হিসেবে ওই শিক্ষকের তত্ত্বাবধায়নে নূরানী শিক্ষাগ্রহণ করছিল। গত কয়েকদিন আগে মাদ্রাসার শিক্ষক আব্দুর রব তাকে বেত্রাঘাত করেন। এতে সিহাব অসুস্থ হয়ে পড়লে শিক্ষকরা তাকে ওষুধ এনে খাওয়ান। বিষয়টি গোপন রাখেন শিক্ষকরা। কিন্তু সে সুস্থ না হওয়ায় বৃহস্পতিবার মাদ্রাসা থেকে ফোন করে সিহাবের অসুস্থতার খবর জানানো হয়। পরে পরিবারের লোকজন তাকে মাদ্রাসায় গিয়ে তাকে বাড়িতে নিয়ে আসে। সিহাবের শরীরে জ্বরসহ প্রচন্ড ব্যথা শুরু হয়ে অবস্থার অবনতি হওয়ায় শুক্রবার সকালে তাকে বরুড়া উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সে নেয়া হয়। কিন্তু সেখানকার চিকিৎসকরা তাকে কুমিল্লা মেডিকেল কলেজ হাসপাতালে নিয়ে যেতে বলেন। কুমেক হাসপাতালে আনার পর দুপুরের দিকে তার মৃত্যু হয়।

সিহাবের বাবা শুক্কুর আলী বলেন, ‘ছেলেকে আরবি শিক্ষা দিতে পাঠিয়ে এখন লাশ নিয়ে বাড়িতে ফিরছি, এ কষ্ট কিভাবে সহ্য করবো? কার কাছে বিচার চাইবো? শিক্ষকরা এতো নিষ্ঠুর হলে কেমনে শিশুরা শিক্ষা লাভ করবে?

এ বিষয়ে অভিযুক্ত শিক্ষক আব্দুর রবের মুঠোফোনে একাধিকবার ফোন করা হলেও তিনি ফোন রিসিভ করেননি। পরে তার ফোনে ক্ষুদে বার্তা পাঠিয়েও সাড়া মিলেনি।

তবে ওই মাদ্রাসার মুহতামিম মাওলানা আহমেদ শফি বলেন, ‘আমি সিহাবের পরিবারের সাথে কথা বলেছি, বিষয়টি সমাধানের চেষ্টা করছি। সিহাবকে মেরে ফেলার উদ্দেশ্যে তো এ বেত্রাঘাত করা হয়নি।’ 

সন্ধ্যায় বরুড়া থানা ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (ওসি) ইকবাল বাহার মজুমদার বলেন, ফেসবুকে বিষয়টি জেনে ঘটনাস্থলসহ ওই মাদ্রাসা ছাত্রের বাড়িতে পুলিশ পাঠানো হয়। বিষয়টি নিয়ে আইনগত পদক্ষেপ নিতে বাড়ি থেকে ওই ছাত্রের মরদেহ উদ্ধার উদ্ধার করা হয়েছে। শনিবার কুমেক হাসপাতালে মরদেহের ময়নাতদন্ত করা হবে।

তিনি আরও বলেন, এ ঘটনায় জিজ্ঞাসাবাদের জন্য মাদ্রাসার শিক্ষক আব্দুর রবকে আটক করা হয়েছে। 

পাঠকের মন্তব্য