জাবিতে ভর্তিচ্ছুদের সহযোগিতায় স্বেচ্ছাসেবী সংগঠন ইচ্ছা

জাহাঙ্গীরনগর বিশ্ববিদ্যালয়ে (জাবি)

জাহাঙ্গীরনগর বিশ্ববিদ্যালয়ে (জাবি)

জাহাঙ্গীরনগর বিশ্ববিদ্যালয়ে (জাবি) চলমান ভর্তি পরীক্ষার সময় ভর্তিচ্ছু শিক্ষার্থীদের সহযোগিতায় স্বেচ্ছাসেবী সংগঠন ইচ্ছার (ইন্সপায়ার কেয়ার এন্ড কালটিভ হিউম্যান এইড) ব্যতিক্রমী এক উদ্যোগের দেখা মিলল।

বিশ্ববিদ্যালয়ের গাণিতিক ও পদার্থবিষয়ক অনুষদের সামনে সংগঠনের একদল সদস্য বিনামূল্যে পরীক্ষার্থীদের মোবাইল, ব্যাগ জমা রাখছে। যা ইতোমধ্যে বিশ্ববিদ্যালয়ের সর্বমহলে প্রশংসিত হয়েছে। আর পরীক্ষার্থীরাও স্বচ্ছন্দে গ্রহণ করছে এ সেবা।

এছাড়াও ভর্তি-ইচ্ছুক পরিক্ষার্থীদের বিনামূল্যে পানি বিতরণ কার্যক্রম, মোবাইল, ঘড়ি ও ব্যাগ জমা রাখা, হল খুঁজে পেতে সহায়তা করছে।

ভর্তি পরিক্ষা দিতে আসা বরিশালের শিক্ষার্থী শরিফ বলেন, 'ভর্তি পরিক্ষা দেওয়ার উদ্দেশ্যে প্রথমবার জাবিতে এসেছি। এখানে কয়েক জায়গায় টাকার বিনিময়ে মোবাইল, ব্যাগ জমা রাখেন। কিন্তু 'ইচ্ছা' এক্ষেত্রে ব্যতিক্রম। সম্পূর্ণ ফ্রি তে পরিক্ষার্থীদের সহযোগিতা করছে। যা সত্যিই খুব প্রশংসনীয়।'

সংগঠনটির সদস্য  ইতিহাস বিভাগের দ্বিতীয়  বর্ষের শিক্ষার্থী সাদিয়াতুল মুনা বলেন , আমি যখন পরীক্ষা দিতে এসে ত্রিশ টাকার বিনিময়ে মোবাইল রাখতে হয়েছিল তখন খুব খারাপ লেগেছিল। ইচ্ছা সংগঠনের মাধ্যমে এ বছর কাজটি বিনামূল্যে করতে পেরে মানসিকভাবে প্রশান্তি অনুভব করছি।

ইচ্ছা'র সভাপতি মেহেদি হাসান তাদের সংগঠনের কার্যক্রম সমন্ধে বলেন, 'ইচ্ছা প্রতিবছরের ন্যায় এবারো বিনামূল্যে শিক্ষার্থীদের পানি বিতরণ, মোবাইল ও ব্যাগ জমা রাখা, বাইক সার্ভিস চালু রেখেছে। কেননা অনেকে এসব সেবার নামে শিক্ষার্থীদের কাছ থেকে মোটা অংকের টাকা নিয়ে রাখছে। এতে করে শিক্ষার্থীরা ভোগান্তীর শিকার হচ্ছেন। আমরা চাই, ক্যাম্পাস থেকে এই অপসংস্কৃতি দূর হোক। গত চার দিনে আমরা ভর্তিচ্ছুদের বিনামূল্যে সেবা দিতে সক্ষম হয়েছি। সামাজিক সংগঠনগুলোও এক্ষেত্রে এগিয়ে আসলে সহজেই এই বাজে সংস্কৃতি থেকে বেরিয়ে আসতে পারবো আমরা।

পাঠকের মন্তব্য